কলকাতা কথকতা

ভারত- বাংলাদেশ সীমান্তে ২ ভারতীয় আটক

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা

কলকাতা কথকতা ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৩

মাদক নিয়ে ভারত - বাংলাদেশ সীমান্ত পারাপার করতে গিয়ে প্রায়ই গ্রেপ্তার হয় চোরাচালানকারীরা। এবার গ্রেপ্তার হল দুই ভারতীয়। উত্তর চব্বিশ পরগনার হাকিমপুর সীমান্তের কাছে এদের গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতদের কাছে পঞ্চাশটি মেমফেটামাইন ট্যাবলেট ছাড়াও উদ্ধার হয়েছে ভারত ও বাংলাদেশের মানচিত্র। বিএসএফের একশো বারো নম্বর ব্যাটালিয়ান জানাচ্ছে, এর আগে বহু ড্রাগ চোরাচালানি ধরা পড়লেও কারও কাছ থেকেই আগে মানচিত্র পাওয়া যায়নি। তাই, ধৃত সাতাশ বছরের রুহুল শেখ এবং আটত্রিশ বছরের ফারুখ মোল্লাকে ভারতের ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেটিং এজেন্সির হাতে তুলে দেয়া হবে। দুজনের বাড়ি উত্তর চব্বিশ পরগনার স্বরুপনগরের পৈতা ও নির্মাণ গ্রামে। হাকিমপুরের একটি মিষ্টির দোকানের বাইরে থেকে এই দুজনকে গ্রেপ্তার করে বিএসএফ।
একটি মোটরবাইকও বাজেয়াপ্ত করা হয়। দুজনের কাছে যে ফেটামাইন গ্রুপের ড্রাগ পাওয়া গেছে তা যৌন বলবর্ধক। এই ধরনের ড্রাগের চাহিদা বাংলাদেশে প্রবল।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

abdus saam

২০২০-০৯-২১ ১৫:০৩:৩৮

মানচিত্র থাকার উদ্দেশ্য কি?

shiblik

২০২০-০৯-২১ ১৩:৩২:৫১

দেশি ধরলে অনুশন্ধান/বিচার হয় আর ভারতীয় ধরলে হস্তান্তর করা হয়। আমাদের সালাহউদ্দিন সাহেব এখন কোথায়?

Jalal

২০২০-০৯-২০ ২৩:৪২:২৮

আর কতো ধষন হবে এই দেশ গুপ্তচর দরার পরে সেই দেশকে দেওয়া হচ্ছে

Kazi

২০২০-০৯-২০ ২২:৫৬:৩১

কানাডা বা উন্নত দেশে যৌন উত্তেজক তো নিষিদ্ধ নয়। স্বামী - স্ত্রীর সংসার রক্ষা করতে প্রয়োজনে স্বামী এই ঔষধ সেবন করে। ডাক্তার প্রেসক্রিপশন দেন। বাংলাদেশে এই ড্রাগ (ঔষধ) ডাক্তারের প্রেসক্রিপশনে ফার্মেসীর অধীন বিক্রির অনুমোদন দিলে সংসার ভাঙ্গা রক্ষা হবে।

আপনার মতামত দিন

কলকাতা কথকতা অন্যান্য খবর

কলকাতা কথকতা

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আরও সঙ্কটজনক

১২ অক্টোবর ২০২০



কলকাতা কথকতা সর্বাধিক পঠিত