অত্যাধুনিক মৃতদেহ সংরক্ষণাগার চালু করলো হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:১৮

হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চালু হলো একত্রে ৪০টি মৃতদেহ ধারণ সম্পন্ন শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক মৃতদেহ সংরক্ষণাগার। এই মৃতদেহ সংরক্ষণাগারটি দেশের স্বাস্থ্যসেবায় নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে জানিয়েছেন রেড ক্রিসেন্ট কর্তৃপক্ষ। মৃত দেহের মর্যাদাপূর্ণ ও যথাযথ ব্যবস্থাপনাকে গুরুত্ব দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্যা রেডক্রস (আইসিআরসি) এর সহযোগিতায় নতুন এই মৃতদেহ সংরক্ষণাগার (হিমঘর) প্রস্তুত করা হয়েছে। রেড ক্রিসেন্ট জানায়, এই হিমঘরে একসাথে ৪০টি মৃতদেহ রাখা যাবে।
হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এই হিমঘর একটি ৪০ ফুট রেফ্রিজারেটেড স্টোরেজ কন্টেনার থেকে তৈরি হয়েছে। এখানে লাগানো হয়েছে উন্নত মানের স্টিলের ফ্রেম। ইউনিটটিতে দেহগুলো সার্বক্ষণিক ৪-৬ ডিগ্রী সেলসিয়াসে সংরক্ষণ করা হবে, যেন বাংলাদেশের আর্দ্র আবহাওয়ায় নষ্ট না হয়। এর ফলে প্রত্যেকের সুরক্ষা এবং মর্যাদা নিশ্চিত করে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এখন থেকে মরদেহ নিরাপদে সংরক্ষণ করতে পারবে। এছাড়াও মৃতদেহ শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত এই হিমাগারে মৃতদেহ নিরাপদ এবং ধর্মীয় মর্যাদার সাথে সংরক্ষণ করা হবে।
এছাড়াও, মৃত ব্যক্তির পরিবারও তাদের প্রিয়জনদের মরদেহ নিরাপদে সংরক্ষণ করার জন্য পর্যাপ্ত সময় পাবেন। এর ফলে জরুরী পরিস্থিতিতে মৃতদের দাফনে নিয়োজিত সংস্থাগুলোর উপর অর্পিত দায়িত্বের চাপও কমে আসবে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভবনে অনুষ্ঠিত মৃতদেহ রাখার স্থান (হিমঘর) এর উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার, এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান ও আইএফআরসির গভার্নিং বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ডা: মো: হাবিবে মিল্লাত, এমপি, সোসাইটির ট্রেজারার লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলাল, মি: পাবলো পের্চেলসি, আইসিআরসি বাংলাদেশ হেড অফ ডেলিগেশন ও হেনিং ক্রাউসে, আইসিআরসি বাংলাদেশ প্রটেকশন কোঅর্ডিনেটর। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব ও প্রাক্তন সচিব মো: ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক প্রফেসর ডা: মোহাম্মদ মোর্শেদ, ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্যা রেড ক্রস (আইসিআরসি) প্রতিনিধিগণ, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি জাতীয় সদর দপ্তর ও হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কর্মকর্তাগন।
এর আগে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্যা রেডক্রস (আইসিআরসি) এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব মো: ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন ও আইসিআরসি বাংলাদেশ হেড অফ ডেলেগেশন মি: পাবলো পের্চেলসি নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার বলেন, এই মৃতদেহ সংরক্ষণাগারটিতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়েছে। এখানে একত্রে ৪০টি মৃতদেহ রাখা যাবে। এটি হাসপাতালের নিয়ম মেনে সবাই ব্যবহার করতে পারবেন। এর ফলে সবশ্রেণীর মানুষ উপকৃত হবে। তিনি, এই মৃতদেহ সংরক্ষণাগার তৈরীতে সহযোগিতার জন্য আইসিআরসি বাংলাদেশস্থ প্রধানসহ সকলকে ধন্যবাদ জানান।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সোসাইটি দীর্ঘ ৫ মাস সরকারের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ শেষে গত রবিবার থেকে স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু করেছে। গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন আঙ্গিকে উন্নত সেবার ব্রত নিয়ে হাসপাতালের স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু করে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে সবধরনের রোগী এই হাসপাতালের ভর্তি, জরুরী ও বর্হিবিভাগে চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারবেন।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

মৃত্যু ৫৭০০ ছাড়ালো

একদিনে করোনায় প্রাণ গেলো ২৪ জনের, শনাক্ত ১৫৪৫

২১ অক্টোবর ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



বসনিয়ার জঙ্গলে বাংলাদেশিদের মানবেতর জীবন

বেঁচে থাকা দায়, তবুও দেশে ফিরতে নারাজ