বিজেপি নেতার আজব দাবি, চিড়ে খেলেই বাংলাদেশি

কলকাতা প্রতিনিধি

ভারত ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৫৯

ভারতের শাসক দল বিজেপির এক কেন্দ্রীয় নেতার মতে, যারা চিড়ে খায়, তারাই বাংলাদেশি। এই খাদ্যাভ্যাসকে তিনি অদ্ভুত বলেও দাবি করেছেন। সম্প্রতি ইন্দোরে নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির সমর্থনে এক সেমিনারে এই আজব কথা বলেছেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। সম্প্রতি বিজয়বর্গীয়ের বাড়িতে রাজমিস্ত্রি কাজ করছিল। সেখানে শ্রমিকদের খাওয়া দেখে বিজেপি নেতার সন্দেহ হয়। শ্রমিকরা আসলে চিড়ে খাচ্ছিলেন। বিজয়বর্গীয়ের মতে, এই অদ্ভুত খাদ্যাভাসই বুঝিয়ে দিয়েছে, এরা আসলেই বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী। তিনি এদের ব্যাপারে ঠিকাদারের কাছ থেকে বিস্তারিত খোঁজ করার পর বাড়ির কাজই বন্ধ করে দিয়েছেন।
কৈলাস বিজয়বর্গীয় সেমিনারে বলেছেন, তার বাড়িতে একটি ঘর তৈরির কাজ চলছিল। সেখানে একদল ঠিকা শ্রমিক কাজ করছিলেন। কৈলাস লক্ষ্য করেন, শ্রমিকদের মধ্যে অনেকে সারাদিন শুধু চিড়ে খেয়ে কাটিয়ে দিচ্ছিলেন। তাতেই নাকি তার মনে সন্দেহ জাগে। তার কথায়,  এরপর আমি ঠিকাদারের সঙ্গে কথা বলি। সুপারভাইজারের কাছে খোঁজ নিই। দুদিনের মধ্যে ওই শ্রমিকরা আমার বাড়িতে আর কাজ করতে আসেনি। এখনও পুলিশকে কিছু জানাইনি। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আনলাম, যাতে দেশের মানুষ সতর্ক থাকেন। এদিন বিজয়বর্গীয় আরও দাবি করেছেন, প্রায় এক-দেড় বছর ধরে তাকে এক বাংলাদেশী সন্ত্রাসবাদী নজরে রাখছে। আর সেই সন্ত্রাসবাদীর জন্যই তাকে ছ’জন সশস্ত্র নিরাপত্তারক্ষী সঙ্গে নিয়ে ঘুরতে হয় বলে জানিয়েছেন তিনি। বিজেপি নেতা এদিন স্পষ্ট করে বলেছেন, সিএএ-র মাধ্যমে প্রকৃত শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে। একইসঙ্গে তিনি দাবি করেছেন,  নতুন নাগরিকত্ব আইনের মাধ্যমে বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের শনাক্ত করা যাবে।

আপনার মতামত দিন

ভারত অন্যান্য খবর

ফের করোনার কালো ছায়া

মধ্য-উত্তরভারতে আংশিক লকডাউন, নাইট কারফিউ

২১ নভেম্বর ২০২০



ভারত সর্বাধিক পঠিত



এলাহাবাদ হাইকোর্টের যুগান্তকারী রায়

শুধুমাত্র বিয়ের প্রয়োজনে ধর্মান্তরকরণে আদালতের না

DMCA.com Protection Status