সাভারে পোশাক কর্মী ধর্ষিত

স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে

বাংলারজমিন ২০ অক্টোবর ২০১৯, রোববার

সাভারে  এক পোশাক কর্মী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শিশুটির বয়স (১৫)  বিষয়টি জানাজানি হলে শনিবার ধর্ষিতা ও তার পরিবারের লোকজনকে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন আওয়ামী লীগের এক নেতা। তবে ডেকে নিয়ে সুষ্ঠু বিচার তো দূরের কথা উল্টো ধর্ষণের শিকার পোশাক শ্রমিককে পাগল বলে আখ্যায়িত করে পরিবারের লোকজনকে হুমকি-ধামকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউনিয়ন ওই নেতার বিরুদ্ধে। এর আগে শুক্রবার রাতে সাভার সদর ইউনিয়নের চাঁপাইন তালতলা মহল্লার একটি বাড়িতে এধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষক তারা মিয়া (৫০) চাঁপাইন এলাকার রজব উদ্দিনের পুত্র এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হলে ধর্ষক ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে পালিয়েছে। ধর্ষণের শিকার কিশোরীর চাচা হাফিজুর মন্ডল বলেন, শুক্রবার রাতে কিশোরী ভাতিজি ঘরে একাই ছিল। এই সুযোগে কৌশলে তারা মিয়া ঘরে ঢুকে মুখ চেপে ধরে ভাতিজিকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।
তিনি আরো বলেন, শনিবার সকালে ধর্ষণের ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিয়ে সাভার সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের  এক নেতা আমাকে এবং ভাতিজিকে ডেকে নিয়ে যান। কিন্তু  ধর্ষক তারা মিয়া আওয়ামী লীগ কর্মী হওয়ায় ওই নেতা ধর্ষিত কিশোরীকে পাগল বলে আখ্যায়িত করে আমাদেরকে হুমকি-ধামকি দিয়ে তারিয়ে দেন। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সাভার সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ওই নেতা বলেন, আমি ধর্ষণের বিষয়টি শুনে ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলেছিলাম। কিন্তু তারা বলছে, মামলা করবে তাই আমি আর কিছু বলিনি। তবে তাদের হুমকি ও ধর্ষিতাকে পাগল বলার কথা তিনি অস্বীকার করেন। সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, ধর্ষণের বিষয়টি জানিয়ে শনিবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী ওই পোশাক শ্রমিক। এ ঘটনায় রবিবার তাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে। এছাড়া ধর্ষক যেই হোক তাকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওাতায় আনা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।



আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন -এর সর্বাধিক পঠিত