বিবিসির রিপোর্ট

করোনা: আক্রান্ত ৩ কোটির বেশি, মৃত ৯ লাখ ৪০ হাজার, আজ থেকে ইসরাইলে দ্বিতীয় লকডাউন

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০১

জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটির হিসাবে বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ছাড়িয়ে গেছে। এতে মারা গেছেন কমপক্ষে ৯ লাখ ৪০ হাজার মানুষ। এর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্র, ভারত ও ব্রাজিলের। তবে নতুন করে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে ইউরোপজুড়ে। উত্তর গোলার্ধের এসব দেশের অনেকেই এখন দ্বিতীয় দফা সংক্রমণ মোকাবিলা করছে। বৃটিশ সরকার ইংল্যান্ডজুড়ে আরো বিধিনিষেধ আরোপের কথা বিবেচনা করছে। ইউরোপের বাইরে, আজ শুক্রবার দিনের আরো পরে দ্বিতীয় দফায় পুরো ইসরাইলে লকডাউন দেয়া হচ্ছে। উন্নত কোনো দেশে এমনটা এই প্রথম।
এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

আক্রান্ত ও মৃতের দিক দিয়ে এখনও শীর্ষে অবস্থান করছে যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে আক্রান্ত হয়েছে কমপক্ষে ৬৬ লাখ মানুষ। মারা গেছেন এক লাখ ৯৭ হাজারের বেশি। তবে জুলাইয়ে যখন পিক সময় ছিল তখনকার চেয়ে প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। এ সপ্তাহের শুরুর দিকে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প করোনা ভাইরাসের গুরুত্বকে অবহেলা করার কথা অস্বীকার করেছেন, যদিও তিনি রেকর্ড করা সাক্ষাতকারে অবহেলার কথা স্বীকার করেছেন। ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা এ সপ্তাহে ছাড়িয়ে গেছে ৫০ লাখ।

বিশ্বে আক্রান্তের দিক দিয়ে ভারত এখন দ্বিতীয়। অন্য যেকোনো দেশের তুলনায় অতি দ্রুতগতিতে ভারতে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। সম্প্রতি প্রতিদিন সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজারে পৌঁছেছে। এখানে মারা গেছেন কমপক্ষে ৮০ হাজার মানুষ। দেখা দিয়েছে আইসিইউ এবং অক্সিজেন সরবরাহের মারাত্মক সঙ্কট।

ব্রাজিলে আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে ৪৪ লাখ মানুষ। এর মধ্যে মারা গেছেন কমপক্ষে এক লাখ ৩৪ হাজার। যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃতের দিক দিয়ে ব্রাজিল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জায়ের বলসোনারো করোনা ভাইরাসকে গুরুত্ব না দেয়ার কারণে তার বিরুদ্ধে রয়েছে কড়া সমালোচনা। বিশেষ করে লকডাউন বিরোধী একটি র‌্যালিতে যোগ দিয়ে তিনি বেশি সমালোচিত হচ্ছেন। উগ্র ডানপন্থি এই নেতা করোনা ভাইরাসকে ‘লিটল ফ্লু’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। তবে জুলাইয়ে নিজেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন। ওদিকে করোনা ভাইরাস জোর হানা দিয়েছে আর্জেন্টিনা ও মেক্সিকোতে। আর্জেন্টিনা বৃহস্পতিবার ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১৩ হাজার মানুষ। এ নিয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ছাড়িয়ে গেল। ওদিকে মেক্সিকোতে প্রতিদিন ৩ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। এতে সব মিলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৮০ হাজার।

ইউরোপ পরিস্থিতি
এ সপ্তাহে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক পরিচালক হ্যান্স ক্লুগ করোনা ভাইরাসের বিস্তারকে ইউরোপের জন্য ‘ওয়েক-আপ কল’ বা জেগে উঠার আহ্বান বলে আখ্যায়িত করেছেন। বৃহস্পতিবার তিনি হোপেনহেগেনে বক্তব্য রাখছিলেন। সেখানে তিনি বলেন, গত দুই সপ্তাহে ইউরোপের অর্ধেকের বেশি দেশে করোনা সংক্রমণ দ্বিগুন হয়েছে। তিনি আরো জানান, শুধু গত এক সপ্তাহে ইউরোপে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ মানুষ। মার্চে যখন পিক সময় ছিল তার চেয়ে সাপ্তাহিক হিসেবে এই সংখ্যা বেশি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, করোনা মহামারি শুরুর পর ইউরোপে আক্রান্তের মোট সংখ্যা ৫০ লাখ। আর মারা গেছেন ২ লাখ ২৮ হাজার মানুষ।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২০-০৯-১৭ ২১:০২:১২

Whoever ruler is neglecting, his country is suffering.

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

রয়টার্সের প্রতিবেদন

করোনার আঘাতে এশিয়ায় দ্বিতীয় ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ

২৪ অক্টোবর ২০২০

আল জাজিরার প্রতিবেদন

গ্রে লিস্টেই থাকবে পাকিস্তান

২৪ অক্টোবর ২০২০

ট্রাম্পের ঘোষণা

ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করছে সুদান

২৪ অক্টোবর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



বিচারপতি ব্যারেটকে অনুমোদন

ট্রাম্পের উল্লাস, ডেমোক্রেটদের বয়কট

আল জাজিরার প্রতিবেদন

গ্রে লিস্টেই থাকবে পাকিস্তান