পারমাণবিক বিশ্বে বাংলাদেশ! তবে...

শামীমুল হক

মত-মতান্তর ২০ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৭ অপরাহ্ন

প্রতীকী ছবি
শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশও যুক্ত হলো পারমাণবিক বিশ্বে। এ এক অন্যরকম যাত্রা। ইতিহাসে তো ঠাঁই পাবে নিশ্চয়, বাংলার ঘরে ঘরে স্থান করে নেবে এ পারমাণবিক। আসলে পাশের বাড়ি ভারত ও পাকিস্তান দু’টি দেশই পারমাণবিক ক্ষমতাধর। তাহলে আমরা বাদ যাবো কেন? এছাড়া রাশিয়া, আমেরিকা, ফ্রান্স, চীন, বৃটেন, ইসরাইল ও উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক শক্তির অধিকারী। ওরা পারলে আমরা পারব না কেন? আমরা তো সব দিক দিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকা তো শরমের। ওইসব দেশের পারমাণবিক বোমার রশদ একটা।
আমাদের সেদিকে গিয়ে লাভ কি? শুধু শুধু টাকা নষ্ট করা। আমরা খুবই সহজ পদ্ধতিতে পারমাণবিক শক্তি অর্জন করলাম। কিন্তু বাহবা পাচ্ছিনা কেন? পারমাণবিক শক্তিধর রাষ্ট্রগুলো তাহলে গোস্সা করল নাকি।

এমনিতেই ইরানের পারমাণবিক শক্তির ইচ্ছা জেগেছিল মনে। আর যায় কোথায়? চারদিকে হইচই। নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে তাদের ত্রাহি অবস্থা। পারমাণবিক হলো মরণঘাতি অস্ত্র। রাসায়নিক বারুদ-এর রশদ। একটি পারমাণবিক প্রয়োগই লাখ কোটি মানুষের জীবন থামিয়ে দেবার জন্য যথেষ্ট। এমন শক্তি ইরানকে দেয়া যাবে না। কিন্তু বাংলাদেশ সহজেই উৎরে গেলো। নিষেধাজ্ঞার ঝামেলায় পড়তে হয়নি। আলবার্ট আইনস্টন কেন যে পারমাণবিক বোমা আবিস্কার করতে গেলেন তিনিই ভাল জানেন। আসুন দেশবাসী আজ আমরা আনন্দের গীত গাই। পিঠাপুলির উৎসব করি। কারণ নামে হলেও পারমাণবিক শক্তিধর আমরা।

বাংলাদেশের পারমাণবিক বোমার কথা লিখতে গিয়ে মনে পড়ল টেবিল টেনিসের আন্ডার কথা। সে এক বিশাল কাহিনী। এক এলাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতা। ফাইনাল খেলার দিন। সাজানো হয়েছে জাঁকজমকভাবে। প্রধান অতিথি করা হয়েছে ইউপি চেয়ারম্যানকে। দর্শকও প্রচুর। টান টান উত্তেজনার মধ্যে খেলা শেষ হলো। এবার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান। এর আগে প্রধান অতিথির কিছু বলার পালা। প্রধান অতিথি তার বক্তৃতা শুরু করলেন- এই খেলার অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে আমি ধন্যবাদ জানাই। ধন্যবাদ জানাই খেলায় যারা অংশ নিয়েছে এবং যারা জিতেছে তাদের। আরও ধন্যবাদ জানাই দর্শকদের, যারা উপস্থিত থেকে খেলোয়াড়দের উৎসাহ যুগিয়েছেন। আর সবচেয়ে বেশি ধন্যবাদ জানাই সেই মুরগিটারে যে মুরগি এতো শক্ত আণ্ডা দিছে, এত পেটা পেটানোর পরও যার আন্ডা ভাঙেনি। এরই সাথে শুরু হয়ে যায় গোটা অডিটোরিয়ামে হাসির রোল। আরেক অনুষ্ঠানে ইউনিয়নবাসী তাদের বক্তৃতায় ইউনিয়নে একটি মাঠের দাবি জানিয়েছে চেয়ারম্যানের কাছে। একই সাথে বক্তারা সারা বিশ্বে ক্রিকেট জ্বরের কথাও বলে যাচ্ছেন। বক্তাদের বলার পর চেয়ারম্যান দাঁড়ালেন। বললেন, আমি এ অনুষ্ঠানে আসার সময়ও দেখে এসেছি আমার ইউনিয়নের ছেলেরা রাস্তায় ক্রিকেট খেলছে। তখনই আমি মনে মনে চিন্তা করেছি একটি মাঠের ব্যবস্থা করব। যদিও ক্রিকেট খেলে দেশের খেলোয়াড়রা শুধু গোল খেয়েই আসে, গোল দিতে পারে না। কথা শুনে সবাই এক সাথে হেসে ওঠেন।  চেয়ারম্যান বলেন, হাসবেন না- মনে বড় দুঃখ নিয়া কথাগুলো বলছি। আমি বলতে চাই, মাঠ দেব আপনাদের। আপনারা আমাকে গোল উপহার দেবেন। ক্রিকেটে যেন আর শুনতে না পাই আমরা গোল খেয়েছি। টেবিল টেনিসের বল যেমন কোন মুরগির আন্ডা নয়, তেমনি ক্রিকেটে আউট আর রানের হিসাব হয়। গোলের নয়। পারমাণবিক বোমার বিরুদ্ধে গোটা বিশ্ব এখন সোচ্চার। তারপরও ক’টি দেশ নিজেদের শক্তিমত্তা দেখাতে পারমাণবিক ক্ষমতার অধিকারী হয়েছে। সে পারমাণবিক বোমা বানানো হয়েছে রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে। রাসায়নিক বিষক্রিয়ার ফলে পারমাণবিক বোমা জানমালের ব্যাপক ক্ষতি করে। আর বাংলাদেশের পারমাণবিক বোমা তৈরি হয়েছে সুতা আর রং দিয়ে। তাঁত কারখানায় তা উৎপাদিত হয়ে চলে যাচ্ছে মানুষের ঘরে ঘরে। এর নাম পারমাণবিক লুঙ্গি। কথায় বলেনা দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো। ঠিক তেমনি। ক’দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে একটি ছবি। যেখানে আমরিকা পাকিস্তান আর রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্রের ছবি দেখানে হয়েছে। আর বাংলাদেশের পারমাণবিক লুঙ্গির ছবি দেখানো হয়েছে। রসিকতা করে এটা দেয়া হয়েছে বোঝাই যায়। কিন্তু এ ছবি এখন ব্যাপক হাস্যরসের খোরাক। টেবিল টেনিসের আন্ডা আর ক্রিকেটের গোলের মতই বিষয়টি। লুঙ্গি কারখানার মালিক হয়তো বুঝাতে চেয়েছেন পারমাণবিক বোমার মতই এ লুঙ্গি শক্তিধর। কিন্তু পারমাণবিক বোমা আর লুঙ্গি একই ক্ষমতার হতে পারেনা। এটা তিনি বুঝলেও চমক লাগানোর জন্যই তার এ প্রয়াস। তারপরও পারমাণবিক লুঙ্গি দেশবাসীকে আনন্দ দিচ্ছে এটাই বা কম কিসের? এখানেই দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো। আসলের অভাব নকলে মেটানো। সে যাই হোক, বুক ফুলিয়ে বলতে তো পারছি বাংলাদেশও প্রবেশ করেছে পারমাণবিক যুগে। থাকনা তবে, কিন্তু।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আহ্সান

২০২১-০১-২৯ ২২:০৭:৫৬

লেখক মজা করে লেখলেও , হতাশ হবার কিছু নেই। এক দিন মে এই জিনিস টা এ দেশের মানুষ পারবেনা তা কিন্তু উরিয়ে দেয়া যাবে না।

Md MozaffarHossain

২০২১-০১-২২ ০২:৫১:৫৩

লুঙ্গিবোমা মজাই আলাদা

Dip

২০২১-০১-২১ ২০:৫৭:০১

ছিঃ ওই লুঙ্গির মতো আপনারাও একটা বাকোয়াজ নিউজ চটকদার শিরোনামে বানিয়ে আমাদের সময় নষ্ট করলেন। ছিঃ ছিঃ

রতন

২০২১-০১-২১ ১৫:২০:৪৭

সময় নষ্ট

Md.Sazzad

২০২১-০১-২১ ১২:২৯:২১

বিশ্বের সবচাইতে শক্তিশালি বোমা তৈরি করতে হবে। যেন বাংলাদেশ থেকে ছাড়লে আমেরিকাতে গিয়ে পড়ে। বিশ্ব যেন আমাদেরকে ভয় পায়।

মো সাব্বির হোসেন

২০২১-০১-২১ ১০:৩০:৪৬

প্রথমে, পড়ে তো অবাক,,!অবস্থা তো পুরা খারাপ,,!তাহলে তো অন্যদেশেরা আমাদের বলবে বাপ,,!কিন্তু পড়ে দেখি সবই বাদ,,!ছিল বোম হলো লুঙ্গি,,এই হলো পারমানবিক লুঙ্গি,, যা এখন আমরা পড়ি,,।।

MD.ZOBAYER HOSSAIN

২০২১-০১-২১ ১০:০৩:০৭

বোকা বনে গেলাম

Akbar

২০২১-০১-২১ ০৯:০৬:০০

এমন একটা তিরস্কারমূলক নিউজ অন্তত মানবজমিনের মতো পত্রিকা থেকে আশা করিনি।

আব্দুর রাজ্জাক

২০২১-০১-২১ ০৮:৪৬:৫৬

খবরটি ঐ চেয়ারম্যানের বক্তব্যের চেয়েও বোকা মার্কা।পাঠককে এভাবে ঠকানো উচিত হয়নি বলে মনে করি।

Foyez

২০২১-০১-২১ ০৪:২৬:২২

এইটা কেমন পোষ্ট করেছেন সুনামধন্য একটি পত্রিকার নিউজ এমন হতে পারে না। এইটা পরে আমার মুল্যবান সময় টুকু নষ্ট হলো।

Joy

২০২১-০১-২১ ১৬:৩২:০৩

অন্যান্য দেশে মিসাইল এর ভিতরে পারমাণবিক বোমা থাকে, আর আমাদের দেশে পারমাণবিক লুঙ্গির ভিতরে মিসাইল থাকে

Sanjida Jahan Mim

২০২১-০১-২১ ০২:৫৮:২৫

This is very good news for us.

Arif

২০২১-০১-২১ ১৫:৩৪:১০

আমার দেশের মানুষ যা আছে তাতেই খুশি আলহামদুলিল্লাহ কি দরকার ছিলো এই ফালতু পাঠক গুলার ফালতু খবর লেখার ভালো করে নাই

Karim

২০২১-০১-২১ ০১:২৫:১০

Who ever wrote the article on the nuclear bomb needs to get the facts right, the bomb was not the Creation of the Englishman Einstein, also the fact is Bangladesh is in deep credit from various countrys. We as land owners, business owners do not pay tax or vat as much as we should also we do not give zakat to the extent of our earning, how are we expecting to built nueclear Bombs. Please if one writes an articles get the facts right.

ফয়সাল ফারহান

২০২১-০১-২১ ০০:৫১:৪০

ভাই হাসতে হাসতে পারমাণবিক লুঙ্গি খুলে গেল খুব মজা পাইলাম

Shahidul islam

২০২১-০১-২০ ২৩:৪৫:০৬

মাথা নস্ট করে দিন এত কাহিন পড়ার সমায় আছে মূল টুকু লিখিলেই হত।

TMR mata

২০২১-০১-২০ ২৩:১৭:৩৮

একদম ফালতু নিউজ

শফিক

২০২১-০১-২০ ২২:৪৫:৪০

পারমানবিক যুগে আমরা পা রেখেছি, এটা মিথ্যা নয়। আজ যদিওবা আমরা পারমাণবিক বোমার দিকে যাচ্ছি না, বোমার সরঞ্জামতো দেশে আসছে।অভিজ্ঞতা

ইমন খান

২০২১-০১-২০ ২০:৫৬:৩৪

অবশ্যই এইটা আমাদের গর্বের বিষয়

Tawfiq

২০২১-০১-২০ ২০:৫০:৩৫

অনেকদিন পর মন খুলে হাসলাম।

সাইফুল ইসলাম

২০২১-০১-২০ ১৭:৫৩:৩৯

অনেক ভালো লাগলো,

Imran

২০২১-০১-২০ ১৫:৫৬:৪৬

এইডা একটা কাম হইলো

Sabira Selim

২০২১-০১-২০ ১৩:৪১:২৩

বোকা বনে গেলাম

মো.আতিকুর রহমান

২০২১-০১-২০ ১২:১৮:৪৬

ভালোই বলেছেন,এই আত্নঘাতী বোমা কিছু দেন না বরং কেড়ে নেয়।

Abdullah Rakeeb

২০২১-০১-২০ ০০:০৮:৩০

চটকদার শিরোনাম কিন্তু পড়তে গিয়ে শীর পিড়ায় ভোগার যোগার!

Kazi

২০২১-০১-১৯ ২৩:৩১:০৬

Dream will come true. To survive we will need atomic weapons.

আপনার মতামত দিন

মত-মতান্তর অন্যান্য খবর

মত মতান্তর

কাশিমপুর থেকে আজিমপুর

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পর্যালোচনা

'বীরত্বসূচক পদক' বাতিল করা যায় না

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পরামর্শক সেবা বা কনসালটেন্সি

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১



মত-মতান্তর সর্বাধিক পঠিত



হাজী সেলিমপুত্র ইরফানকাণ্ড

আল্লাহর মাইর, দুনিয়ার বাইর

ড্রাইভার মালেকের বালাখানা

দরজা আছে, দরজা নেই

আইন পেশায় বিরল এক মানুষ ব্যারিস্টার রফিক-উল-হক

অ্যাটর্নি জেনারেল পদে বেতন নেননি, লড়েছেন দু'নেত্রীর মামলা নিয়ে

DMCA.com Protection Status