রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের দুর্নীতির বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টর | ২০ মে ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৪৬
পাবনার রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প এলাকায় কর্মকর্তা কর্মচারিদের থাকার জন্য গ্রীনসিটি আবাসন পল্লীর বালিশ, বিছানা, আসবাব কেনা ও তা ভবনে তোলায় নজিরবিহীন দুর্নীতির অভিযোগ এনে বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সাইয়্যেদুল হক সুমন। গতকাল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট আবেদনটি করেন। কার্যতালিকায় এলে আজ সোমবার সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে এর শুনানি হতে পারে বলে জানান তিনি। সম্প্রতি রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের গ্রীনসিটি আবাসন পল্লীর ভবনের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কেনা ও তা ভবনে তোলায় অনিয়ম ও আর্থিক দুর্নীতি নিয়ে গত ১৬ মে একটি জাতীয় পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। রিটকারী আইনজীবী সাইয়্যেদুল হক সুমন জানান, ওই প্রতিবেদন যুক্ত করে এ ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে আবেদনটি করা হয়েছে।
সুমন বলেন, গণপূর্ত অধিদপ্তর এ ঘটনার তদন্ত করবে বলে জেনেছি। কিন্তু যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তারাই যদি তদন্ত করে তাহলে তদন্ত কার্যক্রম বিশ্বাসযোগ্য হবে না। এজন্যই বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রয়োজন। প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০ তলা ভবনের প্রতিটি ফ্ল্যাটের জন্য প্রতিটি বালিশ কিনতে খরচ দেখানো হয়েছে পাঁচ হাজার ৯৫৭ টাকা।
আর ভবনে বালিশ ওঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ৭৬০ টাকা। প্রতিটি রেফ্রিজারেটর কেনার খরচ দেখানো হয়েছে ৯৪ হাজার ২৫০ টাকা। রেফ্রিজারেটর ভবনে ওঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ১২ হাজার ৫২১ টাকা। একেকটি খাট কেনা দেখানো হয়েছে ৪৩ হাজার ৩৫৭ টাকা। আর খাট ওপরে ওঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ১০ হাজার ৭৭৩ টাকা। প্রতিটি টেলিভিশন কেনায় খরচ দেখানো হয়েছে ৮৬ হাজার ৯৭০ টাকা। আর টেলিভিশন ওপরে ওঠাতে দেখানো হয়েছে ৭ হাজার ৬৩৮ টাকার খরচ। বিছানার খরচ ৫ হাজার ৯৮৬ টাকা দেখানো হয়েছে। তা ভবনে তুলতে খরচ দেখানো হয়েছে ৯৩১ টাকা। প্রতিটি ওয়ারড্রোব কিনতে খরচ দেখানো হয়েছে ৫৯ হাজার ৮৫৮ টাকা। আর তা ওঠাতে দেখানো হয়েছে ১৭ হাজার ৪৯৯ টাকা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Sharif

২০১৯-০৫-২০ ১১:০৪:৩১

এ ধরনের প্রাক্কলন অনুমোদন কারী কর্মকর্তাকে আইনের আওতায় এনে বিচার না করলে লুটপাট বন্ধ হবে না। প্রত্যেক প্রকল্পের কাজ তদারকি করা উচিৎ।

আপনার মতামত দিন

ট্রেনে কাটা পড়ে দুই সহোদরের মৃত্যু

যৌন সুবিধা চাওয়া পুরুষের সংখ্যা অগণিত- ম্যাডোনা

বিএনপি নেতা হাসান মামুন গ্রেপ্তার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

ফুলপুরে তিন যমজ বোন নিখোঁজ

‘এখনো অভিনয়ের ক্ষুধা মরে যায়নি’

জনবান্ধব-আওয়ামী লীগ

প্রত্যাখ্যান-গণফোরাম

সহায়ক -এফবিসিসিআই

মুশফিককে নিয়ে শঙ্কা

হঠাৎ ডেঙ্গু, ১৫ দিনে আক্রান্ত দুই শতাধিক

সীমান্ত হত্যা অনাকাঙ্ক্ষিত

জাতিসংঘের মর্যাদাপূর্ণ ইকোসকের সদস্য নির্বাচিত হলো বাংলাদেশ

হয়রানিতে সতর্ক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

খালেদা জিয়ার মামলা নিয়ে বিএনপি স্থায়ী কমিটির জরুরি বৈঠক

ঝুঁকিপূর্ণ ওয়াহেদ ম্যানশনে রাতের আঁধারে চলছে নির্মাণ কাজ