স্থান পাচ্ছে রণাঙ্গন ও মুক্তিগেজেট

পরিবর্তন হচ্ছে তালিকা’র নাম

কাজী সোহাগ

প্রথম পাতা ১ মার্চ ২০২১, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৩৪ অপরাহ্ন

মুক্তিযোদ্ধাদের যুদ্ধের সময়ের তালিকা ‘ভারতীয় তালিকা’ এবং ‘লাল তালিকা’ ,‘লাল বার্তা’-এর নাম বাতিলের সুপারিশ করা হয়েছে। ভারতীয় তালিকার পরিবর্তে রণাঙ্গনের তালিকা এবং লাল তালিকা ও লাল বার্তার পরিবর্তে মুক্তিগেজেট-১ ও মুক্তিগেজেট-২ রাখার সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে এ সুপারিশ করা হয়েছে। গত ৩রা জানুয়ারি সংসদ সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকের কার্যবিবরণী সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। তাতে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। সংসদীয় কমিটির সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে-মুক্তিযোদ্ধাদের যুদ্ধের সময়ের যে তালিকা ‘ভারতীয় তালিকা’ বলা হয় তা ‘রণাঙ্গনের তালিকা’ নামে স্বীকৃত হবে। অনুরূপভাবে পরবর্তী গেজেটগুলো মুক্তিগেজেট-১, মুক্তিগেজেট-২ এভাবে নামকরণের সুপারিশ করা হয়। কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে প্রস্তাব উত্থাপন করেন কমিটির সদস্য চাঁদপুর-৫ আসনের এমপি মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীরউত্তম।
যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘ভারতীয় তালিকা’ শব্দদ্বয় নতুন প্রজন্মের মনে এবং ইতিহাসে এমন একটি ধারণার সৃষ্টি করছে যে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে কারা অংশগ্রহণ করবে তা ভারত সরকার নির্ধারণ করে দিয়েছে। এটা ক্ষতিকর একটি ভ্রান্ত ধারণা। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে কারা প্রশিক্ষণ নেবে এবং যুদ্ধ করবে সে তালিকা আমরাই তৈরি করেছি। ভারতীয়দের ক্যাম্পে প্রশিক্ষণার্থীদের নাম আমরাই পাঠিয়েছি। ভারত সরকারের কেউ এ তালিকা তৈরি করেনি। তাই এ তালিকাগুলোর নাম করা হোক ‘রণাঙ্গনের তালিকা’। আর ‘লাল তালিকা’,‘লাল বার্তা’ এসব নাম বাদ দিয়ে এসব গেজেটকে মুক্তিগেজেট-১, মুক্তিগেজেট-২ এভাবে নামকরণ করা হোক। কমিটির ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, সংসদীয় কমিটির সভাপতি শাজাহান খানসহ কমিটির আরো ৫ সদস্য। এদিকে নাম পরিবর্তনের ওই যুক্তিকে সমর্থন দেন কমিটির অপর সদস্যরা। কার্যবিবরণীতে বলা হয়েছে- কমিটির সদস্য ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল কমিটির মাননীয় সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীরউত্তম এর বক্তব্যের সঙ্গে সহমত পোষণ করে বলেন, অনেকেই মুক্তিযোদ্ধা শব্দটি ব্যবহার করে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার ফলে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানহানি হওয়ার পাশাপাশি তাদের মধ্যে চাপা ক্ষোভও বিরাজ করছে বলে জানান। এক্ষেত্রে উক্ত বিষয়ে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ভবিষ্যতে বিষয়টি বিস্ফোরিত এবং বিধ্বংসী আকার ধারণ করবে মর্মে তিনি শংকা প্রকাশ করেন। এ প্রসঙ্গে আলোচনার সময় কমিটির অপর সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ঢাকা দক্ষিণের মুক্তিযোদ্ধা কমিটির যাচাই-বাছাইকালে লাল মুক্তিবার্তার ৩০ শতাংশ লোকই যুদ্ধ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছুই বলতে পারেননি। সম্প্রতি ভারতীয় তালিকায় নাম থাকা বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই লাগবে না বলে সিদ্ধান্ত দেয় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়। তাতে বলা হয়, মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা ৩৩ প্রমাণের যেকোনো একটিতে নাম থাকলে এমআইএসে নাম অন্তর্ভুক্ত করা যাবে। বীর মুক্তিযোদ্ধার একাধিক প্রমাণে নাম থাকলে সব প্রচারপত্রের তথ্য তার নামের বিপরীতে অন্তর্ভুক্ত থাকবে। প্রমাণের তালিকার মধ্যে রয়েছে মুজিবনগর সরকারের রাষ্ট্রপতি ও মন্ত্রীদের তালিকা এবং মুজিবনগর কর্মচারী তালিকা। ভারতীয় তালিকার মধ্যে রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকা, মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকা (পদ্মা), মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকা (মেঘনা), মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকা (সেক্টর) এবং মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকা (সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী)। (লাল মুক্তিবার্তার মধ্যে) লাল মুক্তিবার্তা- স্মরণীয় যারা বরণীয় যারা এবং লাল মুক্তিবার্তা (চূড়ান্ত লাল বই), খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজ

২০২১-০৩-০১ ০৭:৪৫:১৯

বদিউজ্জামান সাহেব তার মত সঠিকভাবে দিয়েছেন। একমাত্র ভারতীয় তালিকা ভুক্ত মুক্তি যোদ্ধারাই সঠিকভাবে মুক্তি যোদ্ধা বাছাই করতে সক্ষম। বেশির ভাগ রাজনৈতিক নেতা/সাংসদ গণ মুক্তি যুদ্ধ কালীন সময়ে ভারতের বিভিন্ন শহরে ছিলেন, তারা সঠিকভাবে যাচাই বাছাই করতে পেরেছেন বলে মনে হয়না। তাছাড়া স্বহানীয়ভাবে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তরাও সততার সাথে যাচাই বাছাই করেননি বলেই মনে হয়। তাছাড়া বর্তমান তালিকায় ৩০-৪০% মুক্তি যোদ্ধা সঠিক নয় বলে বিশ্বাস করি। সচিব পর্যায়ে যখন এতো জন ভুয়া পাওয়া গেছে, এখনো যাচ্ছে তখন নীচের পর্যায়ে কতজন এরকম ভুয়া আছ তা আন্দাজ করাই যায়।যুদ্ধ কালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর গিয়াস উদ্দিন অবঃ ( সেক্টর -২)

alam gir

২০২১-০৩-০১ ০৪:৫৬:০৬

যে ভাবে ভালো হয় সেভাবে করা উচিত,

গোলাম রসুল খান

২০২১-০৩-০১ ১২:২২:৪৩

আমার আত্মীয় নানা সক্রিয় মুক্তিজুধা কিন্তু তালিকা নাই, উনি তালিকায় নামও উঠান নাই।তারা কি কোনও সম্মান বা সঅরকারি সুবিদা পাবেন্না।

AMIR

২০২১-০৩-০১ ১০:৫২:৫৮

যাচাই-বাছাইকালে লাল মুক্তিবার্তার ৩০ শতাংশ লোকই যুদ্ধ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছুই বলতে পারেননি। --------ওনারা অংশগ্রহণকৃত অপারেশন গুলোর বিস্তারিত লিখে মুখস্ত করে রাথলে তা বাছাই কমিটিতে গিয়ে বলতে পারতো! দেশ স্বাধিন হলে ভাতা, চাকুরি ইত্যাদি মুক্তিযোদ্ধাদের দেওয়া হবে এমন আশা নিয়ে খুব কম লোকই যুুদ্ধে যোগ দিয়েছিল; কমপক্ষে 'যে কোন ভাবেই হোক' মুক্তিযুদ্ধের সাথে জড়িত ছিল না এমন ষাটোর্ধ কোন লোক তালিকা ভুক্ত হতে এসেছে তা বিশ্বাস করা খুবই কঠিনা। যে লঙ্কায় যায় সেই রাবন! খোদ বাছাই কমিটিতেই বিতর্কিত লোক রয়েছে বলে কানাঘুশা শোনা যায় কিন্তুু তারা এমনই ক্ষমতাবান যে সাধারন মুক্তিযোদ্ধরা এ নিয়ে কথা বলতেই ভয়় পায়। অতএব মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে যা হচ্ছে তা হল খামখেয়ালি মস্তিষ্ক উৎসারিত 'মস্করা' ; এর চেযে ভাল শব্দ এই মুহুর্তে আমি খুঁজে পেলাম না!

মোঃ বদিউজ্জামান

২০২১-০২-২৮ ১৮:৫৫:০৬

সারাদেশে অনৈতিকভাবে, মন্ত্রী, এমপি, স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতাদের যোগ সাজসে এবং প্রত্যক্ষ ইন্ধনে বেড়েই চলেছে অমুক্তিযোদ্ধাদের, মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্ত করণের কর্মযোগ্য। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের মতামতকে অগ্রাহ্য করে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন মুক্তিযোদ্ধা বানিয়ে, মুক্তিযোদ্ধাদের অর্জন, সন্মান ও মর্যাদাকে ভুলন্ঠিত করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ভূঁয়ার আবির্ভাব ঘটেছে বিএলএফ ধারী মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে। ভূঁয়া সার্টিফিকেট প্রদান, আত্মীয়-স্বজন, দলীয় দৃষ্টিকোন ও অনৈতিক আর্থিক লেনদেন এর মাধ্যমে হাজার হাজার অমুক্তিযোদ্ধাকে মুক্তিযোদ্ধা বানানো হয়েছে। যা ভবিষ্যতে মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অশনি সংকেতের বার্তা বয়ে আনবে। অনতিবিলম্বে, প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা ও গোয়েন্দা বাহিনীর সমন্বয়ে টিম গঠন করে, সঠিক যাচাই-বাছাই এর মাধ্যমে, ভূঁয়াদের বাদ দিয়ে একটি স্বচ্ছ মুক্তিযোদ্ধা তালিকা প্রণয়নের দাবী জানা।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

১৪ এপ্রিল ২০২১

শুরু হলো নাজাতের মাস

১৪ এপ্রিল ২০২১

তাকওয়া, আত্মশুদ্ধি, আত্মসংযমের মাস রমজান। গতবারের মতো এবারো বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের কঠিন দুর্যোগের মধ্যে এসেছে ...

জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী

সবার আগে জীবন

১৪ এপ্রিল ২০২১

ছুটির নোটিশ

১৪ এপ্রিল ২০২১

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আজ দৈনিক মানবজমিন-এর সকল বিভাগ বন্ধ থাকবে। আগামীকাল পত্রিকা প্রকাশিত হবে না। ...

হার্ড লকডাউন

কি করা যাবে কি করা যাবে না

১৩ এপ্রিল ২০২১

১০,০০০ ছুঁই ছুঁই মৃত্যু

১৩ এপ্রিল ২০২১

করোনায় আক্রান্ত মৃত্যুর মিছিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৮৩ জন যোগ হয়েছেন। দেশে করোনায় আক্রান্ত ...

অসহায়

১২ এপ্রিল ২০২১

সংবাদ সম্মেলনে বাবুনগরী

মামুনুল হকের ঘটনা ব্যক্তিগত

১২ এপ্রিল ২০২১

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের রিসোট কাণ্ডের বিষয়টি তার ব্যক্তিগত বলে জানিয়েছেন হেফাজতের ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



সন্ধ্যায় সিদ্ধান্ত বদল

দিনভর লঙ্কাকাণ্ড

একদিনে ৭৪ জনের মৃত্যু, করোনার আফ্রিকার ধরনের ভয়ঙ্কর বিস্তার

মানবিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা

১০ ঘণ্টায় সাত হাসপাতাল ঘুরে ঠাঁই হয়নি কোথাও

যদি একটা সিট মিলে

প্রধানমন্ত্রীকে বাইডেনের আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর

ঢাকায় কেরির ব্যস্ত ৬ ঘণ্টা

DMCA.com Protection Status