ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নামাজ পড়ানোর সময় ইমামের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন (২ মাস আগে) নভেম্বর ২৩, ২০২০, সোমবার, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০০ পূর্বাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফজরের নামাজ পড়ার সময় মাওলানা সুলায়মান (৫৮) নামের এক ইমামের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোরে সদর উপজেলা শহরের পৌর এলাকার ঐতিহ্যবাহী মদিনা মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। মাওলানা সুলায়মান নবীনগর উপজেলার বিটঘর ইউনিয়নের গুটিগ্রামের বাসিন্দা। তিনি দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত মদিনা মসজিদের ইমামের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

মসজিদের খাদেম মাওলানা অহিদুজ্জামান জানান, সোমবার ভোরে ফজর নামাজের ইমামতি করার সময় শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে মেহরাব থেকে সরে দাঁড়ান তিনি। পরে মুসল্লীদের সঙ্গে নামাজ আদায় করা অবস্থায় মারা যান তিনি। আজ বাদ জোহর শহরের টেংকেরপাড় জানাজা শেষে তার প্রতিষ্ঠিত তিতাস পাড়া জামিয়া ইসলামিয়া সুলায়মানিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে দাফন করা হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Abdul Barike

২০২০-১১-২৫ ১১:২০:১৫

এমন সৌভাগ্য সবার হয় না ৷ আল্লাহ উনাকে জান্নাতবাসী কর ৷ মাবুদ আমাদেরও এমন মৃত্যু নসিব কর ৷

milon

২০২০-১১-২৪ ১৯:০৯:৩০

এমন সৌভাগ্য সবার হয় না ৷ আল্লাহ উনাকে জান্নাতবাসী কর ৷ মাবুদ আমাদেরও এমন মৃত্যু নসিব কর

Anu

২০২০-১১-২৪ ১৩:৩৪:৫৪

আল্লাহ ইমাম সাহেব কে জান্নাত দান করুন- আমিন, নামাজরত অবস্থায় যেন সকল মু’মিনের মৃত্যু হয় আল্লাহর কাছে এ দোয়া করি।

আবুল কাসেম

২০২০-১১-২৩ ২১:৫৯:৫৭

সুবহানাল্লাহ! নামাজরত অবস্থায় মৃত্যু! নিসন্দেহে এ মৃত্যু বড়োই সৌভাগ্যের! এমন মৃত্যুই নেককার ঈমানদার, মুত্তাকী ও মুহসিন লোকদের কাম্য। নিশ্চয়ই ঈমাম সাহেব আল্লাহ তায়ালার নেককার বান্দাদের একজন ছিলেন। আল্লাহ তায়ালা তাঁকে জান্নাতুল ফেরদৌসের বাসিন্দা করুন। জান্নাতে উচ্চ মর্যাদা দান করুন। রাসুল স. বলেছেন মৃত্যু যন্ত্রণা বড়োই কঠিন। কিন্তু আল্লাহর প্রিয় বান্দাদের মৃত্যুর যন্ত্রণা তেমন একটা হয়না বললেই চলে। কুরআন মজিদে উল্লেখ করা হয়েছে, নেককার লোকদের মৃত্যুর সময় আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে তাঁদেরকে অভিবাদন জানানো হয়। তাঁদেরকে উদ্দেশ্য করে ইরশাদ হচ্ছে , "হে প্রশান্ত আত্মা! তুমি তোমার রবের কাছে প্রত্যাবর্তন করো সন্তুষ্ট চিত্তে ও প্রিয়ভাজন হয়ে। অতপর তুমি আমার প্রিয় বান্দাদের মধ্যে শামিল হয়ে যাও। এবং প্রবেশ করো আমার জান্নাতে।" সূরা আল ফজর। আয়াতঃ২৭-৩০। প্রশান্ত আত্মা বলা হয় ঐ ব্যক্তির আত্মাকে যে ব্যক্তির আত্মা সর্বাবস্থায় আল্লাহ তায়ালার প্রতি সন্তুষ্ট ছিলো এবং সুখে-দুঃখে সবসময়ই পরিতুষ্ট ছিলো। কোনো রকম বাধ্য হয়ে নয় বরং একেবারেই সানন্দ চিত্তে আল্লাহ তায়ালাকে নিজের 'রব' হিসেবে মেনে নিয়েছে এবং নবী রাসূলদের প্রদর্শিত শিক্ষা, হেদায়েতের বানী, দ্বীন ও জীবন ব্যবস্থাকে নিজের জন্য বাধ্যতা মূলক করে নিয়েছে। এরপর তাতে কোনো রকম সন্দেহে পড়েনি। সুখে হোক, দুঃখে হোক সবসময় সকল প্রকার বাধা বিপত্তির মুখেও তার বিশ্বাসের উপর সে দৃঢ়তা অবলম্বন করেছে। তাঁদের ব্যপারেই ইরশাদ হচ্ছে, "যারা বলে আল্লাহ তায়ালাই হচ্ছেন আমাদের 'রব', এরপর তারা একথার ওপর অবিচল থাকে, তাদের কাছে ফেরেশতা নাজিল হয় এবং তাদেরকে বলে তোমারা ভয় পেয়োনা, চিন্তিত হয়োনা, তোমারা সেই জান্নাতের সুসংবাদ গ্রহণ করো যার ওয়াদা তোমাদের সাথে করা হয়েছে। আমরা তোমাদের দুনিয়ার জীবনে এবং আখেরাতেও তোমাদের বন্ধু, অভিভাবক। সেখানে (সেই জান্নাতে) তোমাদের মন যা কিছুই চাইবে সে সব কিছুই তোমাদের জন্য মজুদ থাকবে এবং যা কিছুই তোমরা সেখানে তলব করবে তা তোমাদের সামনেই থাকবে। এটা হচ্ছে তোমাদের জন্য মেহমানদারী পরম দয়ালু ও ক্ষমাশীল আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে।" সূরা হা- মীম আস সাজদা। আয়াতঃ৩০-৩২। 'রব' শব্দটি আরবি ভাষায় ৩ টি অর্থে ব্যবহৃত হয়। ১) মালিক ও প্রভু। ২) অভিভাবক, প্রতিপালনকারী, রক্ষণাবেক্ষণকারী ও সংরক্ষণকারী। ৩) সার্বভৌম ক্ষমতার অধিকারী, শাসনকর্তা, পরিচালক ও সংগঠক। উপরিউক্ত ৩ টি অর্থেই যারা আল্লাহ রব্বুল আলামীনকে নিজের 'রব' হিসেবে স্বীকার করে এবং সেই স্বীকারোক্তির ওপর অটল ও অবিচল থাকে এবং দৃঢ়তা অবলম্বন করে, আল্লাহ তায়ালা তাদের বন্ধু ও অভিভাবক (ওলী) হয়ে যান। আর মৃত্যুর সময় রহমতের ফেরেশতা নাজিল করে তাদেরকে বেহেশতের সুসংবাদ দেয়া হয়। এধরনের লোকেরাই 'আল্লাহর ওলী' এবং এঁদের মৃত্যু হয় এহ্সানের সাথে। নামাজ আদায়ের সময় ঈমাম সাহেবের মৃত্যু বরন করছেন। আমার বিশ্বাস নিশ্চয়ই এমৃত্যু রহমতের মৃত্যু। তাঁর মৃত্যুর এমন নিদর্শন দেখার পর পাপাচার, অনাচার ও দুর্নীতির পথ পরিহার করে আমরাও যেনো হেদায়েতের পথে চলতে পারি এবং আল্লাহ তায়ালার রহমত পাওয়ার উপযুক্ত হতে পারি সেই দোয়া করছি। আরো দোয়া করছি, আমাদের এ সমাজের সবাই প্রশান্ত আত্মার অধিকারি হোক। ঈমাম সাহেবের পবিত্র রুহের মাগফেরাত কামনা করছি। তাঁর পরিবার পরিজনকে আল্লাহ তায়ালা শোক সইবার শক্তি দান করুন। আমিন।

feroz

২০২০-১১-২৩ ১৯:০১:০৭

আল্লাহ ইমাম সাহেব কে জান্নাত দান করুন- আমিন

Mohammed shahrior

২০২০-১১-২৩ ০৫:১৬:১৩

الذين اذا اصابتهم مصيبة قالوا انا لله وانا اليه راجعون “Who, when a misfortune overtakes them, say: ‘Surely we belong to Allah and to Him shall we return’.” اللهُـمِّ اغْفِـرْ لِـ-فُلاَنٍ (باسـمه)وَارْفَعْ دَرَجَتََـهُ فِي المَهْـدِيّيـنَ ، وَاخْـلُفْـهُ في عَقِـبِهِ في الغَابِِـرِينَ، وَاغْفِـرْ لَنَا وَلَـهُ يا رَبَّ العـالَمـين، وَافْسَـحْ لَهُ في قَبْـرِهِ وَنَـوِّرْ لَهُ فِيهِ Allaahummaghfir li warfa darajatahu fil-mahdiyyeena, wakhlufhu fee 'aqibihi fil-ghaabireena , waghfir-lanaa wa lahu yaa Rabbal-'aalameena, wafsah lahu fee qabrihi wa nawwir lahu feehi O Allah, forgive him and elevate his status among those who are guided. Send him along the path of those who came before, and forgive us and him, O Lord of the worlds. Enlarge for him his grave and shed light upon him in it. ‘O Allaah, forgive and have mercy upon him, excuse him and pardon him, and make honorable his reception. Expand his entry, and cleanse him with water, snow, and ice, and purify him of sin as a white robe is purified of filth. Exchange his home for a better home, and his family for a better family, and his spouse for a better spouse. Admit him into the Garden, protect him from the punishment of the grave and the torment of the fire. O Allaah, forgive our living and our dead, those present and those absent, our young and our old, our males and our females. O Allaah, whom amongst us You keep alive, then let such a life be upon Islam, and whom amongst us You take unto Yourself, then let such a death be upon faith. O Allaah, do not deprive us of your rewards and do not let us stray after faith’ O Allaah, he is under Your care and protection so protect him from the trial of the grave and torment of the Fire. Indeed You are faithful and truthful. Forgive and have mercy upon him, surely You are The Oft-Forgiving, The Most-Merciful’. Aameen. May ALLAH (SWT) forgive his sins and grant him Jannatul Ferdaus and patience to the family... Aameen

মোহাম্মদ রহিম উদ্দীন

২০২০-১১-২৩ ০৪:১২:৩২

আল্লাহ এমন মৃত্যু আমিও চাই

Mohammad Akmal

২০২০-১১-২৩ ১৬:৩৭:৩০

Inna lillahi wa inna elihi reazeun Honorable death, May Allah grant him Jannatul Ferdous Ameen

Mohammad Akmal

২০২০-১১-২৩ ১৬:৩৬:১২

Honorable death, May Allah grant him Jannatul Ferdous Ameen

এ কে এম মহীউদ্দীন

২০২০-১১-২৩ ১৬:৩০:৫৬

খুব ঈর্ষনীয় মৃত্যু। আল্লাহতা'আলা ইমাম সাহেবকে সাদরে গ্রহন করুন।

Zahir Sadi

২০২০-১১-২৩ ০৩:২৯:৪৪

হুজুর আমার হেফজ খানার উস্তাদ ছিলেন খুবি ভাল মনের মানুষ ছিলেন, হে আল্লাহ! হুজুরের জীবনের সকল খেদমত গুলো কবুল করে নেন জান্নাতুল ফেরদৌস নাছিব করেন, আমাদের কেউ এমন মৃত্যু দান করিয়েন।

Sabir Hossain

২০২০-১১-২৩ ১৫:১৭:৩২

আল্লাহ এমন মৃত্যু তুমি আমাকে ও নসিব করিও। আমিন

Belayet talukder

২০২০-১১-২৩ ০১:৫৫:১৫

আল্লাহ এমন মৃত্যু তুমি আমাকে ও নসিব করিও। আমিন

Mamun mia

২০২০-১১-২৩ ০১:৩৭:২৬

Alhamdulillah amin he Allah amader subayi ke amon moron dio

মোঃ মোজাহারুল ইসলাম

২০২০-১১-২৩ ১৪:১১:১০

আল্লাহ ইমাম সাহেব কে জান্নাত দান করুন- আমিন, নামাজরত অবস্থায় যেন সকল মু’মিনের মৃত্যু হয় আল্লাহর কাছে এ দোয়া করি। নামাজরত অবস্থায় যেন আমার মৃত্যু হয় আল্লাহর কাছে এ দোয়া করি এবং আপনাদের কাছে দোয়া চাই।

Tanbir

২০২০-১১-২৩ ০০:৫৬:২৮

Ato soundar bave unar mritthu holo, Lok ta onek onek lucky man.

Mizan

২০২০-১১-২৩ ০০:৫৩:২১

আল্লাহ এমন মৃত্যু তুমি আমাকে ও নসিব করিও। আমিন

Abu Saimon

২০২০-১১-২২ ২৩:৫১:০১

এমন সৌভাগ্য সবার হয় না ৷ আল্লাহ উনাকে জান্নাতবাসী কর ৷ মাবুদ আমাদেরও এমন মৃত্যু নসিব কর ৷

Mohammad Arzu

২০২০-১১-২৩ ১২:৪৮:৩৮

আল্লাহ ইমাম সাহেব কে জান্নাত দান করুন- আমিন

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

১৮ই মার্চ থেকে বইমেলা

২৫ জানুয়ারি ২০২১



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status