শিকাগোতে অনুষ্ঠিত হলো জিয়াউর রহমান ডে প্যারেড

বিশেষ সংবাদদাতা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে | ২০১৫-০৩-২৯ ২:১৯
ওয়াশিংটনের বাংলাদেশ দূতাবাস ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের তীব্র বিরোধিতার মুখে শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো সিটিতে উদযাপন করা হয়েছে জিয়াউর রহমান ডে প্যারেড। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে শিকাগো নগর কতৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে এই প্যারেডের আয়োজন করে স্থানীয় বিএনপি সমর্থকদের সংগঠন বাংলাদেশ কমিউনিটি অব শিকাগোল্যান্ড । ঐতিহ্যগত পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত প্যারেডটিতে রোড মার্শাল হিসাবে নেতৃত্ব দেন শিকাগো সিটির ডেপুটি মেয়র এবং ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা অলডারম্যান জো মোর। বিশেষ অতিথি হিসাবে অনুষ্ঠানটিতে অংশ নেন বিএনপি-র ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা এবং সাবেক শিক্ষা মন্ত্রী ড. ওসমান ফারুক। সম্মানিত অতিথি ছিলেন বিএনপি-র আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপকমিটির সদস্য সচিব ও সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারী। প্যারেডে অংশগ্রহণকারীরা শতাধিক সুসজ্জিত যানবাহনের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ শিকাগোর জিয়াউর রহমান ওয়ে এবং আরও কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে। বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অংশ নেন এই কর্মসূচিতে ।
পূর্ব নির্ধারিত এ কর্মসূচি বাতিলে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশী রাষ্ট্রদূত এম জিয়া উদ্দিন শিকাগোর মেয়রকে চিঠি দেন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগও এই অনুষ্ঠানের তীব্র বিরোধীতা করে। এমন বিরোধীতার মধ্যেই অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শিকাগোর ডেপুটি মেয়র ও ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা অল্ডারম্যান জো মোর বলেন, গণতন্ত্রের জন্য ও আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ভূমিকা রেখেছেন, সংগ্রাম করেছেন এবং জীবন দিয়েছেন। তার প্রতি সম্মান জানাতেই আমরা এখানে আয়োজনে উপস্থিত হয়েছি। আর এই নীতিমালার ভিত্তিতেই শিকাগো সিটি জিয়াউর রহমান দিবসকে স্বীকৃতি দিয়েছে। বাংলাদেশে চলমান বর্তমান পরিস্থিতির প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, যে কোন ব্যক্তির অধিকার রয়েছে অবাধ সুষ্ঠু ও গণতান্ত্রিক নির্বাচনের পক্ষে দাঁড়ানো। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকা সিটির সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা বলেন, বিএনপি ও জিয়াউর রহমানের ভাবমূর্তি বিনষ্টের জন্য সরকার যতো পদক্ষেপই গ্রহণ করুক না কেন, বাংলাদেশ নামক দেশ যতোদিন থাকবে ততোদিন কেউই জিয়াউর রহমানের নাম পৃথিবীর ইতিহাস থেকে মুছে ফেলতে পারবে না।  তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণার পরই দেশবাসী মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে। এটাই প্রকৃত সত্য। বিদেশের মাটিতে জিয়াউর রহমানের স্বীকৃতিতে তাই সরকার ইর্ষান্বিত হয়ে জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে । খোকা বলেন, শিকাগো সিটিতে জিয়াউর রহমান ডে প্যারেড উদযাপনের স্বীকৃতি বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে একটি ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ড. ওসমান ফারুক  বর্তমান সরকারের কর্মকান্ডের কড়া সমালোচনা করে বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করেছে। এরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিনাশকারী। যে আশা-আকাঙক্ষা নিয়ে বাংলাদেশের মানুষ ১৯৭১ সালে যুদ্ধ করেছিল সে আশা-আকাঙক্ষা সরকার হত্যা করেছে। তিনি বলেন, এরা নিজেদের আওয়ামী লীগ বলে পরিচয় দেয়, আসলে তারা সশরীরে বাকশাল। আজকের এই আন্দোলন স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে আন্দোলন, আজকের আন্দোলন একটি মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন। জেল-জুলুম যতোই চলুক না কেন এ আন্দোলন চলছে এবং চলবে। মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের সংগ্রাম যতোদিন পর্যন্ত আদায় না হবে ততোদিন পর্যন্ত এ আন্দোলন চলবে । বাংলাদেশী কমিউনিটি অব শিকাগোল্যান্ড এর সভাপতি শাহ মোজাম্মেল নান্টুর সভাপতিত্বে প্যারেড-পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা শরাফত হোসেন বাবু, এশিয়ান হিউম্যান সার্ভিসের সভাপতি আশরাফ আলী, জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, দেওয়ান আকমল চৌধুরী, সৈয়দ বদর ইসলাম, শাহ মোসাদ্দেক মিন্টু, জসিম উদ্দন প্রমুখ।