সিলেটের সমাবেশকে ঘিরে চাঙ্গা বিএনপি

শেষের পাতা

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৮
দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে সিলেট বিএনপি। অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সিলেট বিভাগীয় সমাবেশ। আগামী ২৪শে সেপ্টেম্বর নগরীর ঐতিহাসিক রেজিস্ট্রারি ময়দানে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশকে ঘিরে চলছে বিরামহীন প্রস্তুতি। সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি এবং বিভিন্ন ইউনিটের পক্ষ থেকে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। গতকাল থেকে শুরু হয়েছে প্রচারণা। সমাবেশকে সফল করতে পোস্টারিং শুরু করা হয়েছে। সিলেট বিএনপির নেতারা জানিয়েছেন, এই সমাবেশ শুধুমাত্র বিএনপির নেতাকর্মীরাই নয়, এতে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা বাড়াতে প্রচারণায় জোর দেয়া হচ্ছে।
সমাবেশের দু’দিন আগে থেকে মাইকিং করার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তারা জানিয়েছেন, এখনো প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিবাচক মনোভাব দেখানো হচ্ছে। প্রশাসন নিরপেক্ষ ভূমিকায় থাকলে সমাবেশের দিন লোকারণ্য হয়ে উঠবে সিলেট নগর। সমাবেশের করণীয় নির্ধারণ করতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ডা. জাহিদ সহ সিলেট বিভাগের নেতারা গত সপ্তাহে সিলেটে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে সবার সর্বসম্মতিক্রমে ২৪শে সেপ্টেম্বর সিলেটের রেজিস্ট্রারি ময়দানে বিভাগীয় সমাবেশ করার ঘোষণা দেয়া হয়। সমাবেশের তারিখ ঘোষণাকালে অনেক নেতা হজে ছিলেন। কেউ কেউ ছিলেন লন্ডনে। তারিখ ঘোষণার পর তারা ইতিমধ্যে দেশে ফিরেছেন। শুরু করেছেন প্রস্তুতি। সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন মানবজমিনকে জানিয়েছেন, ‘সিলেটের ঐতিহাসিক রেজিস্ট্রারি মাঠে সমাবেশ করতে ইতিমধ্যে বিএনপির পক্ষ থেকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে পত্র দেয়া হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে। এ কারণেই আমরা সমাবেশের আয়োজন করতে যাচ্ছি।’ তিনি বলেন, ‘সমাবেশে যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেদিকে আমাদের বিশেষ নজরদারি থাকবে। প্রস্তুতি সভাগুলোতেও এ ব্যাপারে আমাদের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে সমাবেশ সফল করতে গতকাল থেকে সিলেট নগর ও বিভিন্ন উপজেলায় পোস্টারিং শুরু হয়েছে। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তিকে ত্বরান্বিত করতে বিএনপি জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়াতে গণসংযোগও করবে। সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ জানিয়েছেন, ‘প্রচারণায় আমাদের কোনো ত্রুটি থাকছে না। প্রতিদিন বিএনপির জেলা ও মহানগরের অন্তর্গত বিভিন্ন ইউনিটের সভা হচ্ছে। প্রশাসন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করলে সমাবেশস্থলে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষের সমাগম হবে।’ এদিকে সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সহ স্থায়ী কমিটির প্রায় সব নেতার। এ ছাড়া সিলেট বিভাগের সিনিয়র নেতারাও সমাবেশে উপস্থিত থাকবেন। সিলেটে বিএনপির হচ্ছে চতুর্থ বিভাগীয় সমাবেশ। এর আগে বিএনপি বরিশাল, রাজশাহী ও চট্টগ্রামে সমাবেশ করেছে। তিনটি সমাবেশে বিপুল সংখ্যক মানুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এসব সমাবেশের মুখ্য দাবি হচ্ছে দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসনের মুক্তি। এ ছাড়া ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাজা ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং অবিলম্বে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতেও এ সমাবেশের আয়োজন চলছে। সমাবেশ সফল করতে সিলেট জেলা বিএনপির উদ্যোগে জেলার আওতাধীন সকল উপজেলা, পৌর কমিটি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হচ্ছে। আজ বিকালে জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সোবহানীঘাটস্থ বাসায় জেলা বিএনপির আওতাধীন সকল উপজেলা ও পৌর কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময় করা হবে। আগামীকাল বাদ মাগরিব একই স্থানে জেলা শাখার আওতাধীন সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে অপর এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সম্মেলনকে সফল করতে বুধবার রাতে সিলেট মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে ৯টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। মহানগর বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে এসব কমিটি গঠন করা হয়। সমাবেশ সফল করতে এসব উপ-কমিটি বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, অ্যাডভোকেট ফয়জুর রহমান জাহেদ, অ্যাডভোকেট হাবীবুর রহমান, হুমায়ুন কবির শাহীন, কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, আব্দুস সাত্তার, সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিন, অধ্যাপিকা সামিয়া বেগম চৌধুরী, আব্দুল আলীম দিপক, সুদীপ রঞ্জন সেন বাপ্পু, ফাত্তাহ বকশী, বাবু নিহার রঞ্জন দে, আমির হোসেন, উপদেষ্টা সৈয়দ বাবুল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, আলী হোসেন বাচ্চু, মাহবুব কাদির শাহী, অ্যাডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু ও হুমায়ুন আহমদ মাসুক, সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী, কাউন্সিলর সৈয়দ তৌফিকুল ইসলাম হাদী, মুকুল মোর্শেদ ও মাহবুব চৌধুরী, দফর সম্পাদক সৈয়দ রেজাউল করিম আলো প্রমুখ। সিলেট বিভাগ বিএনপির সিনিয়র নেতারা জানিয়েছেন, এই সমাবেশের পরপরই ভেঙে যেতে পারে সিলেট জেলা বিএনপির পুরাতন কমিটি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর সম্মেলনের আয়োজন করা হবে। সুতরাং সিলেট বিভাগীয় সমাবেশের পারফরমেন্সের উপর ভিত্তি করে নতুন আহ্বায়ক কমিটি এবং পরবর্তী কমিটি গঠন করা হতে পারে। এ জন্য এই সমাবেশের দিকে বিশেষ নজর রাখছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যানবাহনের অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধ করতে হবে

ক্রিকেটারদের ধর্মঘট ষড়যন্ত্রের অংশ

যেভাবে কোটিপতি ‘পলিথিন তবারক’

কীভাবে ভিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার করতেন সম্রাট?

ক্রিকেটারদের আন্দোলনে ফিকা’র সমর্থন

দুদকের আট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু

ইডেন টেস্টে উপস্থিত থাকবেন শেখ হাসিনা

‘আমার মনে হয় বোর্ডের সবাই ব্যর্থ’

বিশ্বনাথে পংকি খান ও ফারুককে নিয়ে জল্পনা

পদ্মা সেতুর ১৫তম স্প্যান বসলো

ব্রেক্সিট চুক্তি পাস করাতে জনসনের শেষ প্রচেষ্টা

এনু-রূপণের ৩৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

মাদক-দুর্নীতি-চাঁদাবাজি ও অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে জিরো টলারেন্স: যুবলীগ

সাদাতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের বিক্ষোভ

বাংলাদেশ উন্নয়নের মডেল: আইনমন্ত্রী