বৃটিশ পুলিশে নতুন ডিজাইনের হিজাব

সাঈদ চৌধুরী

অনলাইন (১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৪, ২০২০, শুক্রবার, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০০ পূর্বাহ্ন

বৃটিশ পুলিশের ইউনিফর্মে নতুন ডিজাইনের হিজাব যুক্ত করেছে নর্থ ইয়র্কশায়ার পুলিশ বিভাগ। দুজন পুলিশ কর্মকর্তা এই হিজাবের নকশা করেছেন। তাদের একজন হচ্ছেন উজমা আমিরেড্ডি এবং অপরজন হলেন আরফান রাউফ।  

পুলিশের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, বহুজাতি গোষ্ঠীর সদস্যদের নিয়ে ব্যাপক পরিসরে মানুষের সেবা প্রদান করাই তাদের উদ্দেশ্য। ইউনিফর্মে নতুন ডিজাইনের হিজাব সংযুক্তির ফলে আরো বেশি মুসলমান নারী এখন পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিতে আগ্রহী হবেন বলে তারা আশা করছেন।

বৃটিশ পুলিশের মুসলিম সদস্য উজমা আমিরেড্ডি ও আরেক পুলিশ কর্মকর্তা আরফান রাউফ যৌথভাবে এই হিজাবের ডিজাইন করেছেন। নতুন এই হিজাবে মাথা ঢেকে রাখার জন্য একটি অংশ আর অপর অংশ দিয়ে গলা আবৃত করা হয়। তাদের মতে, এটা স্বাচ্ছন্দ্যময় শালীন পোশাক যা সংঘাতের সময়ও সুরক্ষা দেবে।

এক সাক্ষাতকারে এই  হিজাব পরিহিতা  মুসলিম পুলিশ উজমা আমিরেড্ডি বলেন, হিজাব শুধু আরাম ও স্বস্তিদায়কই নয়, এটি মুসলিম নারীদের ধর্মীয় প্রয়োজনীয়তাও পূরণ করে। তাদের নতুন পদক্ষেপ মুসলিম নারীদের পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিতে সহায়তা করবে বলে তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উজমা আমিরেড্ডি আরো বলেন, একজন বৃটিশ মুসলিম হিসেবে আমি ব্রিটেনের সেবায় নিয়োজিত রয়েছি।
পুলিশ কর্মকর্তার পেশা হিসেবে এটি আমার খুবই পছন্দের। কিন্তু পরিপূর্ণি ইসলামী জীবনাচারের ক্ষেত্রে কিছুটা প্রতিবন্ধক ছিল। হিজাব আমাকে মুসলিম পুলিশ হিসেবে পূর্ণাঙ্গতা দিয়েছে। উজমা আমিরেড্ডি নর্থ ইয়র্কশায়ার পুলিশে ১০ বছর আগে যোগ দেন। তিনি পাকিস্তানের লাহোরে জন্মগ্রহণ করেন। ১৩ বছর বয়স থেকে ইংল্যান্ডে বসবাস করছেন।

নতুন এই হিজাব নিয়ে প্রচন্ড আনন্দিত হিজাবের অপর ডিজাইনার পুলিশ কর্মকর্তা আরফান রাউফ। তিনি বলেন, এটি পেশাদার ও স্মার্ট দেখাচ্ছে। এই হিজাব বেশ স্বাস্থ্যপ্রদ ও মানানসই। একই সাথে মুসলিম নারীদের পেশাদারিত্ব ও মূল্যবোধ বজায় রাখার ক্ষেত্রে সমাজকে সঠিক বার্তা দিতে সক্ষম হবে। তিনি আরো বলেন, সারাদেশে পুলিশ বাহিনীর সাথে এটি একটি আদর্শ হিজাব হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা যায় কিনা তা দেখার জন্য আমাদেরে জাতীয়ভাবে কথোপকথনের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।  

পিসি আমিরেড্ডির পক্ষে তিনি বিশ্বাস করেন যে, ইতিমধ্যে হিজাবের সম্ভাব্য শক্তি দেখেছেন। বলছিলেন, আমার এক বন্ধু পুলিশ বাহিনীতে যোগদানের পাইপলাইনে ছিল এবং আমি যখন তাকে নতুন হিজাবের কথা বললাম সে হিজাবটি দেখতে পেয়ে সত্যিই খুশি হয়েছে। সুতরাং এটি আমার জন্য গর্বের মুহূর্ত  যে,  আমি একজন মহিলাকে পুলিশ বাহিনীতে যোগদানে আনন্দিত করেছি। আগে যে বাধা ছিল এখন তার মুখোমুখি হতে হবে না।

নর্থ ইয়র্কশায়ার পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানান, আমরা যাদের সেবা দিয়ে থাকি তাদের প্রতিনিত্ব করাটাও জরুরী। প্রত্যেক পুলিশ কর্মকর্তার কাজের জন্য উপযুক্ত পোশাক নির্বাচনে সহায়তা প্রদান পুলিশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সব সময় এমন কোনও উপায় তৈরি করা ও নিশ্চিত করা দরকার, যার মাধ্যমে এ জাতীয় সমস্যা উত্থাপিত হলে যথার্থ সমাধান করা যায়।

ইয়র্কশায়ার পুলিশ এই দুই কর্মকর্তার প্রশংসা করে বলেন, পিসি এমরেডেডি এবং পিসি রাহুফ এই গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনটি ঘটানোর জন্য অনেক কঠোর পরিশ্রম করেছেন। সহকারীদের সাথে এই গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনটি ঘটানোর জন্য সহযোগিতা করেছেন।

মুসলিম মহিলাদের পুলিশ অফিসার হতে উৎসাহ দেওয়ার জন্য ২০০৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া পুলিশের সদস্য মাহা সুক্কার ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরতেন। নিউজিল্যান্ড পুলিশ একই রকম পরিবর্তন করেছে।  পুলিশ কনস্টেবল জিনা আলি প্রথম পুলিশ কর্মকর্তা, যিনি আনুষ্ঠানিকভাবে তার পোশাকের সঙ্গে হিজাব পরেন। ২০০৬ সালে  সালে  লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে, তাদের পুলিশ সদস্যরা চাইলে ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরতে পারবেন। ২০১৬ সালে স্কটল্যান্ড পুলিশও হিজাবের জন্য অভিন্ন নীতিমালা অনুমোদন করেছে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status