এমসি হোস্টেলে গণধর্ষণ

তারেক ও মাহফুজ ৫ দিনের রিমান্ডে

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে

দেশ বিদেশ ১ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

এমসি’র ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ঘটনার আসামি তারেক ও মাহফুজকে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। বুধবার সিলেটের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কাশেমের আদালতে হাজির করে পুলিশ তাদের ৭ দিনের রিমান্ড চায়। আদালত তাদের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ নিয়ে আলোচিত এ মামলায় ৮ আসামিকে পর্যায়ক্রমে রিমান্ডে নেয়া হলো। এখন পুলিশি  হেফাজতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সিলেটের র‌্যাব সদস্যরা মঙ্গলবার রাতে ছদ্মবেশে দিরাইয়ের হাওর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছিলেন আলোচিত এ মামলার দুই নম্বর আসামি তারেককে। র‌্যাব জানায়, ধর্ষণের ঘটনার পরপরই তারেক পালিয়ে যায়। সে তার দাড়ি গোঁফ ছেঁটে ফেলে।
এমনকি নিজেকে আড়াল করতে তারেক মাথার চুলও ফেলে দেয়। এ কারণে তাকে চিনাই যাচ্ছিলো না। অবশেষে র‌্যাব গোয়েন্দা সূত্রে খবর পেয়ে তাকে হাওরবেষ্টিত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছিলো। রাতে তারেককে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়া সর্বশেষ আসামি হিসেবে তারেককে গতকাল বিকালে সিলেটের আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য আসামির ৭ দিনের রিমান্ড জানান। আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় আদালতে বাদীর পক্ষে আইনজীবীরা উপস্থিত থাকলেও আসামির পক্ষে কোনো আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না। এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আদালতে হাজির করা হয় গ্রেপ্তার হওয়া আরেক আসামি মাহফুজুর রহমানকে। একই আদালতে পুলিশ তাদের ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানায়। আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আদালতে শুনানি শেষে বেরিয়ে এসে এসি প্রসিকিউশন অমূল্য কুমার চৌধুরী মানবজমিনকে জানিয়েছেন,  আদালত আসামি তারেক ও মাহফুজের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। এখন পর্যন্ত পুলিশ এ ঘটনায় ৮ জনকে রিমান্ডে নিয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এদিকে আদালতে শুনানি শেষে বেরিয়ে এসে এপিপি এডভোকেট মাহফুজুর রহমান জানিয়েছেন, আদালত বাদীপক্ষের বক্তব্য শুনেন। এরপর আসামিকে রিমান্ডে দেন। তিনি জানান, আদালতে আসামি পক্ষে আজও কোনো আইনজীবী দাঁড়াননি। এ নিয়ে গত তিনদিনেও এই মামলায় আসামির পক্ষে কোনো আইনজীবী দাঁড়ালেন না। এদিকে আদালতে রিমান্ড শুনানি শেষে আসামিদের কড়া নিরাপত্তায় সিলেটের আদালত থেকে শাহপরান থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আদালতে তোলার সময় তাদের পরনে হেলমেট ও বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ছিল। এদিকে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এটিএম ফয়েজ মানবজমিনকে জানিয়েছেন, ‘নির্যাতিতার পক্ষে যদি  কেউ আইনজীবী সমিতির সহযোগিতা চায় আমরা তাদের সব ধরনের আইনি সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত আছি। সিলেট জেলা বারের ঐতিহ্য রক্ষা করতে আমরা কাজ করছি। সিলেটে এ ধরনের ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেনি। গোটা আইনজীবী সমিতি ঘটনায় ধিক্কার ও নিন্দা জানাচ্ছে। এ কারণে এখন পর্যন্ত আদালতে কোনো আইনজীবী আসামিদের পক্ষে অবস্থানও নেননি।’ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ: সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণে জড়িত ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে দক্ষিণ সুরমা অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটি। বুধবার সকাল ১১টায় হুমায়ূন রশীদ চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের আহ্বায়ক ইকবাল হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শিক্ষানবিশ আইনজীবী মনির আহমদের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেনÑ যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুস ছত্তার মামুন, সাদিক খান, দিদার আহমদ, আনোয়ার আহমদ, সালাউদ্দিন মিরাজ, মোটর মেকানিক্স সিলেট জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, দক্ষিণ সুরমা মানবাধিকার কমিশন সদস্য শ্রী উজ্জ্বল রঞ্জন চন্দ, আ.ফ.ম সারওয়ার, মাহবুব আহমদ শাওন, নাজিম, আব্দুস সুবহান, দিদার আহমদ (২), রাব্বি আহমদ, শামিম আহমদ, মনসুর আহমদ, গিয়াস উদ্দিন, তানজিম আহমদ, দেওয়ান খালেদ আহমদ, ফরহাদ আহমদ, নাহিদ আহমদ প্রমুখ। এ ছাড়াও সর্র্বস্তরের ছাত্রসমাজ, রাজনৈতিক, সামাজিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ঘৃণ্য এসব অপরাধীর দ্রুত বিচার করে সিলেটবাসীকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে। এসব অপরাধীকে এমন শাস্তি দিতে হবে যাতে আর  কেউ এ ধরনের ঘৃণ্য অপরাধ করার সাহস না করে। বিশেষ করে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী এমসি কলেজে তরুণী ধর্ষণের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করে কলেজে নিরাপদ শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জোর দাবি জানান বক্তারা। এদিকে এমসি কলেজে ন্যক্কারজনক গণধর্ষণ, খাগড়াছড়ি ও সাভারে ধর্ষণ ও ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ, নিপীড়ন ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের ঘটনায় অভিযুক্ত সকল ধর্ষকের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি নিশ্চিতকরণের দাবিতে বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার যৌথ উদ্যোগে বুধবার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে দুপুর ১২টায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. ইমরান হোসেনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলার সভাপতি সজীব দেব। তারা ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। যারা অতি দ্রুত সিলেট এমসি কলেজের গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেছেন এবং দেশের অন্যান্য জায়গায় ঘটে যাওয়া ধর্ষণের অভিযুক্তদেরও গ্রেপ্তার করার জোর দাবি জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেনÑ সিলেট মহানগর বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদের সভাপতি আরিফুল হক জুয়েল, বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি তাপস সূত্রধর, সহ-সভাপতি তারেক মিয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাওন দাশ, সিলেট মহানগর আওয়ামী ছাত্র পরিষদের সহ-সভাপতি জীবন দেব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মাহিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ইমদাদ হোসেন প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

টাকা দিলেই মেলে নদীতে ইলিশ ধরার অনুমতি

২৪ অক্টোবর ২০২০

 নদীতে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ থাকলেও নৌপুলিশকে টাকা দিলেই মেঘনায় ইলিশ ধরার অনুমতি পাচ্ছেন জেলেরা। জেলেরা ...

ফ্রান্সের বহুতল সরকারি ভবনে বিতর্কিত সেই কার্টুুন প্রদর্শন

২৪ অক্টোবর ২০২০

শার্লি এবদোর যে কার্টুন নিয়ে এত বিতর্ক সেটিই এবার ফ্রান্সের সরকারি ভবনগুলোতে প্রদর্শন করা হচ্ছে। ...

মারা গেল সেই শিশুটি

২৩ অক্টোবর ২০২০

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পর কবরস্থানে বেঁচে ওঠা ৬ দিন বয়সী ...

সিলেটে রায়হান হত্যা

এসআই হাসান সাময়িক বরখাস্ত

২২ অক্টোবর ২০২০

এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করায় বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির বর্তমান ইনচার্জ, এসআই হাসান ...

শেখ রাসেলের জন্মদিনে আর্সেনিক অ্যালবাম ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ

২০ অক্টোবর ২০২০

শেখ রাসেল এর ৫৭ তম জন্মদিন উপলক্ষে শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের ৪র্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা ...

বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে জিপির ৩৫৫৬ কোটি টাকা রাজস্ব অর্জন

২০ অক্টোবর ২০২০

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) তিন হাজার ৫৫৬ কোটি টাকা রাজস্ব অর্জন করেছে গ্রামীণফোন, যা ...



দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত