খুব দ্রুতই বিভাগীয় পর্যায়ে করোনা ইউনিট করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

৬০০০ বিশেষ গাউন দেবে বেক্সিমকো

স্টাফ রিপোর্টার

এক্সক্লুসিভ ১৯ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪১

শিগগিরই দেশের ৮ বিভাগেই নতুন করোনা ইউনিট স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। ইউনিটগুলো স্থাপনের ফলে প্রতিটি বিভাগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের তথ্য, চিকিৎসা সুবিধাসহ সব ধরনের মনিটরিং ব্যবস্থা সহজ ও জোরদার হবে। গতকাল দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সভায় করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। দেশে করোনা আক্রান্ত রোগী বৃদ্ধি পেলে কি উদ্যোগ নেয়া হবে সে ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা হয়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দেশ থেকে যাত্রীরা যেন বাংলাদেশে এই মুহূর্তে না আসে সে ব্যাপারে কিছু নির্দেশনা দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। করোনা ভাইরাসের কারণে বেশি মানুষ কোয়ারেন্টিনে রাখার প্রয়োজন হলে ঢাকার কুয়েত-মৈত্রি হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালসহ কিছু হাসপাতাল প্রস্তুত রাখার পাশাপাশি টঙ্গীস্থ বিশ্ব ইজতেমা ময়দান প্রস্তুত করার জন্যও স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্দেশনা দেন। ঢাকার বাইরে বিদেশ ফেরত যাত্রীগণ কোয়ারেন্টিনের নিয়ম মানছে না প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিদেশ ফেরত প্রতিটি ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টিনে ১৪ দিন থাকার সকল নিয়ম মেনে চলতে হবে।
নিয়ম না মানলে ব্যবস্থা নিতে হবে। পাশাপাশি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, গোয়েন্দা শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের জোরালো ভূমিকা পালনের নির্দেশনা দেবার জন্য স্বাস্থ্য সেবা সচিবকে নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, সভায় দেশের চিকিৎসকদের প্রটেকশনের জন্য বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ. রহমান, এমপি ৬০০০ বিশেষ গাউন প্রদানের আশ্বাস দেন। সভায় উপস্থিত আইইডিসিআর’র পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা সামাজিক মাধ্যমে করোনা বিষয়ে অবগত হতে নতুন একটি ইমেইল আইডি ও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলার কথা জানান। তথ্য মতে আইইডিসিআর-এর ফেসবুক অ্যাকাউন্টস হচ্ছে-রবফপৎ,ঈঙঠওউ-১৯ ঈড়হঃৎড়ষ জড়ড়স
স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, অতিরিক্ত সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

জামশেদ পাটোয়ারী

২০২০-০৩-১৯ ০৮:০৯:৫৭

বিভাগে নয় প্রতিটি শহরেই করা উচিত। যাতে আক্রান্ত সাধারণ মানুষ তাতক্ষণিক চিকিতসা পায়।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

৯৯৯-এ ফোন

ভোরে ট্রাক চুরি দুপুরে উদ্ধার

২৬ অক্টোবর ২০২০

মামলা জট

ঢাকায় ২,৪৭,৩৮০ ফৌজদারি মামলা ঝুলছে

২৪ অক্টোবর ২০২০

গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা

প্রাপ্তবয়স্ক ৩৫.৩% মানুষ তামাক ব্যবহার করেন

২৩ অক্টোবর ২০২০

দাম বাড়িয়ে ৩৫ করলো সরকার

আড়তে আলু নেই

২১ অক্টোবর ২০২০

দীর্ঘদিন পদোন্নতি না দেয়ায় পিটিআই ইন্সট্রাক্টরদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে

২১ অক্টোবর ২০২০

দীর্ঘদিন পদোন্নতি না দেয়ায় পিটিআই ইন্সট্রাক্টরদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। একই পদে ২৫ থেকে ...



এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত



দাম বাড়িয়ে ৩৫ করলো সরকার

আড়তে আলু নেই