দুই কুয়েতি এমপিকে ১৬ কোটি টাকা ঘুষ দিয়েছিলেন পাপুল

স্টাফ রিপোর্টার

শেষের পাতা ১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০০ পূর্বাহ্ন

কুয়েতে মানবপাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি সংসদ সদস্য পাপুলের মুখ থেকে বের হয়ে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। সর্বশেষ অর্থ ও মানবপাচারে সহযোগিতার জন্য কুয়েতের জাতীয় পরিষদের দুই সংসদ সদস্যকে মোটা অঙ্কের অর্থ ঘুষ দেয়ার কথা স্বীকার করেছেন শহিদ ইসলাম পাপুল এমপি। প্রসিকিউশনের বরাতে সোমবার কুয়েতি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এমপি সাদুন হাম্মাদ আল-ওতাইবি ও সালাহ আবদুলরেদা খুরশিদকে মোট ৫ লাখ ৭০ হাজার কুয়েতি দিনার বা ১৫ কোটি ৭০ লাখ ৬৮ হাজার টাকা ঘুষ দেন পাপুল। দেশটির ইংরেজি দৈনিক আরব টাইমস  জানিয়েছে, জাতীয় পরিষদের কাছে দুই এমপি’র দায়মুক্তির বিধান উঠিয়ে নেয়ার আবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে পাবলিক প্রসিকিউশন। এর মধ্যে আর্থিক লেনদেন এবং বাণিজ্যিক কাজে সহযোগিতায় সাদুন হাম্মাদকে ২ লাখ কুয়েতি দিনার পাপুল দেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সরকারি কৌঁসুলিরা বলছেন, এক সিরীয়র মধ্যস্থতায় তাকারীর মাধ্যমে সাদুন হাম্মাদের দক্ষিণ সুরার বাসায় নগদে ৫০ হাজার দিনার  পৌঁছে  দেয়া হয়। বাকি  দেড় লাখ দিনার দেয়া হয় চেকের মাধ্যমে। আরবি দৈনিক আল-কাবাসের খবরে বলা হয়, এমপি সালাহ খুরশিদকে  দেয়া হয় ৩ লাখ ৭০ হাজার কুয়েতি দিনার।
তার বাসায় কয়েক কিস্তিতে ওই অর্থ  পৌঁছে  দেয়া হয়। বাংলাদেশ  থেকে অবৈধভাবে কর্মী আনার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করার জন্য ওই অর্থ  দেয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছে পাবলিক প্রসিকিউশন।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

নূরজাহানের আকুতি

লন্ডনে বড় হওয়া ছালেমার ভাগ্য বিড়ম্বনা

৩১ জুলাই ২০২১

কাল থেকে খুলছে রপ্তানিমুখী সকল শিল্প ও কল-কারখানা

৩১ জুলাই ২০২১

আগামী ১লা আগস্ট থেকে রপ্তানিমুখী সকল শিল্প ও কারখানা চালুর অনুমতি দিয়েছে সরকার। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ ...

নিয়মনীতিহীন আইপি টিভি’র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

৩১ জুলাই ২০২১

নিয়মনীতিহীন আইপি টিভি’র বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী ...

একদিনে ১৯৪ নতুন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

৩০ জুলাই ২০২১

 করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেই ডেঙ্গু রোগী বেড়েই চলছে। নতুন রোগী নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। ...



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



লকডাউনের এক সপ্তাহ

সড়কে বেড়েছে মানুষ ও যানবাহন

DMCA.com Protection Status