কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার আমস্টারডামে

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন (১ মাস আগে) জানুয়ারি ২৪, ২০২১, রোববার, ১২:০১ অপরাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৮ অপরাহ্ন

কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী সে চি লোপ’কে আমস্টারডাম পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তাকে বিশ্বের ভয়াবহ সব মাদক চক্রের অন্যতম হিসেবে দেখা হয়। তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে অস্ট্রেলিয়ায়। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে আরো বলা হয়, সে চি লোপ চীনা বংশোদ্ভূত কানাডিয়ান নাগরিক। তিনি দ্য কেম্পানি নামের একটি প্রতিষ্ঠানের প্রধান। এই কেম্পানির রয়েছে এশিয়াজুড়ে ৭০০ কোটি ডলারের অবৈধ মাদকের বাজার। তারাই এ অঞ্চলে মাদক ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তার করে আছে।
এ জন্য সারাবিশ্বের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ পলাতক হিসেবে তালিকাভুক্ত ছিলেন তিনি। আমস্টারডামের শিফোল বিমানবন্দরে তাকে আটক করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া দাবি করেছে, বিচার করার জন্য তাকে তাদের হাতে তুলে দিতে হবে। অস্ট্রেলিয়ান ফেডারেল পুলিশ (এএফপি) মনে করে স্যাম গোর সিন্ডিকেট নামেও পরিচিত সে চি লোপ-এর প্রতিষ্ঠান দ্য কোম্পানি। অস্ট্রেলিয়ায় অবৈধভাবে যে পরিমাণ মাদক প্রবেশ করে তার শতকরা ৭০ ভাগের জন্য দায়ী দ্য কোম্পানি।
সে চি লোপ-এর বয়স এখন ৫৬ বছর। তাকে মেক্সিকান মাদক ব্যবসায়ী, লর্ড জোয়াকিন ‘এল চ্যাপো’ গুজম্যানের সঙ্গে তুলনা করা হয়। শুক্রবার গ্রেপ্তার করার প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় আগে তাকে শনাক্ত করেছে অস্ট্রেলিয়া পুলিশ। শুক্রবার তিনি আমস্টারডাম থেকে একটি ফ্লাইটে করে কানাডা যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় আটকা পড়ে যান পুলিশি জালে। পুলিশের এক বিবৃতিতে সে চি লোপ-এর নাম উল্লেখ না করে বলা হয়েছে, তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে ২০১৯ সালে। কারণ, নেদারল্যান্ডসের পুলিশ ইন্টারপোলের নোটিশের পক্ষে কাজ করেছে। গ্রেপ্তার নিয়ে শুক্রবার ডাচ পুলিশের এক মুখপাত্র বলেন, এরই মধ্যে সে চি লোপ মোস্ট ওয়ান্টেড লিস্টে আছেন। আমরা যেসব গোয়েন্দা তথ্য পেয়েছি, তার ওপর ভিত্তি করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
ওদিকে ২০১৯ সালে সে চি লোপ-এর বিষয়ে বিশেষ এক অনুসন্ধান রিপোর্ট প্রকাশ করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। তাতে তাকে এশিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড হিসেবে বর্ণনা করা হয়। জাতিসংঘের এক হিসাব উদ্ধৃত করে খবরে বলা হয়, সে চি লোপের সিন্ডিকেট ২০১৮ সালে ১৭০০ কোটি ডলারের মেথামফেটামিন বিক্রি করেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের মতে, সে চি লোপ’কে গ্রেপ্তারে যে অভিযান চালানো হয় তার নাম ‘অপারেশন কুঙ্গুর’। এর সঙ্গে বিভিন্ন মহাদেশের কমপক্ষে ২০টি এজেন্সি। তাতে নেতৃত্ব দিয়েছে এএফপি। সাম্প্রতিক সময়ে সে চি লোপ ম্যাকাউ, হংকং এবং তাইওয়ান সফর করেছেন বলে গুঞ্জন আছে। ১৯৯০ এর দশকে যুক্তরাষ্ট্রে মাদক পাচারের অভিযোগে তিনি ৯ বছর জেল খেটেছেন। দুই দশকের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল পুলিশ সবচেয়ে বড় কাজ করেছে বলে তার গ্রেপ্তারকে বর্ণনা করেছে অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা

২৭ বছর আগে ধর্ষণ, মামলা এখন

৬ মার্চ ২০২১

ক্যাপিটল হিলে হামলা

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

৬ মার্চ ২০২১

ইংল্যান্ডে টিকা নিয়েছেন ৭৬,১০৬ বাংলাদেশি

বৃটিশ-বাংলাদেশিদের টিকা নেয়ার আহ্বান নাদিয়া হোসেনের

৬ মার্চ ২০২১



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status