মামুনকে অব্যাহতি তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার

শেষের পাতা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর করা ধর্ষণ মামলায় প্রধান অভিযুক্ত বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। গতকাল বিকালে সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটিতে রয়েছে, পরিষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি বিন ইয়ামিন ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমান এবং রাফিয়া সুলতানা। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ সব সময়ই ছাত্র তথা গণমানুষের যৌক্তিক ও ন্যায়সঙ্গত অধিকার আদায়ে সোচ্চার ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। নারীর প্রতি বৈষম্য, নারী নিপীড়ন ও নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ছাত্র অধিকার সব সময়ই সোচ্চার ভূমিকা পালন করে আসছে। তাই সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সত্যতা নিরূপণে এবং সুষ্ঠু ও ন্যায়বিচারের স্বার্থে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
একই সঙ্গে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের স্বার্থে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে সাময়িকভাবে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হলো। উল্লেখ্য, গত রোববার ও সোমবার রাজধানীর লালবাগ ও কোতোয়ালি থানায় ধর্ষণ, অপহরণ ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছাত্র অধিকার পরিষদের ৬ নেতার বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। ধর্ষণ মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয় হাসান আল মামুনকে। আর অপহরণ ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় প্রধান আসামি নাজমুল হাসান। আর ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরকে দুটি মামলায় তিন নম্বর আসামি করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হাসান, মো. সাইফুল ইসলাম, মো. নাজমুল হুদা ও মো. আবদুল্লাহ হিল বাকী। এদিকে মামলার প্রতিবাদে করা ছাত্র অধিকার পরিষদের বিক্ষোভ থেকে গত রোববার রাতে ভিপি নুরসহ ৭ জনকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। ৪ ঘণ্টার নানা নাটকীয়তা শেষে তাদের মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।
ধর্ষকের শাস্তি দাবি ভুক্তভোগীর সহপাঠীদের: এদিকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী ছাত্রীর সহপাঠীরা। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে তারা এ মানববন্ধন করেন। মানববন্ধন থেকে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা অবিলম্বে হাসান আল মামুনসহ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান। অন্যথায় বড় ধরনের কর্মসূচি দেয়ার ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

তাজরীনে আগুনের ৮ বছর

১০৪ সাক্ষীর মধ্যে সাক্ষ্য হয়েছে মাত্র ৮ জনের

২৯ নভেম্বর ২০২০

রোহিঙ্গা গণহত্যায় গাম্বিয়ার মামলা

ওআইসি তহবিলে ৫ লাখ ডলার দিলো বাংলাদেশ

২৯ নভেম্বর ২০২০

শেয়ার বাজারে আশার আলো

২৯ নভেম্বর ২০২০

২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ঘোষণা

২৯ নভেম্বর ২০২০

আসছে ২৮শে ডিসেম্বর ২৫ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত ...



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



রোহিঙ্গা গণহত্যায় গাম্বিয়ার মামলা

ওআইসি তহবিলে ৫ লাখ ডলার দিলো বাংলাদেশ

DMCA.com Protection Status