ইতালির রাস্তায় বিধ্বস্ত মানুষ, প্রতি ২ মিনিটে ১ জনের মৃত্যু

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২৩ মার্চ ২০২০, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৫৯

ইতালির অবস্থায় গা শিউরে উঠবে যে কারো। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ যেন এই দেশটিকে এক মৃত্যুপুরীতে পরিণত করেছে। যেখানে সেখানে মানুষ মারা যাচ্ছে। তারই একটি বাস্তব চিত্র ধরা পড়েছে রাজধানী রোমের রাস্তায়। সেখানে মুখে মাস্ক পরা এক ব্যক্তি অকস্মাৎ রাস্তায় বিধ্বস্ত হয়ে পড়ে গেলেন। তাকে ধরার মতো কেউ নেই। বেঁচে আছেন, না মরে গেছেন কারো মালুম নেই। অবশেষে মেডিকেল বিভাগের স্টাফরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করলেন।
তাকে স্ট্রেচারে তুলে একটি এম্বুলেন্সের পিছনে নেয়া হলো। তারপর তা ছুটলো হাসপাতালের উদ্দেশে। ওই ব্যক্তির ছবিসহ একটি সচিত্র প্রতিবেদনে এ কথা লিখেছে অনলাইন ডেইলি মেইল। এতে বলা হয়েছে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৫১ জন। সব মিলে সেখানে মারা গেছেন ৫৪৭৬ জন। সংক্রমিত হয়েছেন প্রায় ৬০ হাজার মানুষ। সপ্তাহান্তে সেখানে মারা গেছেন ১৪৪৪ জন মানুষ। এর ফলে প্রতি দুই মিনিটে একজন করে রোগী মারা যাচ্ছেন করোনা ভাইরাসে।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ইতালিকে কিভাবে গ্রাস করেছে তার চিত্র ফুটে উঠেছে রাস্তায় পড়ে থাকা ওই ব্যক্তির বিধ্বস্ত দেহ। এ দৃশ্য দেখে শিউরে উঠেছেন অনেকে। ফলে বিশেষজ্ঞরা সতর্কতা দিয়েছেন। হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা বৃটেনকে। বলেছেন, একই রকম দৃশ্য হতে পারে বৃটেনে দু’সপ্তাহের মধ্যে। এখন বৃটেনে মৃতের সংখ্যা ২৩৩। পক্ষকাল আগে ইতালিতে ঠিক এমন সংখ্যায় ছিল মৃতের সংখ্যা। ইতালিতে মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ থেকে দীর্ঘ হওয়ায় সেখানে সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি ইতালির প্রধানমন্ত্রী গুসেপে কন্টেকে জানিয়ে দিয়েছেন তার সেনাবাহিনীর ভাইরাস বিষয়ক ১০০ বিশেষজ্ঞ ও মেডিকেল স্টাফ নিয়ে সেনাবাবাহিনীর ৯টি বিমানের প্রথম স্কোয়াড্রন যাচ্ছে রোমে। পাশাপাশি কমিউনিস্ট কিউবা একইভাবে সেনাবাহিনীর চিকিৎসকদের ৫২ ব্রিগেড ও নার্সদের পাঠিয়েছে রোমে।

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের প্রফেসর ফ্রাঁসিস বলাক্স পূর্বাভাষ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইতালির মতো ভাগ্য বরণ করতে পারে বৃটেন। এখন পর্যন্ত বৃটেনে যে মহামারীর লক্ষণ দেখা যাচ্ছে তা উত্তর ইতালির সঙ্গে মোটামুটিভাবে তুলনীয়। ফলে বৃটেনেও লকডাউন পরিকল্পনা নেয়া উচিত।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রিপন

২০২০-০৩-২৩ ২৩:১৪:০১

আমাদের, এই সাধারণ মানুষদের, মানুষ হিসেবে মর্যাদা নেই কোথাও। পথেঘাটে মরে পড়ে থাকতে হয় ইতালির মতো করে। শুধু এই দু'টি কথা লিখে পোসট করা পর্যন্ত সময়ের মাঝে, হয়তো পড়েছে আরও একটি লাশ, রাস্তার ওপর! তবুও চলবে জীবন। চলবে সংগ্রাম। মানুষ হিসেবে বাঁচার অধিকারটুকুও জোর করে আদায় করে নিতে হয়। চাই, আগামী প্রজন্মের জন্যে এমন ধরিত্রী রেখে যেতে, যেখানে ওরা বাঁচবে মানুষের মর্যাদায়, মরলেও তা মরবে মানুষেরই মর্যাদায়। সুদিচক্রের ক্রীড়নক সরকারগুলোর খপ্পর থেকে ধরিত্রীমাতা মুক্ত হোক। সুদিচক্র নিপাত যাক।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

আল জাজিরার প্রতিবেদন

জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারে প্রস্তুত থাই সরকার, তবে...

২২ অক্টোবর ২০২০

আইএলওর প্রতিবেদন

অব্যাহতভাবে লড়াই করছে এশিয়ার গার্মেন্ট খাত

২২ অক্টোবর ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচন

বিদেশ থেকে ভোটারদের ইমেইলে হুমকি দেয়া হচ্ছে

২২ অক্টোবর ২০২০

বিবিসির প্রতিবেদন

স্পেনে আক্রান্ত ১০ লাখ ছাড়ালো

২২ অক্টোবর ২০২০

সিএনএনের প্রতিবেদন

অবশেষে শব্দবোমা ফাটালেন ওবামা

২২ অক্টোবর ২০২০

বিবিসির রিপোর্ট

বিক্ষোভের আগুনে জ্বলছে নাইজেরিয়া

২১ অক্টোবর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



ব্লুমবার্গে প্রকাশিত নিবন্ধ

প্রথমে বাংলাদেশকে পরাজিত করতে হবে ভারতকে