'জনগণের সেবক'- এর অর্থ কি আমরা জানি?

রাশেদা রওনক খান

ফেসবুক ডায়েরি ২৮ মার্চ ২০২০, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০০ পূর্বাহ্ন

একটা ছবি খুব ফেসবুক ঘুরে বেড়াচ্ছে! বয়স্ক মানুষজনকে কান ধরে উঠ বস করাচ্ছেন প্রজাতন্ত্রের এক কর্মকর্তা! কিন্তু এভাবে না করে যদি হাসি মুখে বলতেন, "চাচা, বাসায় যান|" চাচা তো দৌড়ে যেতো, যেতো না? তাহলে আমরা সেবা প্রদানকারী মানুষজন কেন এতোটা অমানবিক, হিংস্র আর অবিবেচক হয়ে উঠি? হয়তো এই মানুষটি তাঁর সন্তানদের মুখে একটু খাবার গুঁজে দেবার আশায় রাস্তায় নেমেছে, কি হতো তাঁকে বুঝিয়ে শুনিয়ে বাড়ী পাঠিয়ে দিলে?

একদিকে তাদের খাবারের কি ব্যবস্থা হবে, তা অনিশ্চিত, তাঁর মাঝে এভাবে কানে ধরে উঠা বসা, ভাবছি পোশাকে কর্মকর্তা হলেও কতো নিম্নমানের বিবেক আমাদের?

হাঁ, ঘরে ঢুকানোর জন্য সারাবিশ্বেই চলছে পুলিশের হুমকি ধামকি! কিন্তু এইরকম চিত্র কেবল পাশের দেশগুলো আর আমাদের মাঝেই দেখা যাচ্ছে! আমরা আসলে 'সার্ভিস প্রদানকারী'/ 'জনগণের সেবক' -এর অর্থই হয়তো বুঝিনা!

যেহেতু বুঝিনা, তাই ১৯৭৫ সালের ২৬ মার্চে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে এই 'জনগণের সেবক' বিষয়ে বঙ্গবন্ধু কি বলেছিলেন, সেটা শুনি-

"সরকারী কর্মচারীদের বলি, মনে রেখো, এটা স্বাধীন দেশ। এটা ব্রিটিশের কলোনী নয়। পাকিস্তানের কলোনী নয়। যে লোককে দেখবে, তার চেহারাটা তোমার বাবার মত, তোমার ভাইয়ের মত। ওরই পরিশ্রমের পয়সায় তুমি মাইনে পাও। ওরাই সম্মান বেশী পাবে। কারণ, ওরা নিজেরা কামাই করে খায়।"...."আপনি চাকরি করেন, আপনার মাইনে দেয় ঐ গরীব কৃষক। আপনার মাইনে দেয় ঐ গরীব শ্রমিক।
আপনার সংসার চলে ওই টাকায়। আমরা গাড়ি চড়ি ঐ টাকায়। ওদের সম্মান করে কথা বলুন, ইজ্জত করে কথা বলুন। ওরাই মালিক। ওদের দ্বারাই আপনার সংসার চলে।"

(লেখক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, লেখাটি তার ফেসবুক টাইমলাইন থেকে নেয়া)

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md shahjahan chy

২০২০-০৪-০২ ১১:৩৩:১৫

ও আসলে আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছে ওর পারিবারিক অবস্থা।

MD HAYDAR ALI

২০২০-০৩-২৯ ০৭:১৬:৫২

yes madam its true, what you say..thanks a lot

rony

২০২০-০৩-২৮ ২০:০৮:৪২

Hi madam, Your writing heart me. I can't keep my tears. Also father of the nation's lecture. That's why he is father of the nation.

Mohammed Musa

২০২০-০৩-২৮ ০০:৫০:৫০

অনলাইনের বদৌলতে অসংখ্য জ্ঞানীগুনীদের লেখা-পড়ার সৌভাগ্য হয় অন্যদের মত আমারও। কখনো ভাল লাগে, কখনো খুদের তাড়নায় যেমন গিলে খেতে হয় তেমনি। কিন্তু লেখাটি পড়ে অনেক তৃপ্তি পেলাম। ধন্যবাদ

এড জসীম ঊদ্দীন

২০২০-০৩-২৮ ০০:১৫:৫৩

প্রজার টাকায় তাদের বেতনের ব্যবস্হা হয়। তাই সকল প্রজা তাদের মুনিব। সুযোগ পেলে মুনিবকে এইভাবে হেনাস্হা করে।

Biplab Bikash paulch

২০২০-০৩-২৮ ১২:৫৪:৫০

কেন এমন করে আমাদের কর্তা ব্যক্তিগণ, সামাজিক নিবিড় গবেষণা প্রয়োজন

Nurul Islam

২০২০-০৩-২৮ ১২:২৭:৩৮

Excellent writing.

Ishmam Karim

২০২০-০৩-২৮ ১১:৪৮:৪৫

আমার বাবা একজন সরকারি কর্মচারী । তাঁর সহকর্মীদের এ ধরনের আচরন দেখে আমি লজ্জিত ও ক্ষমাপ্রার্থী।

Mokhles Muntasir

২০২০-০৩-২৮ ১১:৪১:৩৬

Besarader extxa ay imcome bondo matha gorom oi r ki mone nebo na amra R oi bhashon tu Awamileage shunay na shudu saat march posiea dau_____________

Abdulkarim

২০২০-০৩-২৮ ১১:২৮:১৬

Some of the officers they forget that they are the public servant of the country, what we realize from this picture and the officer she enjoys with her father and brother during this cricess time to take a picture and want to show her power of the field, did she think about these poor people that, they have family members on their family? I think the administration will take the necessary action against her for abusing the elderly people in public place, remember the education is not the only certificate also it's earning the knowledge. Thank you

Islam

২০২০-০৩-২৮ ১১:২৪:৪৭

I agreed With Madam !!! Thanks

Md. Harun Al-Rashid

২০২০-০৩-২৮ ১১:০৭:৫৪

আধ্যাপক রাশেদা রওনক খান ম্যাডামকে ধন্যবাদ। যত্র তত্র ক্ষমতা প্রয়োগের সুড়সূড়ি জবাবদিহি না থাকা বা না করার দূঃসাহস থেকে আসে। "নৈরাজ্যের"- Textual meaning সম্ভবত রাজ্যের অনুপস্হিতি, আর ব্যহারিক অর্থ হলো যেখানে রাজ্য বা রাষ্ট্রের কতৃত্বকে অস্বীকার করা হয়। রাষ্ট্রের কতৃত্ব আইনদ্বারা প্রতিষ্ঠা পায়। আইন কেবল Legal Formalism না। আইন তার ছেয়ে ঢের বেশী।অতীতে দেখা গেল শহররে আইন শৃখলার দায়িত্বে নিয়োজিতরা অবলীলায় রাজনীতিক/ছাত্র জনতাকে শান্তি রক্ষার স্বার্থে বেধড়ক পেটায় তখন একটু সুযোগতো মাঠ পর্যায়ের কর্তাব্যক্তিরা নিতে চাইবে। আইনের আওতায় সকল শাস্তি অন্যের জন্য। আমি 'নৈরাজ্যে"র বাসিন্দা। মনে পড়ে জনাব মোহাথীর মোহাম্মদ বলেছিলেন -"যত্র তত্র ক্ষমতা প্রয়োগ হলো প্রিয় খাদ্য বারে বার খেতে চাওয়ার বদ অভ্যাসের মত"। প্রজাতন্ত্রের এক প্রজা নিগৃহিত হলে কি হবে-সরকারি কর্মকর্তার এমন মনোভাবের পরিবর্তন হোক।

NURUL ISLAM

২০২০-০৩-২৮ ১০:৩৯:৩০

Very nice writing. Thanks.

MD ABUL BASHAR

২০২০-০৩-২৭ ২১:২০:৩৬

Right and thanks

Md Nazmul Hoque

২০২০-০৩-২৭ ২০:৫৬:৪৩

I agreed with Madem RASEDA

আপনার মতামত দিন

ফেসবুক ডায়েরি অন্যান্য খবর

সমস্যা কি তাইলে বোরকায়?

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

শাইখুল হাদিস থেকে আল্লামা আহমদ শফী:

আল্লামা আহমদ শফীর পাশে একজন‌ও কি ভালোবাসার মানুষ নেই?

৪ সেপ্টেম্বর ২০২০



ফেসবুক ডায়েরি সর্বাধিক পঠিত

DMCA.com Protection Status