চীনের দুই অ্যাপ ব্লক করেছে ভারত

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ৪ আগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৭

চীনের দুটি অ্যাপ বাইদু সার্স এবং ওয়েইবো’কে ব্লক করে দিয়েছে ভারত। গুগল সার্স এবং টুইটারের পরিবর্তে ভারতে প্রভাবশালী হয়ে উঠেছিল যথাক্রমে বাইদু সার্স এবং ওয়েইবো। এর প্রভাবও বৃদ্ধি পেয়েছিল। এসব অ্যাপ নিষিদ্ধ করার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, এর মাধ্যমে ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখন্ডতাকে বিপন্ন করা হচ্ছে। ভারতের প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা ও জনশৃংখলা নষ্ট করা হচ্ছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।
সিনা করপোরেশন ২০০৯ সালে চালু করে ওয়েইবো। এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে তাদের নিবন্ধিত ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫০ কোটির ওপরে। চীন সফরের আগে ২০১৫ সালে এই ক্ষুদ্রবার্তার ওয়েবসাইটে একটি একাউন্ট খোলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং এর মধ্য দিয়ে তিনি হয়ে ওঠেন ভারতে ওয়েইবোর অন্যতম তারকা ব্যবহারকারী।
এই সাইটে নরেন্দ্র মোদির রয়েছে শতাধিক পোস্ট। আর অনুসরণকারীর সংখ্যা দুই লক্ষাধিক। তিনি তার উদ্বোধনী বার্তায় লিখেছিলেন, হ্যালো চায়না! ওয়েইবোর মাধ্যমে চাইনিজদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতে চাই।
তবে বাইদু সার্স ভারতে যা করছিল তা হলো ‘টেস্টিং ওয়াটার’। তাদের উল্লেখযোগ্য প্রডাক্টের অন্যতম হলো ফেসমোজি কীবোর্ড। তারা ভারতে তাদের সংযুক্তি বৃদ্ধি করতে চেয়েছিল। এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রবিন লি এ নিয়েই কথা বলেছিলেন। তিনি এ বছর জানুয়ারিতে আইআইটি-মাদ্রাজ ক্যাম্পাস সফরে এসেছিলেন।
এই দুটি অ্যাপই চীনের ইন্টারনেট প্রোডাক্টগুলোর মধ্যে উল্লেখ করার মতো। তাদেরকে গুগল এবং অ্যাপল স্টোর থেকে এই দুটি অ্যাপ সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে। তবে এরই মধ্যে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারস (আইপিএস) কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে তাদেরকে ব্লক করে দিতে। সরকারি এক সূত্র বলেছেন, ভারত সরকার ২৭ শে জুলাই নতুন ৪৭টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে চীনের ওই দুটি অ্যাপ। আরো অ্যাপ ব্লক করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারে ভারত সরকার। প্রাথমিকভাবে ২৯ শে জুন ৫৯টি গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে রয়েছে টিকটক, ইউসি ব্রাউজার, হ্যালো, লাইকি, শেয়ারইট, মি কমিউনিটি, উইচ্যাট এবং ক্যামস্ক্যানার। তবে সরকার সম্পূরক তালিকায় ৪৭টি অ্যাপ যুক্ত করে। তবে এবার তালিকার সবার নাম প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকে কর্তৃপক্ষ। দ্বিতীয় সিদ্ধান্তে যেসব অ্যাপ রয়েছে তার মধ্যে রয়েছে কিছু ক্লোন অ্যাপ ও মূল অ্যাপের কিছু সংস্করণ। এর মধ্যে রয়েছে টিকটক লাইট, লাইকি লাইট, বিগো লাইভ লাইট, শেয়ারইট লাইট, ক্যামস্ক্যানার এইচডি।
ভারত সফরকালে বাইদুর লি বলেছিলেন, তার কোম্পানি ভারতের প্রযুক্তি বিষয়ক ইনস্টিটিউটের সঙ্গে কাজ করতে চায়, বিশেষ করে কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তা ও মোবাইল কমপিউটিংয়ের ক্ষেত্রে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

নেপাল টাইমসের খবর

টিকা কিনতে রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি, জানেনা নেপালের সরকার

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

সিএনএনের রিপোর্ট

ভারতে ৬ কোটিরও বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত!

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের রিপোর্ট

মডার্না’র টিকা নিরাপদ, ভাল কাজ করছে

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ডেইলি মেইলের রিপোর্ট

জেলখানায় খুনির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আদালতে পর্নো তারকা, কিন্তু...

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ডেইলি মেইলের রিপোর্ট

৮ ঘন্টা পর সমুদ্র থেকে উদ্ধার এক নির্যাতিত নারী (ভিডিও)

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আল জাজিরার রিপোর্ট

‘রাশিয়ার টিকা নিরাপদ ও কার্যকর’

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত