৬ বছর পর গোল খরায় মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক

খেলা ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৩৫

লিওনেল মেসি এমন একজন ফুটবলার, যিনি দুই-এক ম্যাচ গোল না পেলেই ভক্তদের মনে প্রশ্ন জাগে, কী হলো তার! সেখানে লা লিগায় টানা চার ম্যাচে কোনো গোল পাননি আর্জেন্টাইন জাদুকর। গত মৌসুমে লীগে সর্বাধিক গোলের মালিক মেসি এমন গোলখরায় পড়েছিলেন ৬ বছর আগে। ২০১৩’র অক্টোবর থেকে ২০১৪’র জানুয়ারি পর্যন্ত টানা ৪ লীগ ম্যাচে গোলহীন ছিলেন তিনি। সেবার সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ৮ ম্যাচে গোলহীন ছিলেন মেসি।  চলতি মৌসুমে লা লিগায় মেসি সবশেষ গোল করেন ১৯শে জানুয়ারি গ্রানাদার বিপক্ষে। এরপর ভ্যালেন্সিয়া, লেভান্তে, রিয়াল বেতিস ও শনিবার গেতাফের বিপক্ষে গোলহীন। তবে বার্সেলোনার শেষ ৭ গোলের ৬টিতেই মেসির সরাসরি অবদান। গেতাফের বিপক্ষেও সতীর্থ আঁতোয়ান গ্রিজম্যানকে দিয়ে করান একটি। সঙ্গে সার্জি রবার্তোর লক্ষ্যভেদে ঘরের মাঠে ২-১ গোলে জয় পায় বার্সা।
 
এ জয়েও পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থানেই থাকতে হচ্ছে বার্সেলোনাকে। ২৪ ম্যাচে কোচ কিকে সেতিয়েনের দলের সংগ্রহ ৫২ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলা রিয়ালেরও পয়েন্ট সমান। তবে গোল গড়ে এগিয়ে শীর্ষে রয়েছে কোচ জিনেদিন জিদানের দল। ৪২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে গেতাফে।
শনিবার ন্যু ক্যাম্পে শুরুতে গোল করেও এগিয়ে যাওয়া হয়নি গেতাফের। স্যামুয়েল উমতিতিকে ফাউল করায় অ্যালান নায়মের গোল বাতিল করে দেয় ভিএআর। ৩৩তম মিনিটে মেসির পাস থেকে বার্সাকে লিড এনে দেন ফরাসি তারকা গ্রিজম্যান। ৬ মিনিট পর জুনিয়র ফিরপোর অ্যাসিস্টে দ্বিতীয় গোল করেন সার্জি রবার্তো। দ্বিতীয়ার্ধে বার্সাকে চাপে ফেলে গেতাফে। ৬৬তম মিনিটে অ্যাঞ্জেল রদ্রিগেজের গোলে ব্যবধান কমায় ক্লাবটি। রদ্রিগেজের আরেকটি নিশ্চিত গোল ঠেকিয়ে দেন বার্সার জার্মান গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান।
চলতি মৌসুমে লা লিগায় ১৯ ম্যাচে ১৪ গোল করেছেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি অর জয়ী মেসি। হ্যাটট্রিক দুটি। অ্যাসিস্ট ১২টি। যেখানে গতবার ৩৪ ম্যাচে ১৩ অ্যাসিস্ট করেছিলেন তিনি। মেসি কেন গোল পাচ্ছেন না, টানা খেলতে খেলতে কি ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন তিনি? নাকি ফিটনেস সমস্যায় ভুগছেন? এসব প্রশ্নের জবাবে বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েন বলেন, ‘মেসির মাঠে থাকা মানে তার কেনো সমস্যা নেই। সে ঠিক আছে। তবে বাকি খেলোয়াড়দের মতো তাকেও একটা সময় বিশ্রাম দিতে হবে। বছরের পর বছর রোববার-বুধবার পর্যন্ত খেলানো হয় এ ধরনের খেলোয়াড়দের। তবে তার যদি বিশ্রাম দরকার হয় তাহলে আমরা সেটা অবশ্যই দেখবো।’
বার্সেলোনার পরবর্তী লীগ ম্যাচ ২২শে ফেব্রুয়ারি ঘরের মাঠে এইবারের বিপক্ষে। এরপর ২৫শে ফেব্রুয়ারি নাপোলির মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগ খেলতে নামবে কাতালান জায়ান্টরা।

আপনার মতামত দিন



খেলা অন্যান্য খবর



খেলা সর্বাধিক পঠিত