যুক্তরাষ্ট্রে ১২ হাজার কর্মী ছাটাই বোয়িংয়ের

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২৮ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার

করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) মহামারিতে ধসে পড়া অর্থনীতির ধকল সামলাতে বিশ্বজুড়ে চাকরি ছাটাইয়ের ঢল নেমেছে। মহামারি ও লকডাউনে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পুরো বিশ্বের অর্থনীতি। বন্ধ হয়ে গেছে অনেক প্রতিষ্ঠান। কিছু প্রতিষ্ঠান ব্যয় কমিয়ে নতুন করে কাজ শুরুর চেষ্টা চালাচ্ছে। এবার সে তালিকায় যুক্ত হলো যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িং। যুক্তরাষ্ট্রে ১২ হাজারের বেশি কর্মী ছাটাইয়ের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির বহুজাতিক করপোরেশনটি। তারা জানিয়েছে, বুধবার পর্যন্ত ৫ হাজার ৫২০ জন কর্মী নিজ থেকে অব্যাহতির ঘোষণা দিয়েছে। আরো ৬ হাজার ৭৭০ জনকে চাকরি ছাড়ার নোটিশ দেয়া হয়েছে।
ভবিষ্যতে আরো কর্মী ছাটাইয়ের পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। করোনা মহামারিতে অর্থনীতি ও বিশ্বব্যাপী যোগাযোগ ব্যবস্থায় ধস নামায় কমে আসে উড়োজাহাজের চাহিদা। এমতাবস্থায় নতুন করে ব্যয় কমিয়ে কার্যক্রম সাজানোর উদ্যোগ নিলো বোয়িং। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
খবরে বলা হয়, মহামারির আগেই চাপে ছিল বোয়িং। গত বছর তাদের তৈরি ৭৩৭ ম্যাক্স সিরিজের দুটি বিমান প্রাণঘাতী দুর্ঘটনার শিকার হলে বিমানগুলোর চলাচল নিষিদ্ধ হয় বিশ্বব্যাপি। এরপর করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে বিমান ভ্রমণ প্রায় শুন্যের কোঠায় নেমে আসে। ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়ে প্রতিষ্ঠানটি। সে লোকসান কাটিয়ে উঠতে ব্যয় কমাতে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা।
গত এপ্রিলেই চলতি বছরের মধ্যে ১০ শতাংশ কর্মী ছাটাইয়ের ঘোষণা দিয়েছিল বোয়িং। বিশ্বজুড়ে প্রতিষ্ঠানটির কর্মী সংখ্যা ১ লাখ ৬০ হাজার। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ডেভ ক্যালহাউন কর্মীদের পাঠানো এক মেইলে লিখেন, বিমান শিল্পের উপর এই মহামারির বিপর্যয়কারী প্রভাবের মানে হচ্ছে, আগামী কয়েক বছর বিশ্বজুড়ে বাণিজ্যিক বিমানের সংখ্যা কমে যাওয়া। ভোক্তাদের কাছে আমাদের সেবার চাহিদা কমে যাওয়া। যার মানে হচ্ছে, আমাদের লাইনে কাজের সংখ্যা কমে যাওয়া। এছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত