জাঁকজমকভাবে হয়ে গেল ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির শুভ মহরত

স্টাফ রিপোর্টার | ২০১৫-১২-৩১ ৯:৩৫
সোমবার ফেসবুকে নির্মাতা দীপঙ্কর সেনগুপ্ত দীপন এক পোস্টে লিখেন ‘কাল যে শুরুটা হবে, তার জন্য আমি নিজেকে পরোক্ষভাবে তৈরি করেছি ২৩ বছর ধরে; আর প্রত্যক্ষভাবে চার বছর...দোয়া করবেন, শুভকামনা চাই। কাল আমার সিনেমার মহরত।’ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার এ ছবির শুভ মহরত অনুষ্ঠানে তিনি সেই দোয়া ও শুভকামনা পেলেন। সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলের এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, বিশেষ অতিথি ছিলেন সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান ও তথ্য সচিব মরতুজা আহমেদ, প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এ কে এম শহীদুল হক বিপিএম পিপিএম, পৃষ্ঠপোষক ছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম পিপিএম এবং র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের প্রধান ও সভাপতি ঢাকা পুলিশ পরিবার কল্যাণ সমিতি লি: বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার)সহ আরও অনেকে। অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন আহ্বায়ক, ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির প্রজেক্ট, জয়েন্ট কমিশনার, ডিবি, ডিএমপি, মো. মনিরুল ইসলাম বিপিএম (বার) পিপিএম। এরপর অনুষ্ঠানে এ ছবির কাহিনী ও চিত্রনাট্য লেখক টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট (পুলিশ বিষয়ক) এবং অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (ডিবি) মোহাম্মদ সানী সানোয়ার বলেন, যেভাবে আমাদের দেশে পুলিশ কাজ করে, সেটাই বাণিজ্যিকভাবে এ ছবিতে দেখানো হবে। ঢাকার মিরপুরের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা, উদ্ধারসহ নানা বিষয় এ ছবির গল্পে রয়েছে। আশা করছি, সকলে এটি পছন্দ করবেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আমি চাই এ ধরনের ছবি আমাদের দেশে তৈরি হোক। জনসাধারণের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ কিভাবে কাজ করে তা এ ছবিতে দেখা যাবে। অন্যদিকে, ছবির পরিচালক দীপংকর দীপন বলেন, এ ছবিতে পুলিশের সব ধরনের কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হয়তো সম্ভব নয়। কিন্তু আমার টার্গেট সব ধরনের দর্শক। আমার ছবিটি যেহেতু বাণিজ্যিক, এখানে নাচ-গান-গল্প সবকিছু থাকবে। পুলিশকে একেবারেই অন্যভাবে উপস্থাপন করা হবে। এ ছবিটি যৌথভাবে নির্মাণ করছে ঢাকা পুলিশ পরিবার কল্যাণ সমিতি লি:, থ্রি হুইলারস, স্প্ল্যাশ মাল্টিমিডিয়া। এ ছবিতে অভিনয় করছেন আরিফিন শুভ, মাহি, শতাব্দী ওয়াদুদ, নওশাবা, এ বি এম সুমন প্রমুখ। আরিফিন শুভ তার বক্তব্যে বলেন, আমার পিতা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। আজ আমি পুলিশের জন্য কাজ করতে পারছি। এটাও দেশের কাজ। পুলিশরা সারা জীবন নানা ছুটি না কাটিয়ে কষ্ট করে থাকেন। পুলিশ প্রশাসনে যারা কাজ করছেন, তাদের জীবনযাত্রা, প্রেম-ভালোবাসা, সংকট-সম্ভাবনা; এর সবই থাকবে ছবিতে। জানা গেছে, নতুন বছরের প্রথমেই শুরু হবে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির কাজ। শুটিং হবে ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত।