তাহিরপুরে কথিত নায়ক মোজাম্মেল জেল হাজতে!

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

অনলাইন (১ মাস আগে) নভেম্বর ২৭, ২০২০, শুক্রবার, ২:৩৬ পূর্বাহ্ন

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে কথিত এক নায়ককে ডিজিটাল নিরাপত্তা (আইসিটি) আইনের মামলায় গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
গ্রেপ্তারকৃত কথিত নায়ক উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ভোলাখালি গ্রামের রব মিয়ার ছেলে। মোজাম্মেল আলম ভূইয়া তার মা আলানা বেগমের হাসপাতালে চাকরি করার সুবাদে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারি হয়েও জোরপূর্বক প্রভাব খাটিয়ে বসবাস করতো তৃতীয় শ্রেনীর হাসপাতাল কোয়ার্টারে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বাদাঘাট বাজার থেকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার দুপুরে তাকে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করে তাহিরপুর থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কথিত নায়ক মোজাম্মেল আলম ভূইয়া দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন নামসর্বস্ব অনলাইন পত্রিকায় সুনামগঞ্জ ২৮ বিজিবির বিরুদ্ধে মিথ্যা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশসহ বিভিন্ন নামে বেনামে ২০/২৫টি ভূয়া ফেসবুক আইডি তৈরি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শেয়ার করে দ আইনশৃংখলা পরিস্থতির অবনতি করার চেষ্টা করে যাচ্ছিল।

বিষয়টি সুনামগঞ্জ ২৮ বিজিবির নজরে আসলে বিজিবির এক নায়েক তাহিরপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা (আইসিটি) আইনে মামলা দায়ের করে। মামলার প্রেক্ষিতে অনলাইন পত্রিকার মাধ্যমে মিথ্যা ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটনার দায়ে তাহিরপুর থানার এসআই মনিতোষ পালের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম তাকে গ্রেপ্তার করে।

এছাড়া মোজাম্মেল নিজেকে কখনও সাংবাদিক, কখনও বা চলচ্চিত্রের পরিচালক, নবাগত নায়ক (মশাল) আবার কখনও আইনশৃংখলা বাহিনীর লোক পরিচয় দিয়ে সীমান্ত এলাকা সহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে প্রতারণা করতো বলে অভিযোগ রয়েছে।

বেশ কিছুদিন আগে এক স্কুল ছাত্রের উপর এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় ৫ বছর পলাতক থাকে সে। পরে গ্রেপ্তার হয়ে প্রায় ৫ মাস জেল খেটে জামিনে বের হয়ে পুনরায় আইনশৃংখলা বাহিনীর বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচারে লিপ্ত হয় বলে জানা গেছে।


উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, কথিত নায়ক মোজাম্মল আলম ও  তার সহোদর জাহাঙ্গীরের মা আলেনা বেগম তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারী আয়া পদে চাকুরী করলেও তাদের দুই সহোদরের দাপটে বিনা ভাড়ায় প্রায় ২৫ বছর ধরে তৃতীয় শ্রেনীর কোয়ার্টার দখল করে রেখেছে।

কর্তৃপক্ষ বাসা ভাড়া আদায় করতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য কম্লেক্সের কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে এবং প্রভাব দেখায়। যার কারণে কর্তৃপক্ষ বাসা ভাড়া আদায় করতে পারছেনা তাদের কাছ থেকে।

তাহিরপুর থানার ওসি মো.আব্দুল লতিফ তরফদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সুনামগঞ্জ ২৮ বিজিবির নায়েক রাসেল আইসিটি আইনে মোজাম্মেল সহ আরো কয়েকজন অঙাতনামা আসামি করে তাহিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ থাকে গ্রেপ্তার করেছে। শুক্রবার সকালে থাকে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

১৮ই মার্চ থেকে বইমেলা

২৫ জানুয়ারি ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status