২৫ পৌরসভায় প্রার্থী ঘোষণা করলো আওয়ামী লীগ

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন (১ মাস আগে) নভেম্বর ২৮, ২০২০, শনিবার, ৭:২৫ পূর্বাহ্ন

আসছে ২৮শে ডিসেম্বর ২৫ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। শনিবার দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত দলটির স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এই প্রার্থী বাচাই করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হলেন পঞ্চগড় পৌরসভায় জাকিয়া খাতুন, ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জে কশিরুল আলম, দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে খাজা মইন উদ্দীন, রংপুরের বদরগঞ্জে আহাসানুল হক চৌধুরী, কুড়িগ্রামে পৌরসভায় কাজিউল ইসলাম।
রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভায় রবিউল ইসলাম, কাটাখালী পৌরসভায় আব্বাস আলী, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে মনির আক্তার খান তরু লোদী, পাবনার চাটমোহরে সাখাওয়াত হোসেন সাখো, কুষ্টিয়ার খোকসায় আল মাছুম মুর্শেদ, খুলনার চালনায় সনত কুমার বিশ্বাস এবং চুয়াডাঙ্গা পৌরসভায় রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার মনোনয়ন পেয়েছেন।
বরগুনা জেলার বেতাগীতে এ বি এম গোলাম কবির, পটুয়াখালীর কুয়াকাটাতে আ. বারেক মোল্লা, বরিশালের উজিপুরে গিয়াস উদ্দিন বেপারী, বাকেরগঞ্জে লোকমান হোসেন ডাকুয়া, মানিকগঞ্জ পৌরসভায় রমজান আলী, ধামরাইয়ে গোলাম কবির, গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভায় আনিছুর রহমানকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।
এছাড়া ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌরসভায় এস.এম. ইকবাল হোসেন (সুমন), নেত্রকোনার মদনে আব্দুল হান্নান তালুকদার, সুনামগঞ্জের দীরাইয়ে বিশ্বজিত রায়, মৌলভীবাজারের বড়লেখা পৌরসভায় আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে মাসুদউজ্জামান মাসুক এবং চট্টগ্রামের সীতাকু- পৌরসভায় বদিউল আলমকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৮শে ডিসেম্বর প্রথম ধাপের পৌর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়ন ফরম দাখিলের শেষ তারিখ ১লা ডিসেম্বর, মনোনয়ন বাছাই ৩রা ডিসেম্বর এবং প্রত্যাহারের শেষ দিন ১০ই ডিসেম্বর।।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

বাবুল চৌধুরী এইচ এম

২০২০-১১-২৮ ০৭:০৭:১৮

পৃথিবীর কতিপয় গনতান্ত্রিক রাষ্ট্রে দলগতভাবে স্থানীয় সরকারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, যারজন্য তারা পরীক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহন করে এইজন্য যে সর্বস্তরে গনতান্ত্রিক ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে বলে কিন্তু বাংলাদেশে পরীক্ষা নীরিক্ষা ছাড়াই স্থানীয় সরকারে দলীয়ভাবে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয় যারফলে ইহা সম্পুর্ন ব্যার্থতায় পর্যবসিত হয়েছে, আমার ক্ষুদ্রমতে বাংলাদেশে স্থানীয় সরকারকে এখনো দলীয়ভাবে করার সময় আসেনি। কারন এখানে বেশীরভাগ স্বার্থন্বেষ্বীরা অবৈধভাবে অর্থ উপার্জনের লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। এতে করে যারা ব্যবসায়ীক মনোভাবাপন্ন নির্বাচন প্রার্থী তারা যথেষ্ট অবৈধ অর্থ খরচ করে নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার চেষ্টা করে এবং সফল ও হয় যারজন্য বাংলাদেশে দলীয়ভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন একধরনের অপরাধীদের জায়েজ সিন্ডিকেট হিসাবে পরিগণিত হচ্ছে। তাই বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকার মন্ত্রী নির্বাচন কমিশনের প্রতি বিনিত অনুরোধ যে স্থানীয় সরকারের নির্বাচনীবিধি পরিবর্তন করে সম্পুর্ন নির্দলীয় ভাবে অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করা হোক।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

এক ব্রিটিশ বাংলাদেশির সফলতা

৫'শ পাউন্ড পুঁজিতে এখন মিলিয়নিয়ার

১৬ জানুয়ারি ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status