ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ

বিক্ষোভে উত্তাল সিলেটের এমসি কলেজ (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ১:২৮ | সর্বশেষ আপডেট: ১:২৭

ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে মাঠে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে সিলেটের এমসি কলেজ ক্যাম্পাস। ন্যাক্কারজনক এ ঘটনার প্রতিবাদ ও অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিচার দাবিতে বিক্ষোভ করছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আজ শনিবার দুপুরে ক্যাম্পাস সংলগ্ন সিলেট-তামাবিল সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। এসময় তারা ধর্ষকদের বিচার দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন। অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড় এলাকার কলেজটির ছাত্রাবাসে এ ঘটনা ঘটে। ওই তরুণীকে ক্যাম্পাস থেকে তুলে ছাত্রাবাসে নিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।
এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহ পরান থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন- এমসি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ও ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনি (২৫), মাহফুজুর রহমান মাসুম (২৫), সাইফুর রহমান (২৮), রবিউল ইসলাম (২৫), অর্জুন লস্কর (২৫) ও তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮)। এদের মধ্যে অর্জুন ও তারেক (২৮) বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী বলে জানা গেছে। আসামিদের মধ্যে সাইফুরের বাড়ি বালাগঞ্জে, রবিউলের দিরাইয়ে, মাছুমের কানাইঘাটে, অর্জুনের জকিগঞ্জে, রনির হবিগঞ্জে এবং তারেকের বাড়ি সুনামগঞ্জে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

A ,R ,Sarker

২০২০-০৯-২৬ ০৭:৫৬:২০

Yeah ALLAH Aponi aei jatie / desh k dhongser hath thekh a bachan.

Islam

২০২০-০৯-২৬ ১৭:২৬:২৮

Although cross fire is not acceptable yet these beasts have to be killed through cross fire

Khokon

২০২০-০৯-২৬ ০৩:৩৮:৩৯

হাঁ, এটাকেই বলা যাবে ধর্ষণ এবং বর্বরতা ? কিন্তু কেন, এই ধর্ষণ এবং বর্বরতা ? স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণ এদের কি বিচার বর্তমান সরকার করবে না বা করার অঙ্গীকার করবে না ? যদি এরা সরকারের দলীয় কর্মী হোন, তাহলে কেনো তারা এসব কাজ করছেন যা মানুষকে বিভ্রান্ত করছে এবং বিচলিত হচ্ছেন ? জনগন সরকারের অধীনে বাস করছে, তাও সরকার যদি জনগন দ্বারা মনঃপূত না হয়, তবুও সরকারই একমাত্র সম্বল যে জনগণের মান, ইজ্জত ও সম্মান এর নির্চয়াওতার দিবে, আর যদি এটা না দিতে পারে সেটা যেমন সরকারের জন্য নিলজ্জের ব্যাপার তেমনি জনগণের জন্য ও নিলজ্জর ব্যাপার এ সরকারের অধীনে থাকা। সরকারের দলীয় কর্মীরা লুটতরাজ করছে, ব্যাংক থেকে টাকা নিচ্ছে, বিদেশে টাকা পাচার করছে, মা- বোনের ইজ্জত নিয়ে ছিনমিনি খেলছেন এটা মনে হয় ৭১ সালের পাকিস্তান বাহিনীর বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে ? এ বর্বরাতাওর জন্যই তো জনগন ওদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে দেশ স্বাধীন করেছে। তাহলে কি জনগন আবার ও সংগ্রামে নেমে সরকারকে উৎখাত করবে ?

M.J SUHAG

২০২০-০৯-২৬ ১৬:৩৭:২০

The administration should arrest them and crossfire directly in front of the public

Aftab Chowdhury

২০২০-০৯-২৬ ০১:৪২:১৬

এদেরকে ক্রসফায়ারে দিতে হবে ।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

রাজশাহী পলিটেকনিকের সেই অধ্যক্ষকে ঢাকায় বদলি

২০ অক্টোবর ২০২০

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দীন আহম্মেদকে ঢাকায় বদলি করা হয়েছে। গত ১৪ অক্টোবর কারিগরি ...

টাঙ্গাইলে কলেজ ছাত্রীকে গণধর্ষণ

২০ অক্টোবর ২০২০

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে এক কলেজ ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাতে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের কাগুজিআটা গ্রামে ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



বসনিয়ার জঙ্গলে বাংলাদেশিদের মানবেতর জীবন

বেঁচে থাকা দায়, তবুও দেশে ফিরতে নারাজ

রোহিঙ্গারা রাজি, বৈশ্বিক চাপ অগ্রাহ্য

ভাষানচরে স্থানান্তরের সিদ্ধান্তে অনড় ঢাকা