আল-জাজিরার বিরুদ্ধে মামলা ফিরিয়ে দিলেন বিচারক

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ সপ্তাহ আগে) ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১, মঙ্গলবার, ৮:৪২ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ শিরোনামের প্রতিবেদনের জন্য আল-জাজিরা মিডিয়া নেটওয়ার্কের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মোস্তেফা সউয়াগসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার আবেদন ফিরিয়ে দিয়েছেন ঢাকার মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলাম। আল-জাজিরার বিরুদ্ধে মামলার আবেদনে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না থাকায় তা ফিরিয়ে দেয়া হয়। আজ বিকালে বিচারক তা ফিরিয়ে দেন।

এই মামলা গ্রহণের পক্ষে বাদী পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তি শুনে বিচারক বলেন, রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় ফৌজদারি কার্যবিধির ১৯৬ ধারায় যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না নেয়ায় মামলাটি ফেরত দেয়া হলো।

এরআগে গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি আল-জাজিরার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার আরজি নিয়ে আদালতে যান আইনজীবী আবদুল মালেক। মামলার আবেদনে আল-জাজিরার ওই প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট শায়ের জুলকারনাইন ওরফে সামি, নেত্র নিউজের সম্পাদক তাসনিম খলিল এবং যুক্তরাজ্য প্রবাসী ডেভিড বার্গম্যানকে আসামি করার আরজি জানানো হয়েছিল।

বাদীর আইনজীবী আব্দুল খালেক আদালতকে বলেন, আমরা দণ্ডবিধির ৩ ও ৪ ধারা ব্যাখ্যা করে বলেছি, এই মামলা বিদেশি নাগরিকের বিরুদ্ধে চলতে পারে। দণ্ডবিধির ৩ ধারায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশের আইন বলে বিচার যোগ্য যে কোনো অপরাধের বিচার দেশের বাইরে হলেও তা দেশীয় আইনে করা যাবে। আর ৪ ধারায় বলা হয়েছে, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশের নাগরিককেও এই আইনের আওতায় বিচার করা যাবে। মামলা ফেরত দেয়ায় বাদী মশিউর মালেক গণমাধ্যমকে বলেন, মামলাটি আদালত খারিজ করেননি।
সরকার বা সরকারের বিশেষভাবে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোনো কর্মকর্তার আদেশ আনা গেলে মামলাটি নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

AMIR

২০২১-০২-২৪ ১১:৩২:০৯

একটি দীর্ঘকালীন বিক্রয় ও ক্রয় চুক্তি (এসপিএ) স্বাক্ষর করেছে কাতার পেট্রোলিয়াম। চুক্তির অধীনে .. বাংলাদেশে প্রতি বছর ১২ লাখ ৫০ হাজার টন এলএনজি (লিকুইড ন্যাচারাল গ্যাস) সরবরাহ করবে। এ নিয়ে সোমবার একটি বিবৃতি দিয়েছে কাতার পেট্রোলিয়াম। এতে জানানো হয়েছে, ২০২১ সালের শেষ দিকে এই এলএনজি রপ্তানি শুরু হবে। ------এই রকম আরো অনেক বাংলাদেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ড কাতারের সাথে আছে, সেটা আদুবল মালেক ভাইজান ওয়াকিবহাল ?

শাজিদ

২০২১-০২-২৩ ২১:১৯:৪৬

আল জাজিরার প্রতিবেদন প্রকাশের পর দেশে সরকার রক্ষার আন্দোলন শুরু হয়েছিল। প্রতিবেদনে প্রকাশিত তথ্য মিথ্যা বানোয়াট হলে দেশ এবং সরকার উভয়ই নিরাপদ আর যদি সত্য হয় তাহলে দেশ রক্ষার আন্দোলন হওয়া দরকার।

Nejam Kutubi

২০২১-০২-২৪ ০৬:৪৫:০০

শুনলাম আল-জাজিরাকে রাজাকার ঘোষনা দেয়া হবে!!

Imon

২০২১-০২-২৩ ০৯:০০:৩৫

'বেইস' ছাড়া মামলা তো ফিরাইয়াই দিতে হবে। না হলে বিচারকের 'বেইস' নিয়ে প্রশ্ন উঠবে। শেষে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সরকারের ভাবমূর্তিরও লেজে-গোবরে অবস্থা হবে। তাই, প্রথমেই বলে দেওয়া যায়, সরকারের লোকজন আল জাজিরার রিপোর্ট নিয়ে যতই তম্বি করুক না কেন, কোন লিগ্যাল একশনে তারা যাবে না। কারণ সত্যের বিরুদ্ধে লাগতে নেই।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা, পুলিশের বাধা

২৬শে মার্চের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি

DMCA.com Protection Status