টিভির বাংলা সিরিয়ালের দারুণ ভক্ত মমতা

কলকাতা প্রতিনিধি | ২০১৪-০১-০৫ ৮:৩৪
টিভির বাংলা সিরিয়ালের দারুণ ভক্ত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিটি সিরিয়াল তার দেখা চাই-ই। এতো ব্যস্ততার মাঝেও সময় করে টিভি সিরিয়াল দেখেন। যেগুলো সন্ধ্যায় দেখতে পারেন না সেগুলো দেখেন রাতে রিপিট টেলিকাস্টে। ফলে প্রতিটি সিরিয়ালের প্রতিটি চরিত্র ও তাদের নায়ক-নায়িকাদের নাম মুখ্যমন্ত্রীর মুখস্থ। আর তাই এ বছর টেলি সম্মান প্রাপকদের নাম একা হাতেই মমতা বাছাই করেছেন বলে জানা গেছে। গত শুক্রবার টিভি জগতের কুশীলবদের হাতে পুরস্কার দেয়ার অনুষ্ঠানে মমতা নিজেই জানিয়েছেন, আমি খবরের চ্যানেল দেখি না। ধারাবাহিকগুলো দেখি। ফলে মানসিকভাবে ভাল থাকি। খবর দেখলে মেন্টাল টেনশন করতে করতে মেন্টাল পলিউশন হয়। কিন্তু ধারাবাহিকের সামাজিক গল্পগুলো তা কাটিয়ে দেয়। পুরস্কার প্রাপক বাছাই করার ক্ষেত্রে যে তিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন সে কথা জানিয়ে মমতা বলেন, সবাই এতো ভাল অভিনয় করে যে কাকে বাদ দিয়ে কাকে দেবো বুঝতে পারি না। তবে এ বছর যারা পুরস্কার পাননি তাদের আগামী বছর পুরস্কৃত করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন অভিনয় জীবনে কৃতিত্বের জন্য লাইফটাইম এচিভমেন্ট পুরস্কার দেয়া হয়েছে মনোজ মিত্র, সব্যসাচী চক্রবর্তী, সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায় ও মাধবী মুখোপাধ্যায়কে। টেলিভিশনে অবদানের জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন পঙ্কজ সাহা। বিশেষ সম্মান দেয়া হয়েছে প্রয়াত যীশু দাশগুপ্ত ও জোছন দস্তিদারকে। সংগীতে বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন নচিকেতা, দেবজ্যোতি মিশ্র, জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, ইন্দ্রনীল সেন ও অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। সেরা অভিনেতা ও অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন গৌরব, ঋতু, সম্রাট, রোহিত সামন্ত, অপরাজিতা অঢ্য, সন্দীপ্তা, শ্রীপর্ণা, রণিতা, লাখলি ও মানালি। সব মিলিয়ে পুরস্কার পেয়েছেন ১০৬ জন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী টিভির সবার জন্য স্বাস্থ্যবীমার কথা ঘোষণা করেছেন। টিভি স্টুডিও তৈরির জন্য সরকার আলাদাভাবে জমি বরাদ্দ করেছে।