রাজশাহী ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে যৌথ সেমিনার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন (১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:৪৩ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৪ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশস্থ যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস ২২ থেকে ২৫শে ফেব্রুয়ারি রাজশাহীতে ‘মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার সেমিনার (এমএফআরএস) পরিচালনা করে। চারদিনব্যাপী এই সেমিনারে রাজশাহীর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স বিভাগের ১০ জন কর্মকর্তা অংশ নেন। অংশগ্রহণকারীরা ব্যবহারিক অনুশীলনে অংশ নেন এবং প্রত্যেক কর্মকর্তাকে বাংলাদেশ থেকে সংগৃহিত জরুরি চিকিৎসা সরঞ্জামসমৃদ্ধ ফার্স্ট-এইড কিট দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস জানায়- এই প্রশিক্ষণ জরুরি পরিস্থিতি ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডারদের (জরুরি পরিস্থিতিতে চিকিৎসা বিষয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রথম সাড়াদানকারী ব্যক্তি) উপযুক্তভাবে সাড়া দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশী সংস্থাগুলোর সামর্থ্য ও দক্ষতা বৃদ্ধি করছে। এছাড়াও, এই সেমিনারগুলো বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যেকার গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তা সম্পর্কেরও প্রতিফলন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- এই কোর্সের একজন সাবেক শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান “প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ” উদ্যোগের অংশ হিসেবে এবারের কোর্সে একজন ফ্যাসিলিটেটর হিসেবে কোর্স আয়োজনে সহায়তা করেছেন। তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বেসিক ট্রেনিং ইন্সট্রাক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং ২০১৬ সালে তিনি নিজে মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার কোর্স সম্পন্ন করেছেন। মেহেদি হাসান “প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ” উদ্যোগের অংশ হিসেবে ইতোপূর্বে আরো নয়টি এমএফআরএস কোর্সে সহকারী প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ উদ্যোগের উদ্দেশ্য হলো মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার কোর্সের প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করার জন্য বাংলাদেশেই একদল প্রশিক্ষিত ও দক্ষ ফ্যাসিলিটেটর তৈরি করা যারা আরো বেশি সংখ্যক বাংলাদেশীকে জরুরি পরিস্থিতি ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার হিসেবে কাজ করার জন্য প্রশিক্ষণ দিতে পারবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়- যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস বাংলাদেশে ২০১৪ সালে এমএফআরএস কার্যক্রম শুরু করার পর এ পর্যন্ত ৬২০ জনেরও বেশি বাংলাদেশী মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডারের প্রশিক্ষণ পেয়েছেন।
বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সংঘটিত জরুরি পরিস্থিতিতে প্রথম সাড়াদানকারী প্রতিষ্ঠান হলো ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স (এফএসসিডি)। মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দেয়া প্রশিক্ষণ ও দরকারি চিকিৎসা সরঞ্জাম জরুরি পরিস্থিতি ও দুর্যোগে প্রথম সাড়াদানকারী হিসেবে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মী ও প্রতিষ্ঠানের সামর্থ্য ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তারা এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দুর্ঘটনা ও দুর্যোগে প্রাণহানি কমানো, পরিস্থিতি স্থিতিশীল করাসহ তাৎক্ষণিক চিকিৎসার মাধ্যমে গুরুতরভাবে জখমের শিকার যেমন ব্যাপক রক্তক্ষরণ, শ্বাস-প্রশ্বাস সমস্যা ও শরীরের তাপমাত্রা কমে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি মোকাবেলায় কীভাবে সহায়তা করতে হবে তা শেখেন। এছাড়াও এই প্রশিক্ষণে জরুরি ও দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে করণীয় সম্পর্কে মহড়ার মাধ্যমে ব্যবহারিক অনুশীলন করা হয় যেখানে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা জরুরি ও দুর্যোগময় পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও মূল্যায়ণ, পরিস্থিতি স্থিতিশীল করার লক্ষ্যে করণীয় নির্ধারণ এবং আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার মতো কাজগুলো হাতে কলমে শেখেন।

দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকীতে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বৃহত্তর সহযোগিতা, সংলাপ ও পারস্পরিক সমঝোতা বাড়াতে এবং একটি অবাধ ও স্বাধীন ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সহায়তার লক্ষ্যে উভয় দেশের মধ্যে শক্তিশালী অংশীদারিত্ব গড়ে তুলতে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের নেওয়া অসংখ্য উদ্যোগের একটি হলো এই মেডিকেল ফার্স্ট রেসপন্ডার প্রশিক্ষণ।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

জন্মদিনে ড. কামাল হোসেন-

সুষ্ঠু রাজনীতি ছাড়া সুশাসন প্রতিষ্ঠা পেতে পারে না

২০ এপ্রিল ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



রণক্ষেত্র বাঁশখালী বিদ্যুৎকেন্দ্র

শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ৫

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজত নেতাদের বৈঠক-

গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তি ও হয়রানি বন্ধের দাবি

করোনায় আক্রান্ত পুরো পরিবার

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

DMCA.com Protection Status