ঢাকার আরো ৮টি হাসপাতালে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিল গ্রামীণ টেলিকম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

অনলাইন ২২ মে ২০২০, শুক্রবার, ৯:৫৭

করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এমন ঢাকার আরো ৮টি হাসপাতালে চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী দিয়েছে গ্রামীণ টেলিকম। তাদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা বিবেচনায় ৪,৩০০টি পিপিই, ১০ হাজার পিস কেএন-৯৫ মাস্ক, ১০ হাজার পিস হ্যান্ড গ্লাভস ও ২ হাজার ৫০ পিস প্রোটেকটিভ গগলস বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর সময় থেকে গ্রামীণ টেলিকমের আর্থিক সহায়তায় গ্রামীণ ফেব্রিকস অ্যান্ড ফ্যাশনস লি. ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য পিপিই গাউন তৈরি করে আসছে। এর সঙ্গে আমদানিকৃত কেএন-৯৫ মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস ও প্রোটেকটিভ গগলসসহ সেট আকারে করোনা চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিভিন্ন হাসপাতালে বিনামূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় নিরবচ্ছিন্ন সেবা প্রদানকারী ডাক্তার, নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে সহায়তা করতে গ্রামীণ টেলিকমের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস অব্যাহত আছে।

ইতিমধ্যে ২৪টি হাসপাতাল ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিনামূল্যে পিপিই গাউন ও মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকা বিভাগের বাইরে ৭টি বিভাগীয় শহরের ১১টি হাসপাতালে পিপিই গাউন, মাস্ক ও অন্যান্য প্রোটেকটিভ গিয়ার সরবরাহ করা হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা বিভাগীয় শহরে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তার জন্য ও তাদের কাজের প্রতি সম্মান জানিয়ে আরো ৮টি হাসপাতালে উন্নত মানের পিপিই গাউন, কেএন-৯৫ মাস্ক, প্রোটেকটিভ গগলস ও হ্যান্ড গ্লাভস প্রেরণ করা হয়েছে।

হাসপাতালগুলো হচ্ছে- ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতাল নারায়ণগঞ্জ, রেলওয়ে জেনারেল হাসপাতাল কমলাপুর, ন্যাশনাল ইনিস্টিটিউট অব কার্ডিওভাসক্যুলার ডিজিজেস, সাজেদা ফাউন্ডেশন এবং হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

গ্রামীণ টেলিকমের আর্থিক সহায়তায় গ্রামীণ ফেব্রিকস অ্যান্ড ফ্যাশনস লি. স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমোদন নিয়ে উন্নত মানের পিপিই উৎপাদন অব্যাহত রেখেছে।
একই সঙ্গে “গ্রামীণ টেলিকম” আমদানিকৃত মাস্কসহ অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় নিয়োজিত বিভিন্ন হাসপাতাল ও প্রতিষ্ঠানের সদস্যদের জন্য বিতরণ করে যাচ্ছে। করোনা সংকট দূর না হওয়া পর্যন্ত এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

করোনা, কেয়া বাত!

৭ জুন ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত