এমন অভিজ্ঞতা আর চান না তাসকিন

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার

করোনার মধ্যে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে খেলার অভিজ্ঞতা আছে তাসকিনদের। প্রেসিডেন্টস কাপের পর বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। সবই হয়েছে ঘরের মাঠে। যেখানে সুরক্ষা বলয়ে থাকলেও অনুশীলনে বা হোটেল রুম থেকে বের হয়ে সতীর্থদের সঙ্গে আড্ডা দিতে পেরেছেন ক্রিকেটাররা। তবে নিউজিল্যান্ড সফরের পরিস্থিতি একেবারেই আলাদা।

করোনার মধ্যে প্রথমবার বিদেশ সফরে গেছে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ডে গিয়ে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে রয়েছে বাংলাদেশ দল।
যেখানে কয়েক ধাপে করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এলে পরের ৭ দিন অনুশীলনের সুযোগ মিলবে। গতকাল করোনা নেগেটিভ এসেছে বাংলাদেশ দলের সকলের। তারপরেও নিজ নিজ কক্ষে বন্দি থাকতে হবে ক্রিকেটারদের। এই বন্দি দশা থেকে বের হতে চান তাসকিন। নিউজিল্যান্ড থেকে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘চাইবো যত দ্রুত অভিজ্ঞতাটা শেষ হোক।’ যদিও নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার পর প্রথম করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে তাসকিনদের। এজন্য কিছুক্ষণ মুক্ত বাতাসে বের হওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন ক্রিকেটাররা। সেই সময়টিও ৩০-৪০ মিনিটের বেশি নয়। সতীর্থদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ মিললেও নির্দিষ্ট দূরত্ব মানতে হয়েছে সফরকারীদের। তাসকিন বলেন, ‘আসলে এ রকম আইসোলেশন একটু আলাদা অভিজ্ঞতা। আগে কখনো এভাবে সময় কাটানো হয়নি। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর আমরা ৩০-৪০ মিনিটের জন্য ২ মিটার দূরত্ব বজায় রেখে হাঁটার সুযোগ পেয়েছি। পরে রুমে চলে এসেছি। তাও ভালো লাগছে যে টানা দুই দিন একদম বন্দি রুমে। প্রথম করোনা পরীক্ষায় সবার নেগেটিভ আসার পরে আমাদের হাঁটতে দিয়েছে। আরও কিছু টেস্ট বাকি আছে। এর পর ইনশাআল্লাহ আমরা অনুশীলন শুরু করতে পারবো।’ কিভাবে সময় কাটছে তাসকিনদের এর জবাবে এই পেসার বলেন, ‘সময় কাটছে আসলে পরিবারের সঙ্গে কথা বলে (ফোনে), সিনেমা দেখে। বিসিবি থেকে আমাদের কিছু শরীরচর্চারও ব্যবস্থা করে দিয়েছে। কিছু ব্যান্ডস আর সাইক্লিংয়ের জন্য দেয়া হয়েছে। কিছু কর্মসূচি দেয়া হয়েছে যে রুমে যে সব শরীরচর্চা করা সম্ভব সেগুলো করার জন্য।’

 

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status