ভারতে বাণিজ্যিক সংস্থার পলিটিক্যাল ফান্ডিংয়ের আশি শতাংশই বিজেপির

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা

ভারত ১৬ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:০৩

যে রাজনৈতিক দল  ক্ষমতায় থাকে তারা বেশি রাজনৈতিক ফান্ডিং এর সুবিধাও পেয়ে থাকে৷  এটা প্রতিষ্ঠিত সত্য৷  কিন্তু  অ্যাসোসিয়েশন অফ ডেমোক্রেটিক রিফর্ম  দুহাজার আঠারো -  উনিশ সালের যে হিসেবটি দাখিল করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে পলিটিক্যাল ফান্ডিং এর আশি শতাংশই পেয়েছে ভারতে শাসক দল বিজেপি৷  টাটা এবং ভারতী এয়ারটেল  বিজেপির ফান্ড- এ সব থেকে বড় দাতা৷   তারা ওই বছর মোট পলিটিক্যাল ফান্ডিং করেছে চারশো পঞ্চান্ন কোটি পনেরো লক্ষ টাকার৷  বেশিরভাগটাই গেছে বিজেপির তহবিলে৷   হিরো মোটরকর্প,  জুবিল্লান্ট ফুড,  জেকে টায়ার্স,  জে এস ডব্লিউ সিমেন্ট,  ওরিয়েন্ট সিমেন্ট, ডি এল এফ এর প্রুডেন্ট ইলেক্টোরাল ট্রাস্ট মোট ফান্ডিং করেছে একশো দু কোটি পঁচিশ লক্ষ টাকার৷  এইভাবে কর্পোরেটদের নিয়ে গঠিত বেশ কিছু ট্রাস্ট পলিটিক্যাল ফান্ডিং করেছে৷   ভারতীয় রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে বিজেপি সাতশ বেয়াল্লিশ কোটি পনের লক্ষ টাকা পলিটিক্যাল ফান্ডিং নিয়ে শীর্ষে আছে৷ ভারতের জাতীয় কংগ্রেস পেয়েছে একশো আটচল্লিশ কোটি আটান্ন লক্ষ টাকা৷   তৃতীয় স্থানেই আছে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস৷ তাদের প্রাপ্তি  চুয়াল্লিশ কোটি ছাব্বিশ লক্ষ টাকা৷  চতুর্থ স্থানে  বারকোটি পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে এনসিপি৷   পঞ্চম স্থানে সিপিএম তিন কোটি তিনহাজার  টাকা নিয়ে৷ উল্লেখযোগ্য,  বিজেপি দুহাজার তেরো সাল থেকে উনিশ সাল পর্যন্ত মোট পলিটিক্যাল ফান্ডিং এর বিরাশি শতাংশই টেনে নিয়েছে৷

আপনার মতামত দিন

ভারত অন্যান্য খবর

ফের করোনার কালো ছায়া

মধ্য-উত্তরভারতে আংশিক লকডাউন, নাইট কারফিউ

২১ নভেম্বর ২০২০



ভারত সর্বাধিক পঠিত



এলাহাবাদ হাইকোর্টের যুগান্তকারী রায়

শুধুমাত্র বিয়ের প্রয়োজনে ধর্মান্তরকরণে আদালতের না

DMCA.com Protection Status