বাংলাদেশ দলের শ্রীলঙ্কা সফর

আশাবাদী হলেও বিকল্প ভাবনা বিসিবি’র

স্পোর্টস রিপোর্টার

খেলা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

যত দিন যাচ্ছে ততই ক্ষীণ হয়ে আসছে শ্রীলঙ্কা সফরের সম্ভাবনা। গত ১৪ই সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন স্পষ্ট করে জানিয়েছিলেন, কোয়ারেন্টিন নিয়ে কঠিন শর্তে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে না বাংলাদেশ দল। এরপর থেকেই শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সঙ্গে আলোচনা করে আসছে। কিন্তু গতকাল পর্যন্ত এসএলসি কোনো ধরনের নিশ্চিয়তা দিতে পারেনি বিসিবিকে। তাই প্রশ্ন হচ্ছে শ্রীলঙ্কা সফর শেষ পর্যন্ত না হলে কী হবে! বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন জানিয়েছেন, তারা ভেবে রেখেছেন বিকল্প। ঘরোয়া ক্রিকেটই আয়োজন করবেন তারা। গতকাল সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমাদের কিছু অভ্যন্তরীণ পরিকল্পনা অবশ্যই আছে। এই সিরিজ যদি কন্টিনিউ না করি সেক্ষেত্রে আমাদের অন্য প্ল্যান আছে।
প্লেয়ারদের অনুশীলনটা আমরা কন্টিনিউ রাখবো এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসার আগ পর্যন্ত। আমাদের অনুশীলন বা অন্যান্য যে বিষয়গুলো যেভাবে চলছে সেগুলো কন্টিনিউ করবো। এরপর সিরিজ সংক্রান্ত কোনো সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে, কোনো প্লানে পরিবর্তন এলে তা করবো। এই সিরিজটা যদি আয়োজনও হয় এরপরও আমাদের প্ল্যান আছে ঘরোয়া লীগ নিয়ে।’

শ্রীলঙ্কায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন না করার বিসিবির যে সিদ্বান্ত, সেখানে বিসিবি অনড় বলেই জানিয়েছেন নিজামুদ্দিন চেীধুরী। তিনি বলেন, ‘এরই মধ্যে বোর্ড সভাপতি আপনাদের (মিডিয়া) মাধ্যমে আমাদের অবস্থানটা পরিষ্কার করেছেন। পরবর্তীতে আমরা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সাথে যোগাযোগ চালিয়ে যাই, তারা যে হেলথ গাইডলাইন পাঠিয়েছিল সেখানে কিছু রেস্ট্রিকশন ছিল, সেগুলো তারা যদি কন্টিনিউ করে তাহলে আমাদের জন্য কঠিন হয়ে যাবে ট্যুরটা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এ বিষয়ে আমাদের মধ্যে যোগাযোগ হয়েছে। সর্বশেষ যে পরিস্থিতি সেটা হচ্ছে আমরা নির্দিষ্ট কিছু বিষয় জানিয়েছি তাদের। তারা (এসএলসি) বলেছে তাদের যে কোভিড-১৯ টাস্ক ফোর্স আছে বা অন্য যে অথরিটি আছে তাদের সাথে কথা বলে যে হেলথ গাইডলাইন তা কতটুকু শিথিল করা যায় সেটা নিয়ে কাজ করছে। আশা করছি খুব দ্রুতই তারা এ বিষয়ে আমাদের জানাবে।’

পিছিয়ে যেতে পারে সিরিজ
বাংলাদেশ দলের শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার কথা আগামী ২৭শে সেপ্টেম্বর। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা পিছিয়ে যাচ্ছে বলেই জানিয়েছেন বিসিবির সিইও। সেটি হলে সিরিজের সূচিও পেছাবে। খসড়া সূচি অনুযায়ী আগামী ২৩শে অক্টোবর শুরু হওয়ার কথা সিরিজের প্রথম টেস্ট। সেটিও পিছাতে পারে। এমনকি সিরিজে ম্যাচের সংখ্যা তিন থেকে কমে দুই হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে। সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এখন পর্যন্ত যেহেতু আমরা কিছু পাইনি, যদিও সিরিজ হবে ধরেই আমাদের প্রস্তুতির সবকিছু এগোচ্ছে। তবে এই মুহূর্তে বিষয়টি একটু চ্যালেঞ্জিং হবে ২৭ তারিখে ভ্রমণ করা। ভিসা ও অন্যান্য জটিলতা রয়েছেই। সেক্ষেত্রে কোনো এডজাস্টমেন্টের প্রয়োজন হলে আমরা করে নিব।’

অন্যদিকে সিরিজটি শেষ পর্যন্ত বাতিল বা স্থগিত হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। যদিও বিসিবির সিইও বলেন, টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপ বলেই দুই দেশের বোর্ড এই সিরিজ আয়োজনে আশায় আছে। তিনি বলেন, ‘যেহেতু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ও বিসিবি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজটি আয়োজনের ব্যাপারে কমিটেড যে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে আমরা অংশ নিব এবং এটা আমরা এগিয়ে নিতে চাই। সেক্ষেত্রে আমাদের দুই বোর্ডেরই চেষ্টা চলছে সিরিজটি আয়োজনের ব্যাপারে। আমি আবারও বলছি কোনো এডজাস্টের প্রয়োজন হলে আমরা করবো। সে ব্যাপারে আমাদের প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে। সেক্ষেত্রে আমরা চেষ্টা করছি দ্রুত শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট আমাদের ফিডব্যাকটা যেন দেয়।’

তবে বিসিবি শুধু লঙ্কান বোর্ডের দিকে তাকিয়ে নেই। বিসিবি সিইও বলেন, ‘পুরো বিষয়টি কিন্তু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের উপর নির্ভর করছে না। তাদের সরকার ও কোভিড-১৯ টাস্ক ফোর্সের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে। আমরা যতটা জেনেছি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট তাদের সাথে যোগাযোগ করেছে, বোঝানোর চেষ্টা করছে আমাদের অবস্থান নিয়ে।’

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর

বৃষ্টির চোখ রাঙানিতে শিরোপার লড়াই

তরুণ নাজমুল নাকি অভিজ্ঞ মাহমুদুল্লাহ

২৫ অক্টোবর ২০২০



খেলা সর্বাধিক পঠিত