কুমিল্লায় শিশু অপহরণের ঘটনায় দাদি-চাচাসহ গ্রেপ্তার ৪

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে

বাংলারজমিন ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

কুমিল্লায় তাফসির ইসলাম নামে এক শিশু অপহরণের আট ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুর দাদি ও চাচাসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশু তাফসির মুরাদনগর উপজেলার নহল গ্রামের প্রবাসী আক্তার হোসেনের ছেলে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, অপহৃত শিশু তাফসিরের আপন দাদী জোহরা বেগম, একই বাড়ির মৃত তাজুল ইসলামের ছেলে ও শিশুর চাচা কবির হোসেন, রায়তলা গ্রামের শাহ আলমের ছেলে দেলোয়ার হোসেন ও নাগেরকান্দি গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে রাসেল মিয়া। মুক্তিপণের জন্যই তারা পরিকল্পিতভাবে ওই শিশুকে অপহরণ করেছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুমিল্লা পুলিশ সুপার র্কাযালয়ের সম্মেলনকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। প্রেসব্রিফিংয়ে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন, শাখাওয়াৎ হোসেন ও জাহাঙ্গীর আলম, ডিআইও-১ মাহবুব মোরশেদ ও মুরাদনগর থানার ওসি এ কে এম মনজুর আলম। পুলিশ সুপার জানান, মঙ্গলবার শিশু তাফসির ইসলামের (৫) মা তানিয়া আক্তার মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বাড়ি ফিরছিলেন।
এসময় কবির হোসেনের স্ত্রী ফোন করে শিশু তাফসিরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে তার মাকে জানায়। এর ৫ মিনিট পর অপরিচিত মোবাইল নম্বর থেকে ফোনে শিশুর মুক্তিপণ বাবদ তার মায়ের নিকট ৪ লাখ টাকা দাবি করে এবং টাকা না দিলে শিশুকে খুন করে ফেলা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। তানিয়া এ বিষয়টি মুরাদনগর থানা পুলিশকে জানায়। পরে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে অপহৃত শিশুর সম্পর্কীয় চাচা কবির হোসেনকে আটক করে এবং জিজ্ঞাসাবাদে সে শিশু অপহরণের বিষয়টি স্বীকার করে। সে পুলিশকে জানায়, শিশু তাসফিরের দাদি জোহরা বেগমের পরিকল্পনা অনুযায়ী শিশুকে মুক্তিপণের জন্য অপহরণ করা হয়েছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ শিশুর দাদি জোহরা বেগমকে গ্রেফতার করে। পরে উভয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পুলিশ অপহরণকারী চক্রের অবস্থান নিশ্চিত হয়। এরপর মুক্তিপণের টাকা দেওয়ার কথা বলে অপহরণকারী দলের রাসেলকে কৌশলে উপজেলার নাগেরকান্দি এলাকায় এনে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় পুলিশ রাসেলের মাধ্যমে অপহরণকারী দেলোয়ারকে জানায় মুক্তিপণের টাকা পাওয়া গেছে। তখন দেলোয়ার মোবাইল ফোনে শিশুর মা তানিয়া আক্তারকে উপজেলার শুশুন্ডা কবরস্থান মসজিদ থেকে তার ছেলেকে নিয়ে যেতে বলে। পুলিশ সেখানে গিয়ে শিশু তাফসিরকে ওই মসজিদ থেকে উদ্ধার করে এবং দেলোয়ারকে রায়তলা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।
 মুরাদনগর থানার ওসি এ কে এম মনজুর আলম জানান, এ ঘটনায় শিশুর মা তানিয়া আক্তার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার সাথে জড়িত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, অপর আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

খুলনায় ভ্যানচালক হত্যায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

৩০ অক্টোবর ২০২০

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার ভ্যানচালক রাশেদুল ইসলাম গাজী (১৭) হত্যা মামলায় তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। ...

জায়গা দখলে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার কাউন্সিলরের

৩০ অক্টোবর ২০২০

অন্যের জায়গা দখলে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শাহ মো. ...

বন্দরে বিএনপির সম্পাদক গ্রেপ্তার

২৯ অক্টোবর ২০২০

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাজাহারুল ইসলাম হিরনকে (৫৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত ...

গিলাতলা ইউপিবাসীর মানববন্ধন

৩০ অক্টোবর ২০২০

ফুলতলা উপজেলার আটরা গিলাতলা ইউনিয়ন রক্ষা সম্মিলিত নাগরিক কমিটির উদ্যোগে গিলাতলা ইউনিয়নের   ৫টি মৌজা সিটি ...

শরণখোলায় ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন আহত

৩০ অক্টোবর ২০২০

বাগেরহাটের শরণখোলায় প্রকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে বের হয়ে স্থানীয় এক বখাটের হাতে ধর্ষণচেষ্টার ...

বিয়ানীবাজারের বিতর্কিত এসি ল্যান্ড বদলি, জনমনে সন্তোষ

৩০ অক্টোবর ২০২০

বিয়ানীবাজারের বিতর্কিত সহকারী কমিশনার-ভূমি (এসি ল্যান্ড) খুশনুর রুবাইয়াতকে অবশেষে বদলি করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার তিনি ...

শায়েস্তাগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

৩০ অক্টোবর ২০২০

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বেলা ১২টায় শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার উবাহাটা ...

সুনামগঞ্জে গ্রিন হাউজ পদ্ধতিতে চারা উৎপাদন

৩০ অক্টোবর ২০২০

 হাওরাঞ্চলের জেলা সুনামগঞ্জে বছরের বেশি সময় নিমজ্জিত থাকে পানিতে। অকাল বন্যা আর অতি বৃষ্টি নিত্যদিনের ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত