ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে বাংলাদেশের কন্টিনজেন্ট, রাফালে, লাদাখের ট্যাবলো

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ মাস আগে) জানুয়ারি ২৬, ২০২১, মঙ্গলবার, ৬:৩২ অপরাহ্ন

ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবসে এবার নতুন অনেক কিছু দেখা গেছে। আবার কোভিড-১৯ মহামারির কারণে অনেক কিছুই প্রথম বারের মতো বাদ পড়েছে। যা প্রথম দেখা গেছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ১২২ সদস্যের সমন্বিত কন্টিনজেন্ট। রাজধানী নয়া দিল্লির রাস্তায় এই বিশেষ দিনে আয়োজিত রাষ্ট্রীয় কুচকাওয়াজে আরো নজর কেড়েছে - ভারতীয় বিমান বাহিনীর দুই নারী পাইলট, নতুন কেনা যুদ্ধবিমান রাফালে, আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে নিয়োজিত সেনাদল এবং ভারতের সর্বশেষ ঘোষিত কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল লাদাখের ট্যাবলো। উপরের বিষয়গুলো প্রথমবারের মতো ভারতের কোনো কুচকাওয়াজে দেখা গেলো।

আবার গত ৫ দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে কোনো বিদেশি শীর্ষ ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন না। বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের এবারে আয়োজনে যোগ দেয়ার কথা ছিল। তবে বৃটেনে করোনার নতুন ধরণ ছড়িয়ে পড়লে তাকে এই সফর বাতিল করতে হয়। এছাড়া এবছর দেখা যায়নি প্রবীণ সেনা সদস্যদের অংশগ্রহণ।
ছিলোনা গত কয়েক বছরের প্রধান আকর্ষণ মোটরসাইকেলে পারফর্ম করা ডেয়ারডেভিলদের। কোভিড পরিস্থিতির কারণে কুচকাওয়াজের রুট ছোট করা হয় এবার।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিব বর্ষ’ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিতে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীকে আমন্ত্রণ জানায় ভারতের হাইকমিশন। কুচকাওয়াজে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর স্যালুট গ্রহণ করেন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ। সে সময় ভারতের ভাইস প্রেসিডেন্ট এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। ১২২ সদস্যের দলটি দুই কনটিনজেন্টে ভাগ হয়ে কুচকাওয়াজে অংশ নেয়। একটি ছিল মার্চিং কন্টিনজেন্ট আর অপরটি মিলিটারি ব্যান্ড।

প্যারেডে অংশ নেয়ার আগে বাংলাদেশ আর্মির কর্নেল মোহতাশিম হায়দার চৌধুরি টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবসে অংশ নেয়া আমাদের জন্য গৌরবের। এখানে অংশ নেয়াদের বেশিরভাগই সেইসব ইউনিট থেকে এসেছে যা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় গঠন করা হয়েছিল। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বছরে ও মুজিববর্ষ চলাকালীন আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের কুচকাওয়াজে অংশ নিতে পেরে আমরা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছি। যেসব ভারতীয় ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে প্রাণ দিয়েছেন তাদের জন্য আমরা আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাই। উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৬ সালে ফরাসি সেনাবাহিনী ও ২০১৭ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সেনাবাহিনীও ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিয়েছিল।

গত বছর কুচকাওয়াজ দেখার সুযোগ পেয়েছিলেন দেড় লাখ মানুষ। তবে মহামারির কারণে তা এবার কমিয়ে ২৫ হাজারে নামিয়ে আনা হয়। এরমধ্যেও কুচকাওয়াজে অংশ নেয়াদের উৎসাহ কমেনি। ভারতীয় সামরিক বাহিনী এতে তাদের সমরাস্ত্র ও সমর যানের প্রদর্শন করেছে। প্রদর্শনীতে ছিল, টি-৯০ ট্যাংক, ব্রাহমোস মিসাইল সিস্টেম, পিনাকা মাল্টিপল লঞ্চ রকেট সিস্টেম, ব্রিজ লায়িং ট্যাংক টি-৭২, ইলেক্ট্রোনিক ওয়ারফেয়ার সিস্টেম এবং আপগ্রেডেড শিলকা সিস্টেম।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

haiderali

২০২১-০১-২৬ ১৯:৫১:০৩

Colonel shaheb, apney Bharotey thekey jawar jonno todbir korun. Oi khaney thaktey parley aro gorbobodh korben, thik ki na?

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্ট

খাসোগি হত্যার অনুমোদন দিয়েছিলেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status