২০ বছরের মধ্যে জার্মানিতে তিনজনের একজন হবেন অভিবাসী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১০ নভেম্বর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৮
আগামী দুই দশকের মধ্যে জার্মানির মোট জনসংখ্যার প্রতি তিনজনের মধ্যে একজনের অভিবাসী শেকড় থাকবে। তবে বড় শহরগুলোতে এই হার হবে আরো বেশি। সেখানে মোট জনসংখ্যার অন্তত ৭০ ভাগই হবে সরাসরি অভিবাসী বা তাদের বংশধর। জার্মান অভিবাসী বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে ডয়েচে ভেলে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নিজেদের অর্থনীতিকে স্থিতিশীল রাখতে জার্মানিকে অবশ্যই আরো বেশি পরিমাণের বিদেশিদের আশ্রয় দিতে হবে। ফলে ২০৪০ সাল নাগাদ দেশটির মোট জনসংখ্যার অন্তত ৩৫ শতাংশ মানুষ হবে অভিবাসী ও তাদের বংশধর। বিশেষজ্ঞ হার্বার্ট ব্রাকার জার্মানির অভিবাসন গবেষণা বিভাগের প্রধান। তিনি বলেন, ক্রমেই জার্মানি আরো বৈচিত্র্যপূর্ণ হয়ে উঠবে।
বর্তমানে, জার্মানির মোট জনসংখ্যার প্রতি চারজনের মধ্যে একজনের রয়েছে অভিবাসী শেকড়। তবে আগামী ২০ বছরে এটি ৩৫ শতাংশ হয়ে যাবে। তবে এ সংখ্যা ৪০ ভাগেরও বেশি ছাড়িয়ে যেতে পারে এমন সম্ভাবনাও রয়েছে বলে মনে করেন তিনি। তিনি আরো বলেন, আমরা যেটা লক্ষ্য করছি যে বর্তমানে বড় শহরগুলোতে আমরা যা দেখছি তা ভবিষ্যতে সমগ্র দেশের জন্য সত্যি হবে। তবে এই বড় মাত্রায় অভিবাসীদের আশ্রয় জার্মানিতে অন্য আরেকটি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি করছে। বেশিরভাগ অভিবাসীই থাকে অদক্ষ। তাদেরকে দক্ষ করে জার্মানির জন্য সম্পদে পরিণত করাটা দেশটির জন্য ভবিষ্যতে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

গাম্বিয়াকে সব ধরণের সমর্থন দেবে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভিয়েতনাম

রেকর্ড

সেই ক্যারিশমা তিনি ব্যয় করছেন জেনারেলদের পেছনে

রোহিঙ্গাদের বিচার পাওয়ার আশা থাকছে

বিপণি বিতানে ছাড় দিয়ে বিক্রি বাড়ানোর চেষ্টা

দুর্নীতি মুক্ত হলে দেশ আরো এগিয়ে যেতো

অজয় রায় আর নেই

অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি

কোনো শিশু ও নারী যেন নির্যাতনের শিকার না হয়

সাড়ে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

‘উগ্রবাদ দমনে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

‘দিল্লি সফরে গুরুত্বপূর্ণ সব ইস্যুতেই আলোচনা হবে’

মাদক মামলায় সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়েছে: ফখরুল

বাজি ধরে সড়কে প্রাণ গেল ২ জনের