প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ পাচ্ছেন রীভা গাঙ্গুলী

কূটনৈতিক রিপোর্টার

অনলাইন ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:১২

অবশেষে অনিশ্চিয়তার ঘোর কেটেছে। প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদের বিদায়ী সাক্ষাৎ পাচ্ছেন দিল্লির বিদেশ মন্ত্রকে সচিব (পূর্ব এশিয়া)-এর দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাওয়া ভারতের হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ। আগামী ২৭শে সেপ্টেম্বর অপরাহ্নে রাষ্ট্র প্রধানের সঙ্গে তার সাক্ষাতের সূচী নির্ধারিত হয়েছে। কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, ওই দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পূর্ব নির্ধারিত বিদায়ী সাক্ষাতের পরপরই বঙ্গভবনে যাবেন ভারতীয় দূত। করোনাকালীন সতর্কতার জন্য আগের দিনে তার কেভিড-১৯ টেস্ট হবে। টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ হলে অল্প বিরতিতে রোববার রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ-বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। স্মরণ করা যায়, গত ১৬ই সেপ্টেম্বর প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাতের সূচী ছিল ভারতীয় দূতের। কিন্তু অনিবার্য কারণে চূড়ান্ত মুহুর্তে তা স্থগিত হয়ে যায়।
ফলে পরবর্তী শিডিউল নিয়ে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়। ১লা অক্টোবর ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তুতিতে থাকা ভারতের বিদায়ী হাই কমিশনার রীভা গত ক’দিন ধরে সরকার ও ক্ষমতাসীন দলের বিভিন্ন পর্যায়ে সিরিজ বৈঠক করছেন। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি এবং পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে বিদায়ী বৈঠক হয়েছে তার। অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে বৈঠক দু’টি অনুষ্ঠিত হয়েছে। উল্লেখ্য, ২৯শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের জয়েন্ট কনসালটেটিভ কমিশন জেসিসি’র ভার্চ্যুয়াল বৈঠক হতে যাচ্ছে। হাই কমিশনার হিসেবে এটাই হবে বাংলাদেশে প্রায় দেড় বছর দায়িত্ব পালনকারী রীভা গাঙ্গুলীর ঢাকার শেষ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ। অবশ্য পরদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নেয়ার কথা রয়েছে ভারতের বাংলাভাষী ওই দূতের।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

নিশিতা

২০২০-০৯-২৪ ২৩:১৮:২৭

মানুষকে তুচ্ছ আর অবহেলা করে পেঁয়াজ নিয়ে যে খেলা খেলে গেল তা এই দেশের মানুষ আজীবন মনে রাখবে।এখন আবার গোপন কি খেলা রেখে গেল তা দেখতে সময়ের অপেক্ষা মাত্র।

ankur

২০২০-০৯-২৫ ১২:১৩:১০

Just get lost, all Hindustanis! Leave us alone and we will leave you alone. So, no more onion or other big essential foodstuff imports from Hindustan, nor should we encourage Bangladeshis to visit Hindustan and keep her economy rolling.

নিশিতা

২০২০-০৯-২৪ ২২:৫৫:৩০

পেঁয়াজ নিয়ে যে খেলা খেলে গেল তা এই দেশের মানুষ সারা জীবন মনে রাখবে।আবার নতুন কি খেলা রেখে গেল আমাদের তুচ্ছ করবার জন্য সেটাই দেখার অপেক্ষা।

ash

২০২০-০৯-২৫ ০১:১০:১৩

JUST DOFFA HOW !! LEAVE BANGLADESH ALONEEEEEE

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



বসনিয়ার জঙ্গলে বাংলাদেশিদের মানবেতর জীবন

বেঁচে থাকা দায়, তবুও দেশে ফিরতে নারাজ