অন্তরঙ্গ ভিডিও ফাঁস: জামালপুরের সেই ডিসির বেতন কমে অর্ধেক

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন (১ মাস আগে) মার্চ ৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১:১৪ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩৩ অপরাহ্ন

নারী সহকর্মীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থার ভিডিও ফাঁসের ঘটনায় জামালপুরের সাবেক জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরের শাস্তি স্বরূপ মাসিক সম্মানী কমিয়ে অর্ধেক করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের শৃঙ্খলা ও তদন্ত অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ এফ এম হায়াতুল্লাহ। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।
এতে বলা হয়, বিভাগীয় তদন্তে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা-২০১৮-এর বিধি ৪(৩)(ক) অনুযায়ী আহমেদ কবীরকে তিন বছরের জন্য নিম্ন বেতন গ্রেডে অবনমন করা হলো।
ফলে আগামী তিন বছর ওই কর্মকর্তা বেতন পাবেন অর্ধেক। আর সরকারি চাকরি জীবনের অবশিষ্ট সময়ে কখনো পদোন্নতি পাবেন না তিনি।
উপসচিব হিসেবে বর্তমানে পঞ্চম গ্রেডে বেতন পান একজন কর্মকর্তা। শাস্তি হওয়ায় আহমেদ কবীরের বেতন ধরা হবে ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলের ষষ্ঠ গ্রেডের সর্বনিম্ন ধাপে।
মূল বেতন প্রায় ৭০ হাজার টাকা থেকে কমে কবীর পাবেন ৩৫ হাজার টাকা। তবে অন্যান্য ভাতা ও সুবিধা বহাল থাকবে বলে মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।
২০১৯ সালের আগস্টে জামালপুরের ডিসি থাকা অবস্থায় আহমেদ কবীরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।
ভিডিওতে এক নারী সহকর্মীর সঙ্গে কবীরকে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা যায়। ওই ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে।।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Harun-ur-Rashid

২০২১-০৩-০৭ ১৭:৪৭:০৪

Demotion is not proper punishment he needs fire from service with the jail.

Md.Enamul kabir

২০২১-০৩-০৫ ২১:৩৪:৩২

দলীয় আনুকুল্যের এই ডিসি সাহেব খুবই স্মার্ট। অবস্থার বেগতিকতা, এবং সময় স্বল্পতার জন্য কাউকে ম্যানেজ করা যায়নি কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই এই শাস্তি প্রত্যাহার হয়ে যাবে। কারণ আমরা বুঝে গেছি এই সরকারে সবই সম্ভব। এই সাবেক ডেপুটি কমিশনার যে অপকর্ম করেছে সেজন্য তার চাকরি চলে যাওয়া উচিৎ ছিল।আর সংঘটিত ঘটনাটি ছিল বাংলাদেশের দন্ডাআইনে অপরাধ।সেই মহিলা যদি ডিসি সাহেবর বিরুদ্ধে অভিযোগ করত তা আসত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে।আর যদি সেই মহিলা কোন অভিযোগ না এনে থাকে তবে তারা দূজনই আসত পেনাল কোডের ২৯০/৩৪ ধারার আওতায়।এই ডিসি সাহেব কে চাকরিতে বহাল রাখা মানে হোল-তাকে রাষ্ট্রের জামাইবাবা করেই রাখা হোল। গুরু পাপে লঘু দন্ড। তারপরেও চাকুরী যাবেনা। এই সরকারি চাকুরির হাল। সরকারী কর্মচারীরা কি বেতনের চিন্তা করে, তাদের চাকরী থাকলেই সব কিছু পায়।

Sarwar

২০২১-০৩-০৫ ০০:০২:০৯

দলীয় আনুকুল্যের এই ডিসি সাহেব খুবই স্মার্ট। অবস্থার বেগতিকতা, এবং সময় স্বল্পতার জন্য কাউকে ম্যানেজ করা যায়নি কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই এই শাস্তি প্রত্যাহার হয়ে যাবে। কারণ আমরা বুঝে গেছি এই সরকারে সবই সম্ভব।

Mahbub

২০২১-০৩-০৪ ০৬:৫৯:৪৬

They are not public servants, they are the lord so all are right. Congratulations all of our Lord, go ahead.

আনিস উল হক

২০২১-০৩-০৪ ০৩:০১:৫২

এই সাবেক ডেপুটি কমিশনার যে অপকর্ম করেছে সেজন্য তার চাকরি চলে যাওয়া উচিৎ ছিল।আর সংঘটিত ঘটনাটি ছিল বাংলাদেশের দন্ডাআইনে অপরাধ।সেই মহিলা যদি ডিসি সাহেবর বিরুদ্ধে অভিযোগ করত তা আসত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে।আর যদি সেই মহিলা কোন অভিযোগ না এনে থাকে তবে তারা দূজনই আসত পেনাল কোডের ২৯০/৩৪ ধারার আওতায়।এই ডিসি সাহেব কে চাকরিতে বহাল রাখা মানে হোল-তাকে রাষ্ট্রের জামাইবাবা করেই রাখা হোল।

গুরুপাপে লঘৃ দন্ড।

২০২১-০৩-০৪ ১৪:২৭:৫৭

গুরু পাপে লঘু দন্ড।

Mohammed Faiz Ahmed

২০২১-০৩-০৪ ১৩:৫৮:৩৫

তারপরেও চাকুরী যাবেনা। এই সরকারি চাকুরির হাল।

Salam

২০২১-০৩-০৪ ১৩:৫৪:৪৬

সরকারী কর্মচারীরা কি বেতনের চিন্তা করে, তাদের চাকরী থাকলেই সব কিছু পায়।

rahmat

২০২১-০৩-০৪ ১৩:৩৪:২০

কিভাবে যে ওরা বেছে থাকে ?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

আরো ৯৪ জনের মৃত্যু-

করোনায় প্রাণহানি ১০ হাজার ছাড়াল

১৫ এপ্রিল ২০২১

ওলামা-মাশায়েখদের বিবৃতি-

জেল জুলুম বন্ধ না হলে আল্লাহ’র গজব থেকে কেউ রেহাই পাবে না

১৫ এপ্রিল ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



সব অফিস, গণপরিবহন, মার্কেট বন্ধ, কলকারখানা চালু

সাতদিনের কঠোর বিধিনিষেধের ঘোষণা

DMCA.com Protection Status