পঞ্চগড় ও হাটহাজারীতে ২২৪ বস্তা চাল জব্দ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

এক্সক্লুসিভ ২৯ জুলাই ২০২০, বুধবার

৩০ কেজি ওজনের ২৯ বস্তা ভিজিএফ’র চাল জব্দ করা হয়েছে। গত সোমবার সন্ধ্যায় পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের তালমা বাজার সংলগ্ন দু’টি গুদাম থেকে প্রশাসন চালগুলো জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের হেফাজতে রেখেছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজন চালগুলো আটক করে খবর দিলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে চালগুলো জব্দ করেন। এ সময়  সেখান থেকে দুইজন ব্যবসায়ী ও ভ্যানচালককে আটক করা হয়। পরে মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ঈদ উপলক্ষে সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গরিব ও দুস্থ মানুষের মধ্যে খাদ্য সহায়তা হিসেবে ৩ হাজার ৪শ’ জনের প্রতিজনকে ১০ কেজি করে ভিজিএফ’র চাল বিতরণের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়। বিতরণের কিছুক্ষণ পরেই হাফিজাবাদ ইউনিয়নের তালমা বাজার সংলগ্ন মোজাম্মেল হাজীর গুদামে চাল ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম ও আব্দুর রহমান এসব চাল নিয়ে গিয়ে সরকারি বস্তা থেকে সাধারণ বস্তায় চালগুলো স্থানান্তর করছিলেন।
বিষয়টি স্থানীয়রা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফ হোসেনকে জানায়। খবর পেয়ে নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ হোসেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলামসহ পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। সেখানে গিয়ে তারা মোজাম্মেল হাজী ও আব্দুর রহিমের গুদাম থেকে ভিজিএফ’র সরকারি বস্তাসহ ২৯ বস্তা চাল উদ্ধার করেন। এ সময় প্রশাসন চাল ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম, আব্দুর রহমান ও ভ্যানচালক আবু ফজলকে আটক করে। পরবর্তীতে মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে হাফিজাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মুছা কলিমুল্লাহ বলেন, আমার ইউনিয়নের ৩ হাজার ৪শ’ লোকের মাঝে ঈদ উপলক্ষে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করেছি। প্রতি তিন জনের জন্য ৩০ কেজির একটি করে বস্তা বিতরণ করা হয়। বাইরে এই চাল কীভাবে পাওয়া গেল আমি জানি না। জব্দকৃত চাল আমার হেফাজতে রাখা হয়েছে। পঞ্চগড় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফ হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’টি গুদাম থেকে ২৯ বস্তা চাল জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের  চেয়ারম্যানের হেফাজতে রাখা হয়েছে। চাল ব্যবসায়ীরা উপকারভোগীদের কাছ থেকে চাল কিনে নিয়েছেন বলে জানিয়েছে। আমরা এ ঘটনায় সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আমিনুল ইসলামকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের আলোকে পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি জানান, চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় খাদ্য অধিদপ্তরের সিল দেয়া ১৯৫ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে হাটহাজারী মডেল থানা পুলিশ। গতকাল দুপুরে উপজেলার চৌধুরীহাটের পশ্চিমে চসিক ১নং দক্ষিণ পাহাড়তলী ঠান্ডাছড়ি এলাকা থেকে এই চাল উদ্বার করা হয়। এ ঘটনায় নেজাম উদ্দিন (ট্রাক ড্রাইভার) ও মো. রাসেল এই দুই জনের নাম পুলিশ সূত্রে জানা যায়। তারা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় অভিযান পরিচালনাকারী হাটহাজারী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক এসআই ইউনুস মিয়া মানবজমিন কে জানান, উপজেলার চৌধুরীহাটের ঠান্ডাছড়ি এলাকায় সরকারি চাল অবৈধভাবে বিক্রি করার সময় চালের বস্তায় খাদ্য অধিদপ্তরের সিল থাকাতে স্থানীয় এলাকাবাসীর মনে সন্দেহ জাগে। বিষয়টি আমরা জানতে পেরে থানার ওসি স্যারের নেতৃত্বে উক্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে এক ট্রাক ১৯৫বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার করি। ওই ট্রাকের নং ( চট্টমেট্রো-ট ১৪-২৪৫৩)। ট্রাকটি জব্দ করা হয়। হাটহাজারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুদ আলম ১৯৫ চাল উদ্ধারের কথা স্বীকার করে মানবজমিনকে বলেন, চৌধুরীহাট ঠান্ডাছড়ি এলাকা থেকে এক ট্রাক সরকারি চাল উদ্ধার করা হয়। চালের বস্তায় ‘শেখ হাসনিার বাংলাদেশ, ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ, খাদ্য অধিদপ্তর’ সিল সম্বলিত লেখা রয়েছে। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি। অবৈধভাবে পাচার উদ্দেশ্যে সরকারি চাল মজুদের দায়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

বৈরুত ট্র্যাজেডি

রাশেদের লাশ ছুঁয়ে দেখতে মায়ের আকুতি

১২ আগস্ট ২০২০

পরিবহন খাতে শীর্ষ নাম শ্যামলী

একটি টেম্পো দিয়ে শুরু

১০ আগস্ট ২০২০

মহাসড়কের পাশে বানভাসিরা

‘কহন যেন ছাপড়ার উপর গাড়ি উইঠ্যা পড়ে’

২৯ জুলাই ২০২০

বিজয়নগরে বেহাল সড়ক

২৯ জুলাই ২০২০



এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত