অভিযোগের তদন্ত করে ব্যবস্থা নিলে জাবিতে এ পরিস্থিতি নাও হতে পারতো

দেশ বিদেশ

তামান্না মোমিন খান | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:০২
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. আ.আ.ম.স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে যে পরিস্থিতি তা অনাকাঙ্ক্ষিত। বেশ কিছুদিন ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার কোনো সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় ছিল না। নানা ধরনের আন্দোলন চলছিল এই বিশ্ববিদ্যালয়ে। বর্তমান পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য যেটা প্রয়োজন ছিল তা হলো সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করা। যে অভিযোগগুলো ছিল সেগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত করে যদি ব্যবস্থা নেয়া যেত তাহলে হয়তো এই অবস্থা নাও আসতে পারতো। সেটা হয়নি। গত মঙ্গলবার যে পরিস্থিতি ছিল উপাচার্যের পক্ষে এবং বিপক্ষে দু দলের মধ্যে সরাসরি হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছিল। এরপরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বন্ধ ঘোষণা করা ছাড়া আর উপায় ছিল না।
বিশ্ববিদ্যালয় যদি বন্ধ ঘোষণা করা না হতো তাহলে হয়তো পরিস্থিতি আরো খারাপ হতো। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা সাময়িক একটা সমাধান এনে দিয়েছে পরিস্থিতিকে শান্ত করতে। কিন্তু স্থায়ী সমাধানের জন্য একটি সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। যে অভিযোগগুলো এসেছে এগুলোর সত্যতা আছে কিনা তা যাচাই করতে হবে। সত্যতা যদি থাকে তবে সে অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। আর সত্যতা যদি না থাকে তবে অসত্য অভিযোগ আনা এবং আন্দোলনে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। আমরা কখনও চাইবনা এখানে বাহির থেকে কোন হস্তক্ষেপ আসুক। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র, শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের এ সমস্যা সমাধানের সক্ষমতা আছে। আর কোন কারণে যদি তারা ব্যর্থ হয় তবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন বা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়টি দেখতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা যে জায়গায় গেছে তা থেকে উত্তরণের জন্য আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসনের ওপরেই নির্ভর করতে চাই।

 


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শাকিব খানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ১০ লাখ টাকা জরিমানা

জুতা চুরির মামলা

সড়ক আইন বাস্তবায়নে বাড়াবাড়ি না করার আহ্বান কাদেরের

যুদ্ধাপরাধ ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগে বৃটেনের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে পারে আইসিসি

নওগাঁয় ট্রাকচাপায় মা-মেয়ে নিহত, নানা-নাতি আহত

অস্ট্রেলিয়ার দু’রাজনীতিককে ভিসা দেয়নি চীন

সিলেটে পিয়াজ কিনতে লাইনে মেয়র আরিফ

ঝিনাইদহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জনযুদ্ধের আঞ্চলিক নেতা নিহত

শ্রীলঙ্কায় ঐক্য স্থাপন কঠিন হবে, আতঙ্কে সংখ্যালঘুরা

রোনালদোর গোল, ইউরোর মূলপর্বে পর্তুগাল

গ্রুপসেরা হয়ে ইউরোর মূলপর্বে ফ্রান্স

লতা মঙ্গেশকরকে দেখতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে এসেছেন চিকিৎসক দল

এলডিপিতে ভাঙন, অলি-রেদোয়ানের বিপরীতে আব্বাসী-সেলিমের পাল্টা কমিটি

মিরাজ-তাইজুলদের উপর বিরক্ত সূনীল যোশি

কুষ্টিয়ায় মা-ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যা

উইন্ডিজদের বিপক্ষে সিরিজ জিতলো আফগানিস্তান