বক্তব্য প্রত্যাহার ও ক্ষমা চাইতে অধ্যাপক জিয়াউর রহমানকে নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৪৩ | সর্বশেষ আপডেট: ২:০২

আসসালামু আলাইকুম ও আল্লাহ হাফেজ  মুসলিমদের শুদ্ধ উচ্চারণকে জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধতত্ত্ব বিভাগ শিক্ষক অধ্যাপক, জিয়াউর রহমানকে তার দেয়া বক্তব্য প্রত্যাহার ও ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে লিগ্যাল নেটিশ পাঠিয়েছেন মুহম্মদ মাহবুব আলম। নোটিশ পাওয়ার দুই দিনের মধ্যে টেলিভিশন অনুষ্ঠানে ধর্ম অবমাননাকর ও বেআইনি বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট দণ্ডবিধি  (পেনালকোড) অনুযায়ী মামলা করা হবে বলেও জানানো হয় নোটিশে।
বৃহস্পতিবার  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউর রহমানকে নোটিশটি পঠিয়েছেন মুহম্মদ মাহবুব আলমের পক্ষে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী মুহম্মদ শেখ ওমর শরীফ।

সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শেখ মুহম্মদ ওমর শরীফ  বলেন, সম্প্রতি “ডিবিসি নিউজ” টেলিভিশন চ্যানেলের “উপসংহার” নামক টক শো-তে “ধর্মের অপব্যাখ্যায় জঙ্গিবাদ” বিষয়ক আলোচনায় মুসলিমদের শুদ্ধ উচ্চারণে “আসসালামু আলাইকুম” বলা ও “আল্লাহ হাফেজ” বলাকে গর্হিত, নিন্দনীয়, জঘন্য ব্যাখ্যা করে এসবকে জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জিয়াউর রহমান।

কিন্তু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৪১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রত্যেক নাগরিকের যে কোন ধর্ম অবলম্বন, পালন বা প্রচারের অধিকার রয়েছে। “সালাম” আদান-প্রদান সহীহভাবে করা ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদাত। সালাম আদান-প্রদানের জন্য পবিত্র কুরআন শরীফ ও হাদীস শরীফে বহুবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশে  বলা হয়, মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ও মহানবী হুজুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-উনাদের প্রদত্ত নির্দেশ ও শিক্ষা অনুযায়ী শুদ্ধভাবে “সালাম” দেওয়াকে জিয়াউর রহমান অত্যন্ত গর্হিত, নিন্দনীয়, বেয়াদবিপূর্ণ ও জঘন্যভাবে জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত করেছে। এসব মন্তব্যের দ্বারা বাংলাদেশের মুসলিমদের শুদ্ধভাবে ধর্মীয় ইবাদাত পালনের মৌলিক অধিকারকে খর্ব করতে চেয়েছেন। এই ধরনের মন্তব্য ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক। আপনার মন্তব্যসমূহ মুসলিম নাগরিকদের ধর্মীয় অনুভূতি বা ধর্মীয় মূল্যবোধের উপর আঘাত করেছে।

নোটিশে আরো বলা হয়, “ডিবিসি নিউজ” টেলিভিশন চ্যানেলের “উপসংহার ” নামক টক শো-তে জিয়াউর রহমান ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক বক্তব্য প্রদান করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮-এর ২৮ ও ২৯ ধারায় অপরাধ করেছেন।।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Munir Hossain

২০২০-১০-২৩ ০৮:৪৯:৩৮

অনেক ভাই এই এই প্রফেসর কে ইহুদিদের দালাল বলেছে কিন্তু আমি তা মনে করি না কারণ ইহুদিরা এত নিম্নমানের দালাল নিয়োগ দেয় না। এই লোক একেবারে খুব বেশি হলে 71 টিভিতে আসা যাওয়া করে এমন কিছু নাস্তিক মুরতাদ দের দালালি করে। চাকরিতে কিছু প্রমশনের আশায়।

Rashid

২০২০-১০-২৩ ০৩:০৭:৪৫

মতামত প্রকাশে অপরাধ হয় না।

Mohiuddin Palash

২০২০-১০-২৩ ১৫:৩০:০২

এরা ইহুদিদের দালাল মুসলমানদের শত্রু।

Tuheen

২০২০-১০-২৩ ০১:৪১:৩০

So called Buddijibi

Dr. Md Abdur Rahman

২০২০-১০-২৩ ১৩:৩১:০২

Law should take its own course.

Arif

২০২০-১০-২৩ ০০:০১:৫০

অপরাধ তত্ত্ব নিয়ে গবেষণা করে ওনি এই তথ্য বের করেছেন। সালাম এবং আল্লাহ হাফেজ শব্দ জঙ্গিরা ব্যবহার করে।নেগেটিভ চিন্তা করতে করতে সব কিছুতে নেগটিভ দখেন ওনি।নেশাগ্রস্ত হয়ে টকশো করতে গেলে এমন কথা বলবে স্বাভাবিক।

nazrul

২০২০-১০-২৩ ১০:৫১:৫৮

এই নির্বোধ অপদার্থ টাকে শিক্ষকতা থেকে বহিষ্কার করা উচিত এবং জেলে ফেরন করা হউক

z Ahmed

২০২০-১০-২৩ ০৯:৫৯:৩৫

Is he a true, real muslim? Or a muslim by name? His contradictory, immoral and unconstitutional comments on Islamic greetings raise the question.

এ কে এম মহীউদ্দীন

২০২০-১০-২৩ ০৮:৪৬:৪১

এই লোকটি তো ভাল করে যুক্তিপূর্ণ চিন্তা করতেও শেখেনি। বিস্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হোল কেমন করে?

Fazlu

২০২০-১০-২৩ ০৭:০৫:২৮

প্রথমত: এই ভদ্রলোকের শিক্ষার মান যাচাইকল্পে একাডেমিক সনদ সমূহ পরীক্ষা করা যেতে পারে কারণ উনি সঠিক তথ্যকে বিকৃতভাবে ব্যাখ্যা করেছেন। অনেক সময় শিক্ষকতা করার যোগ্যতা নেই এমন অযোগ্য, অশিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত লোকজন রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় নয়তো জালিয়াতি করে কিংবা পিছন দরজা দিয়ে এইসব শিক্ষকতা পেশায় অনুপ্রবেশ করে। দ্বিতীয়তঃ ইসলামকে বিকৃত করার জন্য সে কোন বিদেশী এজেন্ট কিনা সেটা পরীক্ষা করতে গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করা যেতে পারে।

Mortuza H Choudhury

২০২০-১০-২২ ১৭:১০:৫৭

Should be punished if the published statement is true.

Munir Hossain

২০২০-১০-২২ ১৩:৩৯:৩৪

মুসলিম এর ঘরে জন্ম নিয়ে যারা ইসলামের বিরুদ্ধে এমন মন্তব্য করে তাদের ইবনে হারাম

জাফর আহমেদ

২০২০-১০-২২ ১১:৩৮:৩২

কিছু মানুষ লেখা পড়া করে কিন্তু শিক্ষিত হতে পারে না, তারা আবার খুঁটির জোর শিক্ষক ও হয়ে যায়, তাদের একজন এই লোকটি, এদের মূল উদ্দেশ্য দালালি করে পয়সা কামানো

Sumon

২০২০-১০-২২ ১০:২১:৪১

আলহামদুলিল্লাহ শুনে খুশি হয়েছি, এই ব্যাপারগুলো এভাবে ছেড়ে দেয়া আমাদের উচিত হবে না, ছেড়ে দিলে এগুলো আরো বাড়তে থাকবে প্রতিদিন। মুহম্মদ মাহবুব আলম ভাই কে আল্লাহ যেনো ভালো রাখেন, সুস্থ রাখেন, নেক হায়াত দান করেন। এবং এমন সবসময় অন্যায় এর প্রতিবাদ করার তৌফিক দান করেন। নিশ্চয় আল্লাহ আপনাকে এর ভালো প্রতিদান দিনে। ইনশাআল্লাহ ।

Hayder

২০২০-১০-২২ ২৩:০৬:১৯

ওরা থিউডোর হার্জেলের এজেন্ট

মোঃ আজিজুল হক

২০২০-১০-২২ ১০:০২:৪৩

এরা ইহুদিদের দালাল মুসলমানদের শত্রু।আর ৭১ টিভি,ডিভিসি টিভি এব্যাপারে এদের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে। এদের জাতীয় ভাবে বয়কট করতে হবে।

M.R. Islam

২০২০-১০-২২ ০৯:০৮:৪০

He should be punished as per the existing law.

Showkat Ali

২০২০-১০-২২ ০৯:০০:৩৬

নোটিশ প্রদানকারী আইনজীবীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

Shahin

২০২০-১০-২২ ০৮:৪৮:৪১

যে কোন ধর্ম পালন/বিশ্বাসের অধিকার সবার রয়েছে। তাই বলে অন্যের ধর্ম/বিশ্বাসের প্রতি অমর্যদা বা আঘাতের অধিকার কারো নেই। জিয়া ইসলামের প্রতি বিশ্বাস রাখা না রাখা তার ব্যপার। কিন্তু আমরা যে ধর্ম পালন করি বা বিশ্বাস করি সে বিষয়ে কথা বলার সে কোন স্যার। প্রয়োজন হলে সে নিজে সুয়োর বা খবিশ ভক্ষন করুক। তাতে আমাদের কিছু যায় আসে না।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা-

চলমান কাজ শেষ করার পর অন্য কাজ পাবে ঠিকাদার

২৪ নভেম্বর ২০২০

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন

‘লাভ জিহাদ’ নিয়ে ঐতিহাসিক রায়, দুই ধর্মের মানুষের বিয়েতে হস্তক্ষেপ নয়

২৪ নভেম্বর ২০২০

ফিরলেন সাকিব

২৪ নভেম্বর ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



বাংলাদেশ জার্নাল

দেখার কেউ নেই!

DMCA.com Protection Status