আলু কিনতে দীর্ঘ লাইন

আলতাফ হোসাইন

প্রথম পাতা ২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:১৬

পাইকারি বাজারে আলুর দাম কমানো হলেও খুচরা বাজারে এর কোনো প্রভাব নেই। এখনো আগের দামেই আলু বিক্রি করছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, পাইকারি ৩০ টাকায় কিনে ৩৫ টাকা বিক্রি করলে মুনাফা হচ্ছে না। বরং লসে পড়ার আশঙ্কা তাদের। কারণ হিসেবে তাদের দাবি, পাইকারি থেকে খুচরা বাজারে আলু নিয়ে আসতে যা খরচ হয় তাতে সরকার নির্ধারিত দরে আলু বিক্রি করলে লসের মধ্যে পড়তে হবে। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, বেশি মুনাফা লাভের আশায় তারা এই অজুহাতে আলুর দাম বেশি রাখছেন। ওদিকে খুচরা বাজারে দাম না কমায় টিসিবির ট্রাক থেকে ২৫ টাকা দরে আলু কিনতে ভিড় করছেন ক্রেতারা। সকাল থেকে বৃষ্টিতে ভিজে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে স্বল্প আয়ের মানুষদের আলু কিনতে দেখা গেছে।


রাজধানীর আড়তগুলোতে সরকারের নির্ধারণ করা ৩০ টাকা দরে আলু বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু কয়েকটি খুচরা বাজারে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, খুচরা পর্যায়ে আলুর কেজি ৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হলেও এখনো ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। কাওরান বাজারে পাইকারিতে ৩০ টাকা আর খুচরা বাজারে ১৮০ টাকা পাল্লা (৫ কেজি) অর্থাৎ ৩৬ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে শান্তিনগর বাজার, মালিবাগ, মগবাজারসহ খুচরা বাজারে মানভেদে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করতে দেখা গেছে খুচরা ব্যবসায়ীদের। দাম না কমায় বিশেষ করে স্বল্প আয়ের মানুষ সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবির ট্রাকসেলে ভিড় করছেন। গতকাল রাজধানীর শান্তিনগর, প্রেস ক্লাবের সামনে, খামারবাড়ি মোড়সহ কয়েকটি পয়েন্টে ২৫ টাকা কেজিতে আলু বিক্রি করেছে সরকারি টিসিবি। খামারবাড়ি মোড়ে গতকালের মতো সকাল থেকেই ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। ক্রেতারা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে আলু, পিয়াজসহ অন্যান্য পণ্যও এখান থেকে কিনেছেন। বৃষ্টিতে ভিজে লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন কুলসুম। তিনি বলেন, বাজারে আলু পিয়াজের দাম বেশি তাই এখান থেকে কিনছি। একটু কষ্ট হলেও একটু কম দামে তো কিনতে পারবো। কেজিতে ১০ টাকা কমে পাওয়া গেলে দুই কেজিতে আমার ২০ টাকা বাঁচলো। এটা আমগো মতো গরিবের জন্য অনেক।

গত বুধবার টিসিবি আলু বিক্রি শুরু করলেও এদিন অনেকে আলু না পেয়ে ফিরে গেছেন। তবে পরের দিন ভিড় ছিল বেশি। আগের দিন আলু না পেয়ে অনেকে ফিরে যাওয়ায় গতকাল আলুর পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। খামারবাড়ি মোড়ের ডিলার জানান, শুধু আলু নয় আমরা পিয়াজ ও চালসহ অন্যান্য পণ্যও বিক্রি করছি। তবে আলু ও পিয়াজের দাম বাড়ায় স্বল্প আয়ের মানুষেরা ট্রাকসেলে বেশি ভিড় করছে। এ ছাড়া রাজধানীর তোপখানা, শান্তিনগরসহ কয়েকটি এলাকায় আলু বিক্রি করেছে টিসিবি।

বাজারে আলুর দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে প্রথমে খুচরা পর্যায়ে আলুর কেজি ৩০ টাকা নির্ধারণ করে সরকার। এতে ব্যবসায়ীদের আপত্তি ও দাম না কমানোয় দ্বিতীয় দফায় গত মঙ্গলবার আলুর দাম আরো ৫ টাকা বাড়িয়ে ৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এ অবস্থায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে টিসিবি কর্তৃক ২৫ টাকা দরে আলু বিক্রির কথা জানান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। এদিকে গতকাল বাণিজ্যমন্ত্রী সচিবালয়ে বলেন, আগামী দু’তিনদিনের মধ্যে আলুর দাম খুচরা পর্যায়ে ৩৫ টাকায় আসবে। তিনি বলেন, আলুর দাম কোল্ড স্টোরেজে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা ছিল। সেটা আজ ২৮ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। যেটা ২৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। আমরা খুব আশাবাদী শিগগিরই নির্ধারিত দামে আলু বিক্রি হবে। আলুর বাজারদর এখনো অস্থির, সে বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আলুর দাম কমানোর চেষ্টা চলছে। এটা আমরা নিয়ন্ত্রণ করি না। এটা কৃষি মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রণ করে। আমরা ইচ্ছে করেই এসেছি যে টিসিবির মাধ্যমে ২৫ টাকা দরে বাজারে আলু ছেড়ে ভোক্তাদের সহযোগিতার জন্য। কৃষি মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নিয়েছে দামের বিষয়ে। গতকাল দাম কোল্ড স্টোরেজে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা ছিল। সেটা আজ ২৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যেটা ২৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। আমরা খুব আশাবাদী আগামী দু’তিনদিনের মধ্যে খুচরা পর্যায়ে আলুর দাম ৩৫ টাকায় চলে আসবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ভন্ড বাবা

২০২০-১০-২৪ ১১:৩৮:৩৭

ভালইতো। বাঙ্গালীরা যদি নিজে নিজেকে নিয়ন্ত্রন করতে পারত তাহলে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষের দাম স্বভাবিক থাকত।

Fazlu

২০২০-১০-২৩ ১৭:০৪:২১

নিজের বিপদ ডেকে আনার জন্য পৃথিবীতে এর চেয়ে বেশী সংবেদনশীল আর কোন জাতি আছে কিনা আমার জানা নেই। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে দাম বাড়ার কারণেই চাহিদাটা বেড়ে গেল। লবনের দাম বাড়ার কথা শুনে, যাদের মাসে এক প্যাকেট লবন লাগে তাদের একেকজন কিনেছেন ১০ম্প্যাকেট করে। যেই না পিয়াজের দাম বাড়ার কথা শুনল, অমনি বাজার থেকে বস্তাভর্তি পিয়াজ নিয়ে হাজির। ভোক্তার এই বোকামির সুযোগটা নিচ্ছে চতুর ব্যবসায়ীরা। যেহেতু বাজার নিয়ন্ত্রণের কেউ নেই অতএব তারা একেকবার একেকটা কৃত্রিম সংকট তৈরীর মাধ্যমে ব্যবসার নামে মুনাফাখোরী কারবার করছে।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

জীবনটাকে জুয়া হিসেবে খেলে গেলেন যিনি

২৭ নভেম্বর ২০২০

বিশ্বনন্দিত ফুটবল সাংবাদিক ব্রায়ান গ্ল্যানভিল লিখেছিলেন, দিয়েগো ম্যারাডোনা হলেন ফুটবলের সেই ছুরি যা দিয়ে মসৃণভাবে ...

আমরা তোমাকে ভুলবো না

২৭ নভেম্বর ২০২০

ইউনিক আইডি

কীভাবে হবে কারা করবে

২৭ নভেম্বর ২০২০

মৃত্যুর মিছিলে আরো ৩৭

২৭ নভেম্বর ২০২০

দেশে করোনার মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘই হচ্ছে। মৃত্যু তালিকায় নাম উঠেছে সাড়ে ৬ হাজারের বেশি। দেশে ...

২৭ জনের মৃত্যু

১০৪৭ গণমাধ্যমকর্মী আক্রান্ত

২৭ নভেম্বর ২০২০

টাকা উড়ছে শুধুই উড়ছে

২৬ নভেম্বর ২০২০

চাই অধিকতর গণতন্ত্র

২৬ নভেম্বর ২০২০

প্রথম-নবম ভর্তি লটারিতে

পেছাচ্ছে এসএসসি এইচএসসি

২৬ নভেম্বর ২০২০

কাস্টমস গেটে স্ক্যানার স্থাপন

প্রকল্প ব্যয় বেড়েছে ২০ ভাগ, বিলম্বের নেপথ্যে-

২৬ নভেম্বর ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত

DMCA.com Protection Status