রেমিটেন্স প্রবাহে বিশ্বে অষ্টম বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

অনলাইন ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ৮:০৫ | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০০

চলতি বছর (২০২০) প্রবাসীদের পাঠানো অর্থ (রেমিটেন্স) প্রবাহের ক্ষেত্রে বিশ্বের মধ্যে অষ্টম অবস্থানে থাকবে বাংলাদেশ। শুক্রবার বিশ্বব্যাংকের ওয়াশিংটন সদর দপ্তর থেকে প্রকাশিত ‘কোভিড-১৯ ক্রাইসিস থ্রো মাইগ্রেশন লেন্স’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বছর করোনার মধ্যেও দক্ষিণ এশিয়ার দু'টি দেশের রেমিটেন্স আরো বাড়বে। এর মধ্যে বাংলাদেশের বাড়বে ৮ শতাংশ। মূলত ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণের কারণে অপ্রাতিষ্ঠানিক থেকে প্রাতিষ্ঠানিক চ্যানেলে রেমিটেন্স বৃদ্ধি পাওয়ায় চলমান মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশে রেমিটেন্স বাড়বে। বিশ্বব্যাংকের হিসাব মতে, ২০২০ সালে বাংলাদেশে রেমিটেন্স আসবে ২০ বিলিয়ন ডলার। ফলে পরিমাণের দিক থেকে শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ থাকছে অষ্টম স্থানে।

রেমিটেন্স প্রবাহের প্রথম স্থানে রয়েছে ভারত (৭৬ বিলিয়ন ডলার), দ্বিতীয়তে চীন (৬০ বিলিয়ন ডলার) আর তৃতীয়তে মেক্সিকো (৪১ বিলিয়ন ডলার)। শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের আগে দক্ষিণ এশিয়ার আরেকটি দেশ পাকিস্তান রয়েছে ষষ্ঠ অবস্থানে।
দেশটির রেমিটেন্সের পরিমাণ হতে পারে ২৪ বিলিয়ন ডলার। ভারত পরিমাণের দিক থেকে শীর্ষে থাকলেও এ বছর দেশটির রেমিটেন্স ৯ শতাংশ কমবে। আর সামগ্রিকভাবে দক্ষিণ এশিয়ার রেমিটেন্স কমবে ৪ শতাংশ। অবশ্য দক্ষিণ এশিয়ার আরেকটি দেশ পাকিস্তানের ৯ শতাংশ বাড়বে। তবে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপির) অনুপাতে বাংলাদেশ রেমিটেন্স আহরণের ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে চতুর্থ, যা জিডিপির ৬.২ শতাংশ। এক্ষেত্রে প্রথমে রয়েছে নেপাল (২৩ শতাংশ), দ্বিতীয় অবস্থানে পাকিস্তান (৯.১ শতাংশ) এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে শ্রীলংকা (৮.২ শতাংশ)।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২০-১০-৩১ ১৯:২৩:২৩

Remittances of 10 to 15 Bangladeshi is taken by one Indian or Srilankan out of Bangladesh. They don't do hard work, but Bangladeshi workers abroad do very hard work

Milton

২০২০-১০-৩১ ২৩:৫৩:৩১

Excellent!! But what about those who remit this money? Every dollar is saved with lots of hardship and sacrifice of own comfort by our oversees workers. But, do these heroes get any respect either in their country of residence or in their mother land? The employees of our foreign missions misbehaved with them in all ways, these foreign workers face cruelty and disrespect at the airport at the time departure and arrival , govt. only give them lips service. Finally, this hard earned money is used for plundering, killing and raping spree. So, what actually we did for them?

Sujan

২০২০-১০-৩১ ০৯:৩৬:০৯

Now government is ready to give loan.that mine government give another chance to their supporters to looters more money

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

মতামত জানতে চার অ্যামিকাস কিউরি

কোনো মুসলিম হিন্দু নারীকে বিয়ে করতে পারে কিনা

৩ ডিসেম্বর ২০২০

পাকিস্তান হাইকমিশনারকে প্রধানমন্ত্রী

’৭১ সালের নৃশংসতা অমার্জনীয়

৩ ডিসেম্বর ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



DMCA.com Protection Status