শাহবাগ অবরোধ ফয়জুল-মামুনুলকে গ্রেপ্তারের দাবি

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার

প্রথম পাতা ২৯ নভেম্বর ২০২০, রোববার

ভাস্কর্য নির্মাণের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর ফয়জুল করিমকে গ্রেপ্তারে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশ। গতকাল সাত দফা দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে এ আল্টিমেটাম দেয় সংগঠনটি। এতে নেতৃত্ব দেন সংগঠনটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক আল মামুন। এর আগে, বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যে জড়ো হয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তারা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয়। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মহানগরসহ ঢাকার আশপাশের জেলার নেতাকর্মীরাও যোগ দেন। শাহবাগের বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে সংগঠনটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ঘোষণা দেন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দাবি আদায় না হলে মামুনুল-ফয়জুলকে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানে গণধোলাই দিয়ে পাকিস্তান পাঠিয়ে দেয়া হবে। বুলবুল বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি এদের গ্রেপ্তার করা না হয়, তাহলে আমরা তাদের যেখানে পাবো, গণধোলাই দিয়ে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেবো।
সাধারণ সম্পাদক আল মামুন বলেন, সাত দফা দাবিতে ১লা ডিসেম্বর বেলা ৩টায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সব জেলা ও মহানগর ইউনিটে একযোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। এতেও দাবি পূরণ না হলে আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাত দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- মহানবী (সা.) কে অবমাননা ও বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতাকারী মামুনুল হক ও ফয়জুল করিমকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা; দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও জেলা-উপজেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ; সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বাংলাদেশে অবিলম্বে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা ও পবিত্র মসজিদ-মাদ্রাসাগুলোতে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা বন্ধ করা; ধর্মীয় সভা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় উস্কানিমূলক গুজব ছড়ানো ও অপপ্রচারকারীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা; ধর্ষণের মতো বলাৎকারের অপরাধে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করা; মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে এবং মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের ওপর যৌন নিপীড়ন বন্ধে মনিটরিং সেল গঠন করে নজরদারি বাড়াতে হবে এবং সব মাদ্রাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়মিত জাতীয় সংগীত বাজানো, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শহীদ মিনার নির্মাণ ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানানো বাধ্যতামূলক করা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Faruque Ahmed

২০২০-১১-৩০ ০৯:৩৬:১৫

আমরা তাদের যেখানে পাবো, গণধোলাই দিয়ে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেবো।- জঙ্গি মানসিকতা comments.

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

বাইডেনের শপথ কাল

ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র মহড়া

১৯ জানুয়ারি ২০২১

সিরামের ভ্যাকসিন আসছে কাল

১৯ জানুয়ারি ২০২১

ঐকমত্য গড়তে সম্মিলিত উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান প্রেসিডেন্টের

১৯ জানুয়ারি ২০২১

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়ে তুলতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রেখে দেশ থেকে দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস ...

কর্মস্থলে যাওয়া হলো না ইকবাল-মায়ার

১৯ জানুয়ারি ২০২১

প্রতিদিনের মতোই বাসা থেকে বের হয়েছিলেন তারা। উদ্দেশ্য যার যার কর্মস্থলে যাওয়া। সাজ সকালে বাইকে ...

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফর বাতিল

৫৫ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পাসপোর্টে সৌদিতে

১৮ জানুয়ারি ২০২১



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

DMCA.com Protection Status