মুলারকেও লাল কার্ড দেয়া উচিত ছিল!

স্পোর্টস ডেস্ক | ২০১৪-০৬-১৮ ১০:৩০
থমাস মুলার পর্তুগালের বিপক্ষে এ বিশ্বকাপের প্রথম হ্যাটট্রিক করে আকাশে উড়ছেন। দলকে এনে দিয়েছেন ৪-০ ব্যবধানের বড় জয়। প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। কিন্তু মুদ্রার ওপিঠে এদিন তিনি করেছেন মারাত্মক অন্যায়। এজন্য তাকেও লাল কার্ড দেখানো উচিত ছিল রেফারির- এমন কথাই বললেন ‘আইটিভি’র ফুটবল বিশেষজ্ঞ প্যাটট্রিক ভিয়েরা। জার্মানির বিপক্ষে এদিন ম্যাচের ৩৭ মিনিটে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন পর্তুগালের ডিফেন্ডার পেপে। এ সময় তিনি জার্মানির স্ট্রাইকার থমাস মুলারকে বাহু দিয়ে আঘাত করেন। চিৎকার করে মাটিতে পড়ে তখন গড়াগড়ি শুরু করেন মুলার। পরে তার এই ভাব দেখে পেপে মাথা দিয়ে তাকে আবার ঢুঁশ দেন। রেফারি মিলোর‌্যাড ম্যাজিক এ সময় সরাসরি লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠছাড়া করেন পেপেকে। ফুটবল বিশেষজ্ঞ প্যাটট্রিক পেপের লাল খাওয়াকে মেনে নিচ্ছেন। তবে এই আধুনিক যুগে এটি হলুদ কার্ড দেখার মতো অপরাধ ছিল বলে মনে করেন তিনি। কিন্তু শুধু পেপে নয়, অতি অভিনয় করার অপরাধে মুলারকে লাল কার্ড দেখানো উচিত ছিল বলে মনে করেন তিনি। পেপের আঘাত পাওয়ার পর সে দাঁড়ানো অবস্থায় যেমন ব্যথা পাওয়ার ভঙ্গি করেন, আসলে অমন ব্যথা পাওয়ার মতো আঘাত নাকি ওটা ছিল না। আর পরে শোয়া থেকে উঠে রেফারির দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টাকেই তিনি ভাল চোখে দেখেননি। বৃটিশ সংবাদ মাধ্যম ‘ডেইল মেইল’ এ সংবাদ প্রকাশ করেছে।
অন্যদিকে অভিনয়ের কথা অস্বীকার করেছেন থমাস মুলার। রেফারিকে লাল কার্ড দেখানোর জন্য উদ্বুদ্ধও তিনি করেননি বলে মনে করেন। বলেন, ‘আশা করছি টিভি রিপ্লে দেখলে আপনারা বুঝতে পারবেন। তখন আরও কেউ সমালোচনা করবেন না। সে আমাকে আঘাত করেছিল। ওই সময় কি ঘটেছিল আমি স্পষ্ট ভাবতে পারছি না। আঘাত খেয়ে অন্যরকম হয়ে গিয়েছিলাম। আমি রেফারির দৃষ্টি আকর্ষণের কোন চেষ্টাই করিনি।’