দমদম কারাগারে দুইদিনে সংঘর্ষে ৪ বন্দির মৃত্যু

কলকাতা প্রতিনিধি

দেশ বিদেশ ২৪ মার্চ ২০২০, মঙ্গলবার

পশ্চিমবঙ্গের দমদম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে রোববার দ্বিতীয় দিনেও কারাকর্মী ও বন্দিদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। চলেছে বোমা, গুলিও। তবে এদিনের সংঘর্ষে কোনো মৃত্যু না হলেও শনিবারের সংঘর্ষে চার বন্দির মৃত্যু হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে দাবি করা হয়েছে। শনিবারের পর  রোববারেও বন্দিরা আদালতে শুনানি বন্ধ, জামিনে বা প্যারোলে মুক্তি দিতে আপত্তি এবং সাময়িকভাবে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে বন্দিদের দেখা-সাক্ষাৎ বন্ধ রাখার প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখিয়েছে। শনিবারের সংঘর্ষের পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেও রোববার দুপুরে ফের অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছে কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার চত্বর। সূত্রের খবর, রোববারও বন্দিদের থাকার একটি ভবনে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বন্দিদের একটি অংশ। আগুন দেয়া হয়েছে কম্বল তৈরির কারখানায়। ঘটনাস্থলে এডিজি কারা পীযূষ পান্ডেসহ কারা দপ্তরের শীর্ষ কর্তারা হাজির হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন।
হাজির ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। শনিবার দমদম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে পুলিশ-বন্দি সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ বন্দির মৃত্যু হয়েছে। রোববার আরজি কর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দমদম জেল কর্তৃপক্ষ যাদের হাসপাতালে নিয়ে যায় তার মধ্যে চারজনকে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। হাসপাতাল সূত্রের খবর, জেল কর্তৃপক্ষ শনিবার ২৩ জনকে ভর্তি করেছিলেন আরজি কর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। হাসপাতাল সূত্রের খবর, রোববার মৃতদের একজনকে অর্ঘ্য চক্রবর্তী বলে শনাক্ত করেছেন মৃতের মা। অর্ঘ্য লেকটাউন থানা এলাকার বাসিন্দা। মাদক পাচারের একটি মামলায় বিচারাধীন ছিলেন তিনি। অন্য দেহগুলো এখনো কেউ শনাক্ত করেননি। যদিও হাসপাতাল সূত্রের খবর, জেল কর্তৃপক্ষ প্রাথমিকভাবে যে নাম তাদের দিয়েছে, সে অনুযায়ী মৃতদের নাম কমলেশ রায় ওরফে মাহাতো, বাদল মণ্ডল এবং শেখ নূর হোসেন। তবে এখনো রাজ্য কারা দপ্তর বা ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে শনিবারের সংঘর্ষের ঘটনায় ক’জন বন্দির মৃত্যু হয়েছে বা কতজন আহত হয়েছেন তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। জানা গেছে, শনিবারের সংঘর্ষের জেরে কারাগারে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছিল। এরই মধ্যে রোববার সকাল থেকে বন্দিরা অনশনে বসেছিল। তবে এক পর্যায়ে ফের সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। তবে শনিবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর রাতে তল্লাশি চালিয়ে বোমা ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ দাবি করেছে, একাধিক বন্দির হাতে আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে। কিভাবে কারাগারের মধ্যে আগ্নেয়াস্ত্র প্রবেশ করেছে তা নিয়ে কারা কর্তারা চিন্তিত। কারা সূত্রে জানা গিয়েছে, বিচারাধীন বন্দিরা পুড়িয়ে দিয়েছে জেল সুপারের দপ্তর। ফলে বন্দি সংক্রান্ত সমস্ত নথি ভস্মীভূত হয়ে  গেছে। বন্দিদের তালিকাও পুড়ে গেছে। ফলে কত বন্দি ছিলেন সেই হিসাবটা নিয়েই সংশয় তৈরি হয়েছে।

আপনার মতামত দিন



দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

নারায়ণগঞ্জে প্রবাস ফেরত ৫৯৬৮, চিহ্নিত ২৮০

২৭ মার্চ ২০২০

 গত ১লা মার্চ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রবাস থেকে নারায়ণগঞ্জে ফিরেছেন ৫ হাজার ৯৬৮ জন ...

জনগণের পাশে ভারত সরকার ১.৭ ট্রিলিয়ন রুপির প্যাকেজ ঘোষণা

২৭ মার্চ ২০২০

 করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় নাগরিকদের সহায়তার অংশ হিসেবে ১.৭ ট্রিলিয়ন রুপি বা প্রায় ২২.৫ বিলিয়ন মার্কিন ...

চিকিৎসা নিতে ওসমানী হাসপাতালে ফিনল্যান্ডের নাগরিক

২৭ মার্চ ২০২০

বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন ফিনল্যান্ডের একজন নাগরিক। জরুরি বিভাগের ...

করোনা: একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত মালয়েশিয়ায় ইন্দোনেশিয়ায় মৃত বেড়ে ৭৮

২৭ মার্চ ২০২০

করোনা ভাইরাসের প্রবল প্রকোপ দেখা দিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে। ভাইরাসটি যখন চীনের বাইরে ছড়াতে শুরু ...

চীন করোনা ভাইরাস সৃষ্টি করেনি, ছড়িয়েও দেয়নি: চীনা মুখপাত্র

২৭ মার্চ ২০২০

চীন করোনা ভাইরাস সৃষ্টিও করেনি, তা ইচ্ছাকৃতভাবে ছড়িয়েও দেয়নি। করোনা ভাইরাসকে ‘চাইনিজ ভাইরাস’ অথবা ‘উহান ...

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার দায় স্বীকার করলো সন্ত্রাসী টেরেন্ট

২৭ মার্চ ২০২০

অবশেষে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ৫১ মুসলিমকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে সেই ...

করোনার আতঙ্ক ভুলে হানামি উৎসবে মাতোয়ারা জাপানিরা

২৭ মার্চ ২০২০

এখন চেরি ফুলে ছেয়ে গেছে জাপানের বাগান, পার্ক। প্রতিবছরই এ সময়টাতে জাপানিরা এই চেরি ফুল ...

সেনা ও নৌবাহিনীতে অনারারী কমিশন প্রদান

২৬ মার্চ ২০২০

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৩ জন অনারারী লেফটেন্যান্টকে অনারারী ক্যাপ্টেন পদে ...



দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত