প্রচারণায় নতুন কৌশল

অনিম আরাফাত

প্রথম পাতা ২৫ অক্টোবর ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৫৩

৩রা নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পূর্বে নতুন কৌশল হাতে নিয়েছে রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট শিবির। প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রামপ মনে করছেন, তিনি সর্বশেষ বিতর্কে ভালো করেছেন। ওভাল অফিসে সাংবাদিকদের কাছে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই তিনি এ কথা বলেছেন। রিপাবলিকান শিবির মনে করছে, কিছুটা পিছিয়ে পড়লেও নির্বাচনী বিতর্কে ট্রামেপর দারুণ ‘পারফরমেন্সেই’ আবারো এগিয়ে যাবে তারা। তবে ডেমোক্রেট শিবির হাতে নিয়েছে অন্য কৌশল। বিতর্কের জয়-পরাজয় নিয়ে না ভেবে তারা চলমান করোনাভাইরাস মহামারিতে ট্রামপ প্রশাসনের ব্যর্থতাকেই সামনে নিয়ে আসতে চাইছে। ডেমোক্রেটদের বিশ্বাস, মহামারিই মার্কিনি জনগণের কাছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই তারা মহামারিকে ঘিরেই তাদের নতুন কৌশল সাজাচ্ছে।

এর প্রমাণ দেখা গেছে, উইলমিংটনে বাইডেনের সর্বশেষ বক্তৃতায়ও।
এতে তিনি সর্বশেষ বিতর্কের কথা একেবারেই তুলেননি। সেখানে তিনি করোনা মহামারি মোকাবিলায় ট্রামেপর পদক্ষেপ নিয়ে কথা বলে যান। তিনি মার্কিন জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রামপ আর আপনাদের নিয়ে ভাবেন না।
নির্বাচন পূর্ববর্তী নির্ধারিত বিতর্ক এখন শেষ। দুই পক্ষের আর মুখোমুখি দাঁড়িয়ে নিজেদের নীতি নিয়ে বিতর্ক করার সুযোগ নেই। ফলে মার্কিন জনগণের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করার সুযোগও আর তেমন নেই বলতে গেলে। তারপরও স্বল্প এ সময়কে নিয়ে তাই শেষ কৌশল সাজাচ্ছে উভয় পক্ষ। চেষ্টা করছে সর্বশেষ প্রচারণাকে কাজে লাগিয়ে জনসমর্থন নিজেদের দিকে নিয়ে আসতে।

ট্রামপ আশা করছেন, সামনের দিনগুলোতে বেশ কয়েকটি বড় সমাবেশ ঘটিয়ে জনগণের সমর্থন নিজের দিকে নিয়ে আসবেন। বিতর্কে ট্রামপ যেসব পয়েন্ট নিয়ে বাইডেনকে আক্রমণ করেছেন তাও পাকাপোক্ত করবেন এই সব সমাবেশে। অর্থাৎ তার নয়া কৌশল হতে যাচ্ছে ওই বিতর্ক ঘিরেই। তবে এখন আর মাত্র ১০ দিন বাকি আছে নির্বাচনের। এরইমধ্যে ৫ কোটিরও বেশি মানুষ ভোট দিয়ে ফেলেছেন। জরিপের ফল অনুযায়ী পিছিয়ে আছে রিপাবলিকানরাই। বাইডেনের থেকে প্রচারণায় খরচও কম করতে হচ্ছে ট্রামপকে। আবার দেশটিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। সব মিলিয়ে একটা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে রিপাবলিকান শিবির।

সর্বশেষ বিতর্কে বাইডেনের জ্বালানি নীতি নিয়ে সরব ট্রামপ শিবির। সাবেক এই ভাইস প্রেসিডেন্ট দেশটির তেল শিল্প নিয়ে সেদিন যে মন্তব্য করেছিলেন তা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। ট্রামেপর প্রচারণা শিবিরের কৌশল নির্ধারণ করেন জ্যাসন মিলার। তিনি দাবি করেন, বাইডেনের ওই বক্তব্য ডেমোক্রেটদের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে। এমনকি পেনসিলভ্যানিয়াতে ডেমোক্রেটদের জয়ী হওয়ার শেষ সুযোগটাও এর মধ্য দিয়ে হারিয়েছেন তিনি। উল্লেখ্য, উভয় শিবির থেকেই পেনসিলভ্যানিয়ায় জয় খুব গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে ধরে নেয়া হচ্ছে। যদিও জরিপ বলছে সেখানে বাইডেনই এগিয়ে। ট্রামেপর এই উপদেষ্টা আরো মনে করেন, শুধু পেনসিলভ্যানিয়া নয়, বাইডেনের বক্তব্যের প্রভাব পড়বে মিশিগান, মিনেসোটা, ওহিও এবং উইসকনসিনসহ শিল্পোন্নত সকল প্রদেশেই। রিপাবলিকান আরেক সিনেটর কেন্দ্রা হর্নও বলেন, আমাদেরকে অবশ্যই আমাদের তেল ও গ্যাস কোমপানিগুলোকে বাঁচাতে হবে।

তবে বাইডেন সমর্থকরা এ দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। ওই মন্তব্যকে গেম-চেঞ্জার ভাবতে নারাজ তারা। ডেমোক্রেট শিবির থেকে জানানো হয়েছে, তারা তেল শিল্প বন্ধের কথা বোঝাননি। সানরাইজ মুভমেন্টের পলিটিক্যাল ডিরেক্টর ইভান ওয়েবার বলেন, জো বাইডেন যা বলেছেন তা ঠিকই আছে। আমাদেরকে অবশ্যই পরিবেশ বাঁচাতে এবং মানুষের মৃত্যু থামাতে জীবাশ্ম জ্বালানির বিকল্প খুঁজতে হবে। তবে বাইডেনের প্রচারণা শিবির এমন মন্তব্যের পরিণতি সমপর্কে আঁচ করতে পেরেছে। তারা এখন যা বুঝাতে চাইছে তা হলো- বাইডেন আসলে তেল ইন্ডাস্ট্রি বন্ধ করে দেয়ার কথা বুঝাননি। তিনি মূলত বলেছেন, তেলের ওপর যে ভর্তুকি রয়েছে তা তুলে নেয়া হবে। আটলান্টায় সিনেটর কমলা হ্যারিস বলেন, এটি সপষ্ট করে বলা দরকার জো বাইডেন মূলত ভর্তুকি বাতিলের কথা বলেছেন। এর আগে অনেক ডেমোক্রেটকেও বাইডেনের ওই মন্তব্যের সমালোচনা করতে দেখা যায়। তারা বলছেন, এই একটি বিষয়ে হলেও বাইডেনের সঙ্গে তারা একমত নন।

তবে বাইডেন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন আলোচনার দিক ঘুরিয়ে ট্রামেপর মহামারি মোকাবিলার দিকে নিতে। ট্রামপ তার পদক্ষেপকে সফল বলে আখ্যায়িত করায় তার সমালোচনা করছেন বাইডেন। তিনি বলেন, এটি যদি সফলতা হয় তাহলে ব্যর্থতা কি? এরপর তিনি মার্কিনিদের কাছে তুলে ধরেছেন তিনি প্রেসিডেন্ট হলে কীভাবে এই সংকট মোকাবিলা করবেন। এতে তিনি মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা, করোনা পরীক্ষা বৃদ্ধি এবং মানুষের জন্য সমানভাবে ভ্যাকসিন নিশ্চিতের কথা তুলে ধরেন। বাইডেন বলেন, হয়তো নিকট ভবিষ্যতেই আপনারা আপনাদের বন্ধু ও পরিবারের সঙ্গে বাইরে ডিনার করতে পারবেন কিংবা মুভি দেখতে যেতে পারবেন।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

শনাক্ত সাড়ে চার লাখ ছাড়ালো

মৃত্যু ঝুঁকিতেও হেঁয়ালিপনা

২৫ নভেম্বর ২০২০

বাইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিংকেন

তার পরিচয় তাদের পররাষ্ট্রনীতি

২৪ নভেম্বর ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

DMCA.com Protection Status