‘গতকাল কোন দাতা প্লাজমা দেয়নি’

মেডিকেল রিপোর্টার

অনলাইন ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ১১:০২ | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৫৯

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোমবার (১৮ মে) প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়নি। কোনো দাতা না আসায় প্লাজমা সংগ্রহ করা যায়নি। হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান ও প্লাজমা থেরাপি সাব কমিটির প্রধান অধ্যাপক ডা. এম এ খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

সোমবার রাতে তিনি জানান, করোনাজয়ী কোনো লোক হাসপাতালে আসেনি প্লাজমা দিতে। এজন্য তা সংগ্রহ করা হয়নি। তবে প্লাজমা সংগ্রহ কার্যক্রম চলমান থাকবে। করোনাজয়ী কেউ যেদিনই আসুক, তার শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হবে এবং তা সংরক্ষণ করে রাখা হবে।

তিনি আরও জানান, এখন পর্যন্ত ২ জন চিকিৎসক ও একজন সাংবাদিকের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়েছে।
আশা করি সেই প্লাজমা পরীক্ষার জন্য দু’একদিনের মধ্যে করোনা রোগীকে পুশ করা হবে। ডা. এম এ খান আরও বলেন, প্লাজমার এন্টিবডি নির্ণয়ের জন্য স্পেন থেকে কিট চলে এসেছে। প্লাজমা এন্টিবডি নির্ণয় পরীক্ষায় ১.১৬০ টাইটার হলে খুব ভালো হয়। যদি কেউ অতিরিক্ত হার্টের রোগে ভোগে, উচ্চমাত্রার ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত ইনসুলিন নেয়, তবে সেসব রোগীর কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ না করাই ভালো। করোনাভাইরাস জয়ী ১৮ থেকে ৫৫ বছর পর্যন্ত ব্যক্তিদের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হবে। এই প্লাজমা সংগ্রহ প্রতিদিনই চলতে থাকবে বলেও জানান তিনি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

জাফর আহমেদ

২০২০-০৫-১৯ ০৪:৫৯:২০

প্লাজমা নিয়ে এতো বাড়াবাড়ি করার কিছুই নেই, এর কারণ কয়জন রোগী পুরোপুরি সুস্থ হচ্ছেন, আর এটা বাংলাদেশ যেখানে যেখানে সন্তান তার পিতা মাতা কে রাস্তায় ফেলে দিয়ে চলে যায়, যে দেশে মানুষ মরলে কবর দেয়ার জন্য মানুষ পাওয়া যায় না, যেদেশে মানবতার সেবক ডাক্তার মৃত্যুর পথযাত্রী রোগীর সাহায্যে এগিয়ে আসে না, সে দেশে প্লাজমা দিয়ে মানুষের জীবন বাঁচবে এমন দরদী পাওয়ার আশা করা কঠিন,,,

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

করোনা, কেয়া বাত!

৭ জুন ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত