করোনা, নবান্ন ও ভ্যাকসিন

ড. মাহফুজ পারভেজ

মত-মতান্তর ৯ ডিসেম্বর ২০২০, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩৭ অপরাহ্ন

হেমন্তের দ্বিতীয় মাস অগ্রহায়ণের শেষ ভাগে ইংরেজি বর্ষপঞ্জির শেষ মাস ডিসেম্বর চলছে। করোনাদগ্ধ আস্ত একটি বছর ২০২০ সাল বিদায় নিতে চলছে ভ্যাকসিনের আশাবাদ জাগিয়ে। সালতামামির প্রাক্কালে দোলা দিচ্ছে শঙ্কা ও আশার মিলিত আবাহন।

প্রকৃতির পালাবদলের হাত ধরে বাংলাদেশেও হীমেল স্পর্শে শীত এসেছে। মাঠে মাঠে আমন ধানের ঝাড়াই মাড়াই চলছে। ফাঁকা মাঠে কচিকাঁচাদের ঘুড়ির লড়াই হয়ত নেই করোনাকালে। তবুও আছে কৃষকের রবিচাষের তাড়া।

অগ্রহায়ণের গুরুত্বপূর্ণ নবান্ন উৎসব বাংলাদেশের গ্রামগুলোকে ফসল ও উৎসবে আলোকিত করে। করোনার বিরূপ পরিস্থিতিতে উৎসবের আমেজ এ বছর দেখা যাচ্ছে না।
বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রকোপে বিশ্বব্যাপী মন্দার ছাপ কম-বেশি পড়েছে কৃষক, শ্রমিক, মধ্যবিত্ত ও খেটে খাওয়া মানুষের জীবনে।

পরিস্থিতির অবনতিশীল পটভূমিতে আমেরিকায় বাড়ছে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা আর ভারতে চলছে উত্তাল কৃষক আন্দোলন। করোনার সামাজিক সঙ্গরোধের বাস্তবতা ভেঙে ক্ষুধার্ত মানুষ, আন্দোলনরত কৃষক ও বিপন্নরা ঘরবন্দি নেই, দলে দলে রাস্তায় নেমেছেন।

করোনায় সিংহভাগ মানুষের রোজগার কমেছে। কাজ কমেছে যেমন, তেমনি কাজে আসতেও রয়েছে বাধানিষেধ। কৃষক লোকবলের অভাবে হিমশিম। মজুর পাওয়া না যাওয়ায় অনেক সংগঠন স্বেচ্ছাকৃত শ্রমে মাঠের ফসল কাটতে সাহায্য করেছে কৃষকদের।

ফসল বিক্রির জন্যও অনেক জাঁতাকলে পিষ্ট হতে হয়। তারপরও বহু জিনিসের দাম এখনো বেশি। বাজার ঊর্ধমুখী হলেও উৎপাদনকারী কৃষক পণ্যের ন্যায্যমূল্য পান না। ফলে শুধু মহামারিতেই জীবন ও উৎসব মাটি হচ্ছে না, অভাবেও শুকিয়ে যাচ্ছে উৎসবের সরসতা আর জীবনের সুখ।

এরই মাঝে প্রলয়ঙ্করী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিনের উত্থান হয়েছে। লৌহমানবী মার্গারেট থ্যাচারের দেশে ৯০ বছরের মার্গারেট নামের এক অশীতিপর বৃদ্ধা প্রথম ভ্যাকসিন গ্রহণ করে নাম লিপিবদ্ধ করেছেন ইতিহাসের পাতায়। বৃটেনের সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বের আরো অনেক দেশে শুরু হতে চলছে করোনার বিরুদ্ধে টিকাদান কর্মসূচি।

বহু রাজনীতি, বহুজাতিক কোম্পানির বাণিজ্যিক মতলব, পরীক্ষার ভালো ও মন্দের নানা উত্থান-পতন পেরিয়ে এগিয়ে চলেছে ভ্যাকসিনের অগ্রগতি। নানা দেশের, নানা কোম্পানির ভ্যাকসিনের নানা রকম ভালো ও মন্দ দিক নিয়েও চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

আশা করা যায়, বাংলাদেশেও দ্রুততম সময়ে ভ্যাকসিন এসে হাজির হবে। আগ্রাসী করোনার প্রতিরোধে সম্ভাব্য প্রতিষেধকের জন্য মানুষ উন্মুখ। একটি ভালো, সঠিক ও কার্যকরী ভ্যাকসিনের জন্য অপেক্ষায় সবাই।

তবে মানুষের জীবন-মরণের সন্ধিক্ষণে চলমান অপেক্ষার পালা যেন নিরাপদ হয় এবং বিঘ্নমুক্ত হয়। যেভাবে ভেজাল বা নকল মাস্কে বাজার সয়লাব হয়েছিল, জীবনদায়ী ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে তেমন হলে মরণের উৎসব শুরু হবে। দুর্নীতি, অসাধুতা ও মুনাফার মনোবৃত্তিসম্পন্ন মানসিকতা যদি ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও দেখা যায়, তবে বিপদমুক্তির বদলে বিপদবৃদ্ধির আশঙ্কাই বাড়বে। অতএব, সাবধানে, সর্তকতা ও সাধুতার সঙ্গে পদক্ষেপ নিতে হবে সংশ্লিষ্টদের।

আপনার মতামত দিন

মত-মতান্তর অন্যান্য খবর

মত মতান্তর

কাশিমপুর থেকে আজিমপুর

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পর্যালোচনা

'বীরত্বসূচক পদক' বাতিল করা যায় না

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পরামর্শক সেবা বা কনসালটেন্সি

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১



মত-মতান্তর সর্বাধিক পঠিত



হাজী সেলিমপুত্র ইরফানকাণ্ড

আল্লাহর মাইর, দুনিয়ার বাইর

ড্রাইভার মালেকের বালাখানা

দরজা আছে, দরজা নেই

আইন পেশায় বিরল এক মানুষ ব্যারিস্টার রফিক-উল-হক

অ্যাটর্নি জেনারেল পদে বেতন নেননি, লড়েছেন দু'নেত্রীর মামলা নিয়ে

DMCA.com Protection Status