শিক্ষাবৃত্তির আকর্ষণীয় ৩টি অফার যুক্তরাষ্ট্র ও বৃটেনের

কূটনৈতিক রিপোর্টার

শেষের পাতা ৬ মার্চ ২০২১, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৫ অপরাহ্ন

শিক্ষাবৃত্তির আকর্ষণীয় ৩টি অফার চলছে যুক্তরাষ্ট্র ও বৃটেনের। শিক্ষাবৃত্তির একাধিক স্কিমের আবেদন গ্রহণ করছে স্ব স্ব দেশ। আগ্রহী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা সুযোগটি নিতে পারেন। অন্তত আবেদন করে নিজের যোগ্যতা যাচাই করতে পারেন। স্বপ্নের দেশ যুক্তরাষ্ট্র ও বৃটেন সেই সব মেধাবীদের খুঁজছে যারা চ্যালেঞ্জ গ্রহণে প্রস্তুত। ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে- বাংলাদেশিদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের গ্লোবাল ইউগ্র্যাড বৃত্তির আবেদন গ্রহণের সময়সীমা আগামী ১৫ই মার্চ বাড়ানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনার সুযোগ না পাওয়া শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তি দিচ্ছে দেশটির কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। বিজ্ঞপ্তি মতে এই বৃত্তির লক্ষ্য হলো কম প্রতিনিধিত্বশীল প্রেক্ষাপট থেকে আসা এবং যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নের অন্য কোনো সুযোগ পাননি এমন শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করা।
আবেদনকারীদের অবশ্যই টোফেল এ ন্যূনতম ৭২ আইবিটি এবং আইইএলটিএস-এ ন্যূনতম ৬ পয়েন্ট স্কোর অর্জন করতে হবে। আবেদনের সঙ্গে এসএসসি ও এইচএসসি নম্বরপত্র, ব্যক্তিগত রচনা (৫০০ শব্দের মধ্যে) এবং অনলাইন ফরমে অন্তর্ভুক্ত প্রশ্নের লিখিত উত্তর (৪০০-৬০০ শব্দের মধ্যে) এবং অধ্যাপক বা শিক্ষকদের কাছ থেকে দুটি সুপারিশপত্র জমা দিতে হবে। আবেদন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। যেকোনো শিক্ষা বিষয়ে পড়ুয়ারাই এর জন্য যোগ্য হবেন। আবেদনকারীদের আগ্রহ, প্রাপ্যতা এবং সেই সঙ্গে ভর্তির সুযোগ ও তহবিল সংস্থানের ভিত্তিতে এক সেমিস্টারের (প্রায় ৪ মাস) জন্য এই বৃত্তি দেয়া হবে। অনধিক ২৫ বছর বয়সী (ন্যূনতম ১৮ বছর) বাংলাদেশি নাগরিক হতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র বা অন্য কোনো দেশের দ্বৈত নাগরিক বা স্থায়ী অভিবাসী হতে পারবেন না। বর্তমানে পূর্ণকালীন স্নাতক-পূর্ব শিক্ষার্থী হিসেবে ভর্তি থাকতে হবে এবং কমপক্ষে এক সেমিস্টারসম্পন্ন অথবা নিজ প্রতিষ্ঠানে ফিরে আসার পর এক সেমিস্টার বাকি থাকতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে অধ্যয়নে সম্পৃক্ত হওয়ার জন্য ইংরেজিতে লেখা ও কথা বলার ক্ষেত্রে যথাযথ দক্ষতা থাকতে হবে। নেতৃত্বদানের দক্ষতার প্রমাণ থাকতে হবে। কার্যক্রম শেষে বাংলাদেশে নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে আসার অঙ্গীকার থাকতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রে থাকার পূর্ব অভিজ্ঞতা সামান্য বা নেই এমন হতে হবে। অনলাইনে আবেদন করতে হবে। কার্যক্রমে নিবন্ধনের জন্য https://webportalapp.com/sp/login/n9bqhdalu1 এই লিংকে যেতে হবে। আগ্রহীরা এই কার্যক্রমের জন্য যোগ্য কিনা, নিশ্চিত হতে আবেদন শুরুর আগে এর শর্তাবলী যাচাই করে নেবেন। মনে রাখতে হবে, যোগ্যতার শর্তাবলী যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট কর্তৃক নির্ধারিত এবং এর ব্যতিক্রম করা সম্ভব নয়। সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত প্রার্থীদের আমেরিকান সেন্টারে সাক্ষাৎকারের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হবে। বিজ্ঞপ্তি মতে, প্রার্থীদের মনোনয়ন আমেরিকান সেন্টার কর্তৃক করা হলেও কার্যক্রমে অংশগ্রহণের বিষয়টি ওয়াশিংটন ডিসি থেকে চূড়ান্ত অনুমোদন ও তহবিল প্রাপ্যতার ওপর নির্ভরশীল।

মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষকদের ৬ সপ্তাহের কোর্সের সুযোগ দিচ্ছে আমেরিকা: এদিকে ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের আমেরিকান সেন্টার ফুলব্রাইট টিচিং এক্সিলেন্স অ্যান্ড অ্যাচিভমেন্ট (টিএই) প্রোগ্রামে ফেলোশিপের জন্য আবেদন গ্রহণ করছে। এই ফেলোশিপ মাধ্যমিক স্কুলশিক্ষকদের জন্য ছয় সপ্তাহের একটি বিনিময় কার্যক্রম। ২০২২ সালের বসন্তে (ফেব্রুয়ারি-মার্চ) অথবা শরতে (সেপ্টেম্বর-নভেম্বর) এ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষকেরা এই ফেলোশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আজই অর্থাৎ ৬ই মার্চ ২০২১, শনিবারের মধ্যে আবেদন করতে হবে। এই ফেলোশিপের আওতায় আর্থিক সুবিধাদির মধ্যে রয়েছে: জে-১ ভিসার জন্য সহায়তা, যাত্রা শুরুর আগে ঢাকায় পরিচিতিমূলক অনুষ্ঠান, যুক্তরাষ্ট্রের ফিরতি ও অভ্যন্তরীণ বিমান ভাড়া, ওয়াশিংটন ডিসি’তে স্বাগত-জ্ঞাপক ও পরিচিতিমূলক অনুষ্ঠান, শিক্ষা কার্যক্রমের ফিস, আবাসন (সাধারণত কার্যক্রমের সহসাথীদের সঙ্গে ভাগাভাগিকৃত) ও খাবার, দুর্ঘটনা ও স্বাস্থ্যবীমা, শিক্ষানবিশি স্কুলে যাতায়াত (প্রয়োজন হলে), বইপত্র/পেশাগত উন্নয়ন ভাতা, যুক্তরাষ্ট্রে ফুলব্রাইট TEA কার্যক্রমের আওতায় আমন্ত্রক বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে সমাপনী সেমিনার, দুই সপ্তাহের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কোনো শিক্ষককে আতিথেয়তা দান এবং কার্যক্রম পরবর্তী বিভিন্ন অনুদানের জন্য আবেদনের সুযোগ। সমাজবিদ্যা, নাগরিক শিক্ষা, গণিত, বিদেশি ভাষা হিসেবে ইংরেজি ও বিজ্ঞান বিষয়ে মাধ্যমিক পর্যায়ের পূর্ণকালীন শিক্ষক হিসেবে পাঁচ বছর বা অধিক সময় ধরে শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। বাংলাদেশি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে। নেতৃত্বদানের দৃষ্টান্তমূলক যোগ্যতা থাকতে হবে এবং ফুলব্রাইট TEA কার্যক্রম শেষে ন্যূনতম পাঁচ বছর শিক্ষকতা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার নিতে হবে। ইংরেজিতে লেখা ও কথা বলায় পারদর্শী হতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনভাবে কাজকর্ম চালানোর জন্য ইংরেজি ভাষায় পর্যাপ্ত দক্ষতা থাকতে হবে এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও পেশাগত ক্ষেত্রে সুস্পষ্ট ও কার্যকরভাবে বিভিন্ন ধারণা প্রকাশে সক্ষম হতে হবে। ওয়ার্ড প্রসেসিং, সাধারণ ফাইল ব্যবস্থাপনা ও মাইক্রোসফট অফিস বিষয়ে পরিচিতিসহ কম্পিউটার চালনার সাধারণ দক্ষতা থাকতে হবে। পূর্ণাঙ্গ অনলাইন আবেদন পেশ করতে হবে। এ কার্যক্রমটি শুধুমাত্র মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুলের বর্তমান শিক্ষকদের জন্য। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাগণ, শিক্ষা প্রশাসক, পূর্ণকালীন শিক্ষক প্রশিক্ষক, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বেসরকারি পর্যায়ে ইংরেজি ভাষা প্রশিক্ষকেরা (টিউটরেরা) আবেদনের জন্য যোগ্য হবেন না।

স্টেম স্কলারশিপে যোগ্য নারী খুঁজছে বৃটিশ কাউন্সিল: ওদিকে বাংলাদেশ ও বৃটেনের অংশীদারিত্ব দেশের জন্য নানা সুফল বয়ে এনেছে। এই অংশীদারিত্বের অন্যতম দিক হলো নারীদের শিক্ষা ও ক্ষমতায়ন। এরই ধারাবাহিকতায়, চলতি বছর দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি নারীকে দেয়া হবে উইমেন ইন স্টেম (সায়েন্স, টেকনোলজি, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ম্যাথমেটিক্স) স্কলারশিপ। ইংল্যান্ডের টিসাইড ইউনিভার্সিটি; সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন; ইউনিভার্সিটি অব স্ট্রাথক্লাইড; নিউক্যাসল ইউনিভার্সিটি; এডিনবরা নেপিয়ার ইউনিভার্সিটি; ইউনিভার্সিটি অব ওয়ারউইক; ইউনিভার্সিটি অব এডিনবরা এবং ব্রুনেল ইউনিভার্সিটি লন্ডন এ বৃত্তি দেবে। এনার্জি ট্রানজিশন, ক্লাইমেট চেঞ্জ, হেলথ অ্যান্ড লাইফ সায়েন্সসহ বিভিন্ন বিষয়ে এ বৃত্তি দেয়া হবে। এ স্কলারশিপ প্রোগ্রাম আমেরিকা, দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার নারীদের উন্নয়নের লক্ষ্যে যুক্তরাজ্যের ১৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে বৈশ্বিক অংশীদারিত্বের অংশবিশেষ। স্টেম বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন, এমন নারী শিক্ষার্থীরা বৃটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশে এ স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের দেখাতে হবে, তাদের আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন এবং তারা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের নারীদের স্টেমে ক্যারিয়ার গড়তে অনুপ্রাণিত করতে আগ্রহী। এ স্কলারশিপে আবেদনের জন্য সায়েন্স, টেকনোলজি, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ম্যাথমেটিক্সে স্নাতক ডিগ্রির পাশাপাশি আরো কিছু যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন। সেগুলো হলো- ইংরেজি ভাষার দক্ষতা, উচ্চশিক্ষার আগ্রহ, বাংলাদেশের নাগরিক এবং সেপ্টেম্বর/অক্টোবর ২০২১-২২ এর মধ্যে পুরো একাডেমিক সময় সম্পূর্ণ করার আগ্রহ। ৩১শে মার্চের মধ্যে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আবেদন করতে হবে। স্টেম স্কলারশিপ প্রোগ্রামে অংশ নেয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সরাসরি আবেদন করা যাবে। আবেদন প্রক্রিয়া ও নির্দেশাবলী সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে https://bdbritish.org/womeninstem ওয়েবসাইটে। আবেদন সংক্রান্ত বাড়তি তথ্য বৃটিশ কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।
 

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

‘খালেদা জিয়া ভালো আছেন’

১৬ এপ্রিল ২০২১

করোনা আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ভালো আছেন। তবে বুধবার এবং বৃহস্পতিবার রাতে বেগম ...

করোনা নিয়ে এখন কারো রাজনীতি করা সমীচীন নয়

১৬ এপ্রিল ২০২১

বিএনপি তাদের ব্যর্থ রাজনীতি ঢাকতে জনগণ ও পুলিশকে প্রতিপক্ষ হিসেবে বেছে নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ...

লকডাউনে সরকার চালাচ্ছে ক্র্যাকডাউন

১৬ এপ্রিল ২০২১

লকডাউনকে কেন্দ্র করে সরকার ক্র্যাকডাউনে নেমেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ...

রোজা হলো সকল ইবাদতের রুহ

১৬ এপ্রিল ২০২১

আজ তৃতীয় রমজান। কোনো সুস্থ ব্যক্তির রোজা ভঙ্গ করা যাবে না। শুধু মাযুর অসুস্থ হলে ...

বাইডেনকে চিঠি

ভ্যাকসিনের মেধাস্বত্ব বাতিলের আহ্বান ড. ইউনূসসহ ১৭০ সাবেক রাষ্ট্রপ্রধান ও নোবেল জয়ীর

১৬ এপ্রিল ২০২১

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের ওপর থেকে মেধাস্বত্ব বাতিলের আহ্বান জানিয়েছেন ১৭০ জনেরও ...

লাইফ সাপোর্টে কবরী

১৬ এপ্রিল ২০২১

করোনায় আক্রান্ত বরেণ্য অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছে। গতকাল বিকালে তাকে লাইফ ...

পহেলা বৈশাখ আজ

১৪ এপ্রিল ২০২১



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status